1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages

খেলাধুলা

নাটক করেই বিদায় নিল আজ্জুরিরা

ড্রামা ইটালি শেষ পর্যন্ত নাটক দেখিয়েই বিশ্বকাপ থেকে বিদায় নিল৷ স্লোভাকিয়ার বিরুদ্ধে ম্যাচের শেষ কয়েক মিনিটগুলোতে আজ্জুরিরা যখন কমপক্ষে ড্র-র জন্য মরিয়া হয়ে খেলছে ততক্ষণে দেরি হয়ে গেছে৷

default

রবার্ট ভিটেকের গোল, ইটালির খেলোয়াড়দের মাথায় হাত

গোটা ম্যাচের শেষ ১৫ মিনিট বাদে মার্চেলো লিপ্পির দলকে কখনোই মনে হয়নি তাঁরা ডিফেন্ডিং চ্যাম্পিয়ন, এবং শিরোপা ধরে রাখতে তাঁদের কোন আগ্রহ আছে৷ বরং শেষ ম্যাচে জয়ের নেশায় প্রতিপক্ষ স্লোভাকিয়ার ফুটবলাররা উজাড় করে খেলেছে৷ তার ফল প্যারাগুয়ের সঙ্গে তাঁদেরও দ্বিতীয় রাউন্ডের টিকিট পাওয়া৷

প্রথমার্ধেই এক গোল করে এগিয়ে যায় স্লোভাকিয়া৷ ২৫ মিনিটের মাথায় ইটালির রসির ভুলে বল পেয়ে যান স্লোভাকিয়ার রবার্ট ভিটেক৷ তাঁর দুর্দান্ত ফিনিশিং ঠেকানোর চেষ্টা করেও ব্যর্থ হন ইটালির গোলকিপার মারচেত্তি৷ এর আগে খেলা শুরুর ছয় মিনিটের সময় গোলের সুযোগ পেয়েছিলেন ভিটেক৷ কিন্তু সেসময় ব্যর্থ হন৷ প্রথমার্ধের পুরোটা সময় ইটালির মধ্যমাঠকে মনে হয়েছে অবিন্যস্ত৷ অন্যদিকে লং পাসে খেলে মাঝে মধ্যে বিপজ্জনক হয়ে ওঠেন স্লোভাকিয়ার স্ট্রাইকাররা৷ ৩৫ মিনিটের সময় স্টারবার একটি জোরালো শট কোনভাবে বাঁচিয়ে দেন মারচেত্তি৷

NO FLASH Italien Slowakei WM 2010 Fußball Weltmeisterschaft

কুয়াগলিয়ারেলাকে সান্ত্বনা দিচ্ছেন অধিনায়াক কানাভারো

এরপর দ্বিতীয়ার্ধের খেলার শুরুতেও মনে হচ্ছিল জয়ের চেয়ে ড্র-ই ইটালির কাম্য৷ কারণ ড্র করলেই পরের পর্ব নিশ্চিত হতো তাঁদের৷ কিন্তু ৭৩ মিনিটের সময় রবার্ট ভিটেক দ্বিতীয় গোল করে বসলে যেন হুঁশ ফেরে আজ্জুরিদের৷ এসময় ইটালির ডিফেন্ডারদের ভুলে ছোট ডি বক্সের ভেতর হামসিকের কাছ থেকে বল পেয়ে যান ভিটেক৷ কিছু বুঝে ওঠার আগেই তাঁদের হতভম্ব করে দিয়ে বল জালে জড়িয়ে দেন তিনি৷ অবশ্য এই গোলটির কিছু আগে ইটালির ফাবিও কুয়াগলিয়ারেলার একটি নিশ্চিত গোলের সুযোগ ব্যর্থ হয়৷ তাঁর শট গোল লাইন থেকে ফিরিয়ে দেন স্লোভাকিয়ার স্কারটেল৷

এরপর থেকে ইটালিকে মনে হয়েছে দলটি গতবারের বিশ্বচ্যাম্পিয়ন৷ একের পর এক আক্রমণ তারা শানিয়ে গেছে স্লোভাকদের সীমানায়৷ ৮১ মিনিটের মাথায় ইয়াকুইন্তার কাছ থেকে বল পেয়ে একটি গোল শোধ করেন নাতাল৷ এর একটু পর আবারও বল জালে জড়িয়ে দেন এই নাতালই৷ কিন্তু রেফারির বাঁশি অফসাইডের কারণে৷ যদিও পরে রিপ্লেতে দেখা গেছে যে এটি ছিল ভুল সিদ্ধান্ত৷ গোল করতে মরিয়া ইটালির বেশিরভাগ খেলোয়াড় যখন মধ্যমাঠের ওপরে তখনই ৮৯ মিনিটের মাথায় স্লোভাকিয়ার পক্ষে তৃতীয় গোলটি করে বসেন কামিল কাপুনেক৷ অতিরিক্ত সময়ের এক মিনিটের মাথায় ২৫ গজ দুর থেকে ফাবিও কুয়াগলিয়ারেলার শটটি স্লোভাকিয়ার গোলরক্ষককে ফাঁকি দিয়ে জালে জড়িয়ে গেলেও ততক্ষণে বেশ দেরি হয়ে গেছে৷

ইটালির রক্ষণভাগ নিয়ে সবসময় বলা হয়ে থাকে এটি বিশ্বসেরা৷ কিন্তু তিন ম্যাচে পাঁচ গোল খেয়ে তাঁরা গত ৩৬ বছরের মধ্যে এই প্রথমবার প্রথম রাউন্ড থেকে বিদায় নিল৷

প্রতিবেদন: রিয়াজুল ইসলাম, সম্পাদনা: জাহিদুল হক

সংশ্লিষ্ট বিষয়