1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages

বিশ্ব

নির্বাচনে নারীদের জন্য ‘লেভেল প্লেয়িং ফিল্ড' নিয়ে প্রশ্ন

ঢাকা ও চট্টগ্রামের সিটি করপোরেশন নির্বাচনে সংরক্ষিত আসনের কাউন্সিলর প্রার্থীদের দেয়া হয়েছে ঘরের কাজে ব্যবহার করা হয় এমন সব পণ্যের প্রতীক৷ নারী প্রার্থী এবং নারী নেত্রীরা এ নিয়ে সমালোচনামুখর৷

নারী ঘরের চার দেয়াল ছেড়ে অনেক আগেই বাইরের প্রতিযোগিতায় নিজেকে শামিল করেছে৷ চাকুরি, ব্যবসা-বাণিজ্য সব ক্ষেত্রেই৷ এমনকি নির্বাচনেও নারী অংশ নিচ্ছে ভোটার হিসেবে, প্রার্থী হিসেবে৷ কিন্তু সিটি করপোরেশন নির্বাচনে এবার সংরক্ষিত কাউন্সিলরদের প্রতীক বরাদ্দের প্রশ্নেই পুরুষদের চেয়ে আলাদা করে রাখা হয়েছে৷ তাঁদের দেয়া হয়েছে এমন সব পণ্যের প্রতীক যার বেশিরভাগই রান্নার, গৃহস্থালি কাজের কিংবা বাচ্চাদের ব্যবহার উপযোগী সামগ্রী৷ তালিকায় চোখ রাখলেই দেখা যাবে কেটলি, গ্লাস, পান পাতা, টিস্যু বক্স, বৈয়াম, মুলা, মোড়া, শিল পাটা, ঝুমঝুমি, দোলনা, প্রেসার কুকার, ফ্রাইং প্যান, ভ্যানিটি ব্যাগ - এমন কিছু পণ্যের নাম৷

বিষয়টি সবার দৃষ্টি কেড়েছে৷ নারীর প্রতি এখনো নির্বাচন কমিশনের এমন ‘পশ্চাৎপদ' দৃষ্টিভঙ্গির সমালোচনাও করেছেন অনেকে৷ নারী নেত্রীরা মনে করেন, নারীর ক্ষমতায়ন যে শুধু মুখের কথা, আসলে বাস্তব অবস্থা যে খুব বেশি বদলায়নি, প্রতীক বরাদ্দে নারীদের প্রতি এভাবে অসম্মান দেখানো হয়তো তারই প্রমাণ৷

সংরক্ষিত ওয়ার্ড কাউন্সিলর পদের এক প্রার্থী নাম প্রকাশ না করার শর্তে গণমাধ্যমকে বলেছেন ‘‘এমনিতেই দলীয় কারণে আমরা মূলধারায় লড়াই করতে পারিনা৷ যেটুকু মাঠে নামছি তাতেও যদি এভাবে অপমান করা হয় তাহলে কোন সমাজকে আমরা এগিয়ে নিয়ে যাওয়ার কথা ভাবছি, সেটা নিয়েও প্রশ্ন ওঠে৷ নারী প্রতিনিধি হিসেবে আমাদের কোনো অগ্রগতি হয়েছে বলে আমি মনে করিনা৷''

সিটি করপোরেশন নির্বাচনে এ পর্যন্ত সবচেয়ে বেশি উচ্চারিত কথা, ‘লেভেল প্লেয়িং ফিল্ড'৷ সব প্রার্থীর সমান সুযোগের দাবি প্রকাশ পেয়েছে এই তিনটি শব্দে৷ কিন্তু নারী আর পুরুষের ‘লেভেল প্লেয়িং ফিল্ড'-এর কথা নির্বাচন সংশ্লিষ্টদের কারো মুখেই শোনা যায়নি৷

এসিবি/জেডএইচ (নির্বাচন কমিশন ওয়েবসাইট)

নির্বাচিত প্রতিবেদন

সংশ্লিষ্ট বিষয়