1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages

বাংলাদেশ

নাসিরপুরে ৭ জঙ্গি নিহত, র‍্যাব কর্মকর্তাকে নিয়ে গুজব

মৌলভীবাজারের জঙ্গি আস্তানায় দু’দিনের অভিযান শেষ হয়েছে৷ ভবনের ভেতরে ছিন্ন-ভিন্ন ‘সাত-আটটি’ লাশের কথা জানিয়েছেন পুলিশ কর্মকর্তা৷ এদিকে সামাজিক যোগাযোগের মাধ্যমে ছড়িয়ে পড়েছে সিলেট অভিযানে আহত র‍্যাব কর্মকর্তার মৃত্যুর গুজব৷

নাসিরপুরে ‘অপারেশন হিট ব্যাক’ নামক অভিযানে এ পর্যন্ত কমপক্ষে ৭ জঙ্গির মৃত্যুর খবর জানিয়েছে ডয়চে ভেলের কন্টেন্ট পার্টনার বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম৷ কাউন্টার টেররিজম ইউনিটের প্রধান মনিরুল ইসলামের বরাত দিয়ে এ খবর জানায় তারা৷

নাসিরপুরে অভিযান শেষ হলে পৌর এলাকার বড়হাটের জঙ্গি আস্তানায় চূড়ান্ত অভিযান শুরু হবে বলে জানান পুলিশের কাউন্টার টেররিজম ইউনিটের প্রধান মনিরুল ইসলাম৷ সকাল সাড়ে ১০টার দিকে সোয়াট বাহিনী নাসিরপুরে নতুন করে অভিযান শুরুর পর পৌনে ১২টার দিকে বেশ কিছু সময় সেখানে গোলাগুলির শব্দ পাওয়া যায়৷ পরে কয়েকটি বিস্ফোরণেরও শব্দ পাওয়া যায়৷

পুলিশের বোমা নিষ্ক্রিয়করণ ইউনিট ও ক্রাইম সিন ইউনিটের সদস্যরা ওই বাড়ির কাছেই অবস্থান নিয়েছেন৷ সোয়াট সদস্যদের অভিযান শেষে তাদের কাজ ‍শুরু হবে৷ তার আগে ড্রোন পাঠিয়ে ভেতরের পরিস্থিতি পর্যবেক্ষণ করার পরিকল্পনা রয়েছে আইন-শৃঙ্খলা বাহিনীর কর্মকর্তাদের৷

এদিকে মৌলভীবাজার শহরের বড়হাট এলাকার অন্য জঙ্গি আস্তানা ঘিরেও চূড়ান্ত অভিযানের প্রস্তুতি চলছে৷ কাউন্টার টেররিজম ইউনিটের প্রধান মনিরুল ইসলাম বেলা ১১টার দিকে বড়হাটের অভিযানস্থলে যান৷

নাসিরপুরে প্রায় ১৮ কিলোমিটার ব্যবধানে ওই দুই বাড়িরই মালিক লন্ডন প্রবাসী এক ব্যক্তি৷ দুই বাড়িতে নারী ও শিশুসহ ১০ জন মানুষ রয়েছে বলে ধারণা দিয়েছেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খাঁন কামাল৷ ওই দুই এলাকায় ১৪৪ ধারা জারি আছে৷  বন্ধ রাখা হয়েছে গ্যাস ও বিদ্যুৎ সরবরাহ৷

এদিকে, মঙ্গলবার রাতে সিলেটে জঙ্গিবিরোধী অভিযান চলাকালে আহত র‍্যাবের গোয়েন্দা শাখার পরিচালক লেফটেন্যান্ট কর্নেল আবুল কালাম আজাদ এর মৃত্যুর গুজব ছড়িয়ে পড়ে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে৷ এ নিয়ে সমালোচনার ঝড় উঠেছে৷ সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম যে ভুয়া খবর ছড়ানোর অন্যতম মাধ্যম হয়ে উঠেছে সেটি নিয়ে কথা বলেছেন অনেকে৷ অনেকেই আবুল কালাম আজাদের সুস্থতা কামনা করেছেন৷

এর আগে ফেসবুকে অনেকেই কর্নেল আবুল কালাম আজাদ মৃত্যু বরণ করেছেন জানিয়ে শোক প্রকাশ শুরু করেন৷

শওকত আলী নামের একজন লিখেছেন, ‘‘র‍্যাবের গোয়েন্দা শাখার পরিচালক আবুল কালাম আজাদ সিঙ্গাপুরে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা গেছেন৷ তাঁর মৃত্যুতে আমরা গভীর ভাবে শোকাহত৷’’

টুইটারেও দেখা যায় এই তৎপরতা৷ অনেকেই একজন জীবিত মানুষের মৃত্যুসংবাদ শেয়ার করেছেন৷

এমন গুজব ছড়ানোর প্রবণতার নিন্দা জানিয়ে সাংবাদিক প্রভাষ আমিন লিখেছেন, ‘‘এখানেই গণমাধ্যম আর সামাজিক মাধ্যমের পার্থক্য৷ গণমাধ্যম দায়িত্বশীল; সামাজিক মাধ্যমের কোনো দায়িত্ব নেই, জবাবদিহিতা নেই৷ গত শনিবার সিলেটে বোমা হামলায় গুরুতর আহত র‍্যাবের গোয়েন্দা প্রধান লে. কর্নেল আবুল কালাম আজাদকে হেলিকপ্টারে ঢাকায় এনে সিএমএইচে ভর্তি করা হয়৷ তারপর এয়ার অ্যাম্বুলেন্সে সিঙ্গাপুরের মাউন্ট এলিজাবেথ হাসপাতালে গিয়ে মৃত্যুর সাথে পাঞ্জা লড়ছেন৷ কিন্তু গতকাল সকাল থেকেই ফেসবুকে অনেকে তার মৃত্যুসংবাদ দিচ্ছেন৷ তাতে আমরা বিভ্রান্ত হই৷ মূলধারার গণমাধ্যম কর্মীরা নানা জায়গায় খোঁজ নেই৷ কিন্তু খবরটি সত্যি নয়৷ ফেসবুকে অনেক দায়িত্বশীল মানুষও এই ভুল খবরটি পোস্ট করেছেন৷ কিন্তু কোনো মূলধারার গণমাধ্যমে এমন কোনো সংবাদ প্রচারিত হয়নি৷ যাক কারো মৃত্যুর খবর ছড়ালে নাকি তার আয়ু বাড়ে৷ বীর আজাদ যেন সুস্থ হয়ে ফিরে আসেন৷’’

মুন তাসলিমা শেখ এই পোস্টটি শেয়ার করে লিখেছেন, ‘‘ফেসবুকে মৃত্যু সংবাদ দিতে পারলে সব হৈ হৈ করে ওঠে৷ মানুষ এত স্যাডিস্ট কেন? আমি অনেক জীবিতের মৃত্যু খবর পেয়েছি ফেসবুকে এবং পোর্টালে যারা দিব্যি এখনও বেঁচে আছেন৷’’

সৈয়দ খলিলুর রহমান লিখেছেন, ‘‘র‍্যাবের গোয়েন্দা প্রধান লেফটেনেন্ট কর্নেল আবুল কালাম আজাদের মৃত্যু সংবাদ‌টির কো‌নো সত্যতা পেলাম না৷ কারা ছড়া‌লো এমন ভুয়া খবর? আশা ক‌রি, তি‌নি সম্পূর্ণ সুস্থ হ‌য়ে মাতৃভূ‌মি‌তে ফির‌বেন৷’’

তারেক মাহমুদ ফেসবুক পাতায় লিখেছেন, ‘‘সিঙ্গাপুরের মাউন্ট এলিজাবেথ হাসপাতালে জীবন-মৃত্যুর সন্ধিক্ষণে রয়েছেন র‍্যাবের গোয়েন্দা শাখার পরিচালক লেফটেন্যান্ট কর্নেল আবুল কালাম আজাদ৷ তাকে লাইফ সাপোর্টে রাখা হয়েছে৷ মহান আল্লাহতালার কাছে একটাই প্রার্থনা- আমাদের এই বীর সন্তানকে সুস্থতা দান করুন৷’’

সংকলন: অমৃতা পারভেজ

সম্পাদনা: আশীষ চক্রবর্ত্তী

প্রিয় পাঠক, এই বিষয়ে আপনার প্রতিক্রিয়া জানাতে পারেন নীচে মন্তব্যের ঘরে...

নির্বাচিত প্রতিবেদন

সংশ্লিষ্ট বিষয়