1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages

বিশ্ব

নির্বাচন কমিশন রাজনৈতিক বক্তব্য দিতে পারে না

‘বিএনপি নাকে খত দিয়ে এই কমিশনের অধীনে নির্বাচন করছে' – ভারপ্রাপ্ত প্রধান নির্বাচন কমিশনার মো. আব্দুল মোবারকের এমন মন্তব্য নিয়ে তোলপাড় চলছে৷ বিএনপি এই বক্তব্যের তীব্র প্রতিবাদ জানিয়েছে৷

বিএনপি বলেছে, ‘‘বর্তমান নির্বাচন কমিশন মেরুদন্ডহীন৷ তারা জিরো৷ তাদের দিয়ে কোনো সুষ্ঠু নির্বাচন সম্ভব নয়৷'' আর উপজলো পরিষদের পঞ্চম ধাপের নির্বাচনের আগের দিন রবিবার সেই বক্তব্য সাংবাদিকরা তুলে ধরেন ভারপ্রাপ্ত প্রধান নির্বাচন কমিশনার মো. আব্দুল মোবারকের কাছে৷ এর জবাবে তিনি বলেন, ‘‘নির্বাচন কমিশন মেরুদন্ডহীন বা কিছুই না, অথবা জিরো হলেও এই কমিশনের অধীনেই উপজেলা নির্বাচন করছে বিএনপি৷ এমনকি নাকে খত দিয়ে এই কমিশনের অধীনে নির্বাচন করছে তারা৷''

তবে নির্বাচন কমিশনার আব্দুল মোবারকের বক্তব্যকে গ্রহণ করতে পারেননি রাজনৈতিক নেতা এবং সুশীল সমাজের প্রতিনিধিরা৷ তাঁরা বলেন বিএনপির রাজনৈতিক কথার জবাবে তাঁর রাজনৈতিক দলের মতো জবাব দেয়া ঠিক হয়নি৷ কারণ নির্বাচন কমিশনকে এজাতীয় সমালোচনা সহ্য করার মানসিকতা থাকতে হবে৷ আর তাদের সবাইকে নিয়ে কাজ করতে হয়৷

স্থানীয় সরকার বিশেষজ্ঞ ড. তোফায়েল আহমেদ বলেন, ‘‘নির্বাচন কমিশনের কোনো দায়িত্বশীল ব্যক্তি এ ধরনের বক্তব্য দিতে পারেন না৷ এটা খুবই আপত্তিকর মন্তব্য৷ কোনো রাজনৈতিক দল নির্বাচনে আসলো কি না আসলো তা নিয়ে নেতিবাচক মন্তব্য করার এখতিয়ার নির্বাচন কমিশনের নেই৷'' তিনি বলেন, ‘‘নির্বাচন কমিশন যদি রাজনৈতিক মন্তব্য করে তাহলে তার নিরপেক্ষতা নিয়ে সে নিজেই প্রশ্ন তোলার সুযোগ করে দেয়৷'' তোফায়েল আহমেদ বলেন, ‘‘নির্বাচন কশিমনের উচিত এধরণের বক্তব্য না দিয়ে নির্বাচন নিয়ে যেসব প্রশ্ন উঠেছে তা খতিয়ে দেখে সমাধানের চেষ্টা করা৷''

এছাড়া বিএনপি চেয়ারপার্সনের উপদেষ্টা শামসুজ্জামান দুদু বলেন, ‘‘নির্বাচন কমিশনার প্রমাণ করেছেন তিনি সরকারের হয়ে কাজ করছেন৷ তাঁর এই বক্তব্য সোমবারের উপজেলা পরিষদ নির্বাচনকে আরো দলীয়করণের ইঙ্গিত৷ পঞ্চম পর্বের এই নির্বাচনে হয়তো বিএনপির প্রার্থীদের ভোটে জেতার সুযোগই দেয়া হবে না৷''

নির্বাচন কমিশনারের মন্তব্যকে গ্রহণযোগ্য মনে করেন না আওয়ামী লীগ নেতা নূহ উল আলম লেনিনও৷ তিনি মনে করেন, ‘‘নির্বাচন কশিশন যেহেতু একটা অরাজনৈতিক প্রতিষ্ঠান তাই এ ধরণের রাজনৈতিক মন্তব্য করা মোটেও উচিত নয়৷''

আর বাংলাদেশের কমিউনিষ্ট পার্টি-সিপিবির সভাপতি মুজাহিদুল ইসলাম সেলিম মনে করেন, ‘‘সাংবিধানিক প্রতিষ্ঠান হয়ে নির্বাচন কমিশনার রাজনৈতিক বিষয়ে নিজেকে জড়িত করেছেন৷ কোনো দল সম্পর্কে মূল্যায়ন করা নির্বাচন কমিশনকে মানায় না৷''

সোমবার পঞ্চম পর্বে ৩৪ জেলার ৭৩টি উপজেলা পরিষদের অনুষ্ঠিত হচ্ছে৷

নির্বাচিত প্রতিবেদন

সংশ্লিষ্ট বিষয়