1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages

বিজ্ঞান পরিবেশ

নিউজ ফিডে ভিডিও বিজ্ঞাপন চালু করেছে ফেসবুক

বাজারে টিকে থাকতে নিত্যনতুন নানা সেবা চালু করেছে ফেসবুক৷ তবে শুধু ব্যবহারকারীদের নয়, বিজ্ঞাপনদাতাদেরও নতুন সুবিধা দিচ্ছে বিশ্বের সবচেয়ে বড় সামাজিক নেটওয়ার্ক ওয়েবসাইটটি৷

ফেসবুক গত সপ্তাহ থেকে নিউজ ফিডে ভিডিও বিজ্ঞাপন সুবিধা চালু করেছে৷ ‘ডাইভারজেন্ট' নামক একটি সিনেমার ১৫ সেকেণ্ডের ভিডিও বিজ্ঞাপন প্রচার করে এই সুবিধা সকলের জন্য উন্মুক্ত করে ফেসবুক৷ এক ব্লগ পোস্টে প্রতিষ্ঠানটি জানিয়েছে, ‘‘গত সেপ্টেম্বর থেকে আমরা ফেসবুকে ভিডিও'র প্রসার আরো বাড়ানোর উপায় নিয়ে পরীক্ষা-নিরীক্ষা করছিলাম৷ আমরা তাতে দেখেছি ভিডিও শেয়ার, লাইক এবং মন্তব্যের পরিমাণ বর্তমানের চেয়ে আরো দশ শতাংশ বাড়ানো সম্ভব৷''

ফেসবুকের ভিডিও বিজ্ঞাপন ডেস্কটপ, ল্যাপটপ ছাড়াও মুঠোফোন ডিভাইসেও চলবে৷ তবে যেহেতু ভিডিও ডাউনলোডে বেশি ব্যান্ডউইডথ প্রয়োজন হয়, তাই মুঠোফোনের ক্ষেত্রে শুধুমাত্র উচ্চগতির ওয়াইফাই নেটওয়ার্ক ব্যবহার করবে ফেসবুক৷ অর্থাৎ বিজ্ঞাপন লোড হবে ওয়াইফাই নেটওয়ার্ক ব্যবহার করে, মুঠোফোন নেটওয়ার্ক নয়৷

ফেসবুক জানিয়েছে, ভিডিও বিজ্ঞাপন স্বয়ংক্রিয়ভাবেই নিউজফিডে চালু হবে৷ তবে শব্দ ছাড়া৷ আর ব্যবহারকারী সেটি দেখতে না চাইলে পাতা স্ক্রল করে চলে গেলেই হবে৷

ভিডিও বিজ্ঞাপনগুলোর দৈর্ঘ্য হবে ১৫ সেকেণ্ডের মতো৷ কেউ যদি ফেসবুকের ১৮ থেকে ৫৪ বছর বয়সি সকল ব্যবহারকারীকে একদিন এই বিজ্ঞাপন দেখাতে চায়, তাহলে খরচ হবে দুই মিলিয়ন মার্কিন ডলারের মতো৷

এদিকে, বিশেষজ্ঞরা মনে করছে, ফেসবুক বুড়ো হয়ে গেছে৷ অন্তত তরুণ ইন্টারনেট ব্যবহারকারীদের আচরণ নিয়ে গবেষণারতরা তাই মনে করছে৷ ৩৫ বছরের কম বয়সিরা ফেসবুক ছেড়ে অন্যান্য সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমের দিকে ঝুঁকছে৷ গবেষকরা মনে করেন, ফেসবুকে আসলে প্রাপ্তবয়স্ক এবং অল্পবয়সিদের মধ্যে একটি পার্থক্য তৈরি করা প্রয়োজন৷ কেননা স্কুলগামীরা মনে করেন, ফেসবুকে বাবা-মা, শিক্ষক এমনকি ফুটবল কোচের থাকার বিষয়টি ‘‘আনকুল''৷ ফলে তারা বিশ্বাস করতে শুরু করেছে, ফেসবুক আসলে অভিভাবকদের জায়গা৷ ভেন্সলাফ এই বিষয়ে বলেন, ‘‘বাস্তব জীবনেও অল্পবয়সি ছেলে-মেয়েরা সেই সব বার পরিহার করে চলে, যেসবে তাদের বাবা-মায়েরা যান৷''

তবে ফেসবুকের জন্য বিষয়টি এখনো বড় ভাবনার কারণ হয়ে দাঁড়ায়নি৷ যে পরিমাণ ব্যবহারকারী তাদের ছেড়ে যাচ্ছে, তার চেয়ে অনেক বেশি নিয়মিত এই নেটওয়ার্কে যোগ দিচ্ছে৷ আর ৩৫ বছরের বেশি বয়সি বিশ্বস্ত ব্যবহারকারীও ফেসবুকের কম নয়৷

এআই / জেডএইচ (এএফপি)

নির্বাচিত প্রতিবেদন

সংশ্লিষ্ট বিষয়