1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages

বিশ্ব

নাস্তিক ব্লগার হত্যা নিয়ে বিশেষ তথ্যচিত্র

বাংলাদেশে মুক্তমনা, নাস্তিক ব্লগার হত্যাকাণ্ড নিয়ে একটি বিশেষ ভিডিও তথ্যচিত্র প্রকাশ করেছেন একজন ব্লগার৷ ‘‘রেজর’স এজ’’ ইতোমধ্যে আন্তর্জাতিক অঙ্গনে সাড়া জাগিয়েছে৷

বাংলাদেশে ব্লগার হত্যা রোধে সরকার, নিরাপত্তা বাহিনীর ভূমিকা নিয়ে বিভিন্ন সময় প্রশ্ন উঠেছে৷ বিশেষ করে গত বছর ফেব্রুয়ারিতে ব্লগার অভিজিৎ রায় হত্যাকাণ্ডের পর প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা নিন্দা জানাননি, যা বিস্ময়ের জন্ম দিয়েছিল অনেকের মনে৷

সেক্যুলার আদর্শে বিশ্বাসী আওয়ামী লীগ ক্ষমতায় থাকতেই গতবছর খুন হয়েছেন চারজন ব্লগার এবং এক প্রকাশক৷ আর এ সব হামলায় নিন্দার ঝড় উঠেছে আন্তর্জাতিক অঙ্গনে৷ দেশি-বিদেশি গণমাধ্যম প্রকাশ করেছে অসংখ্য প্রতিবেদন৷ কিন্তু ঠিক কী কারণে এ সব হত্যাকাণ্ড, কারা এ সব ঘটাচ্ছে, কারা মদদ দিচ্ছে সেসব বিষয়ে কিছুটা অস্পষ্টতা থেকেই গিয়েছিল৷

সম্প্রতি ইউটিউবে প্রকাশিত এক ভিডিও তথ্যচিত্র সেই অস্পষ্টতা কাটিয়ে দিয়েছে৷ আঠারো মিনিটের ভিডিও তথ্যচিত্রে দেখানো হয়েছে, বাংলাদেশের প্রধান দুই রাজনৈতিক দলের প্রধানদের মধ্যে ব্লগার হত্যা ইস্যুতে অবস্থানগত মিল রয়েছে৷ উভয়েই ইসলাম ধর্মের কোনোরকম সমালোচনার বিপক্ষে৷ ফলে ব্লগার হত্যার নিন্দা জানানো কিংবা মুক্তমনা ব্লগারদের পক্ষে কোনোরকম বক্তব্য প্রকাশে নারাজ তারা৷

ভিডিওচিত্রে ধর্মীয় মৌলবাদীদের নাস্তিক ব্লগারদের বিরুদ্ধে কঠোর অবস্থানের বিষয়টিও ফুটিয়ে তোলা হয়েছে৷ উগ্রপন্থি ধর্মীয় নেতারা ব্লগার হত্যায় প্ররোচনা দিচ্ছে, এমন বক্তব্যও রয়েছে এতে৷ পাশাপাশি জীবনের শঙ্কায় থাকা ব্লগারদের মতামতও রয়েছে ভিডিওচিত্রে৷

ব্লগার ‘নাস্তিকের ধর্মকথা' ভিডিওচিত্রটি তৈরি করেছেন৷ গতমাসে নেদারল্যান্ডসের রাজধানী দ্য হেগে এক অনুষ্ঠানে ‘‘রেজর'স এজ'' প্রদর্শন করা হয়৷ বর্তমানে এটির একটি সংক্ষিপ্ত সংস্করণ ইউটিউবেও রয়েছে৷ ডয়চে ভেলেকে দেয়া এক সাক্ষাৎকারে তিনি বলেন, ‘‘ভিডিও তথ্যচিত্র প্রকাশের পর আশাব্যঞ্জক সাড়া পাচ্ছি৷ বিশেষ করে মুক্তমনা, সেক্যুলার লেখক, ব্লগার, অ্যাকটিভিস্টরা ‘ইমোশনাল অ্যাটাচমেন্ট' ফিল করেছেন, অনেকেই জানিয়েছেন দেখতে দেখতে কেঁদেছেন৷’’

নাস্তিকের ধর্মকথা একটি ছদ্মনাম৷ এর পেছনের মানুষটি বর্তমানে নির্বাসনে রয়েছেন৷ কেননা তাঁকে হত্যার হুমকি দেয়া হয়েছে, একাধিক হিটলিস্টেও উঠে এসেছে তাঁর নাম৷ মুক্তমনা, মানবতাবাদী এই ব্লগার ভিডিও তথ্যচিত্রে রাজনীতিবিদদের বক্তব্য প্রকাশ সম্পর্কে বলেন, ‘‘অনেকেই প্রধানমন্ত্রী ও বিরোধীদলীয় নেতার বক্তব্য পাশাপাশি দেখানো নিয়ে কথা বলছেন, বলেছেন বিভিন্ন সময়ে বিচ্ছিন্ন ভাবে পত্রিকায় তাদের বক্তব্য পড়েছেন, কিন্তু এখানে সরাসরি তাদের কন্ঠে এই বক্তব্য শুনে রিয়ালাইজ করতে পারছেন এই ভয়ানক পরিস্থিতির পেছনে আমাদের নষ্ট রাজনীতি কতখানি দায়ী৷''

‘‘রেজর'স এজ''-এর একটি সমালোচনার কথাও জানিয়েছেন নাস্তিকের ধর্মকথা৷ কেউ কেউ নাকি বলছেন, ভিডিও তথ্যচিত্রটি দেখে মনে হয়েছে এতে ব্লগার হত্যার পেছনে মূলত ইসলামকে দায়ী করা হয়েছে৷ ইউরোপে নির্বাসনে থাকা নাস্তিকের ধর্মকথা এক পোস্টে এই বিষয়ে লিখেছেন, ‘‘আমি কেবল দেখাতে চেয়েছি – আজ যে হত্যার মহোৎসব শুরু হয়েছে – সেটা ইসলামের নাম করে হচ্ছে এবং দেশের আইন-শৃঙ্খলাকে বৃদ্ধাঙ্গুলি দেখিয়ে এ রকম প্রকাশ্য হত্যার হুমকির চাইতে ধর্মীয় অনুভূতিতে আঘাত হানা রাষ্ট্র ও সরকারের কাছে অধিক গুরুতর অপরাধ!''

নাস্তিকের ধর্মকথা জানিয়েছেন, তাঁর তৈরি মূল ভিডিও তথ্যচিত্রটির দৈর্ঘ্য এক ঘণ্টার মতো৷ তবে ব্লগারদের নিরাপত্তার কথা বিবেচনা করে সেটা আপাতত প্রকাশ না করার সিদ্ধান্ত নিয়েছেন তিনি৷ নাস্তিকের ধর্মকথা বলেন, ‘‘যেদিন এই ডকুমেন্টারিতে অংশ নেয়া সবাই যেদিন নিরাপদ জায়গায় যেতে পারবেন কিংবা যেদিন বাংলাদেশ সম্পূর্ণ নিরাপদ দেশে পরিণত হবে – সেদিন এটি অবিকল উন্মুক্ত করবো৷''

আপনার কি কিছু বলার আছে? লিখুন নীচের মন্তব্যের ঘরে৷

নির্বাচিত প্রতিবেদন