1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages

বিশ্ব

নাইজিরিয়ায় বেশ এগিয়ে জনাথনের ‘গুডলাক’

নাইজিরিয়া৷ আফ্রিকার সবচেয়ে জনবহুল দেশ৷ এছাড়া ঐ মহাদেশের সবচেয়ে বড় তেল উৎপাদনকারী রাষ্ট্র৷ সেখানকার প্রেসিডেন্ট নির্বাচনে বর্তমান প্রেসিডেন্ট গুডলাক জনাথনের জয়লাভ প্রায় নিশ্চিত৷

default

গুডলাক জনাথন

সর্বশেষ ফলাফল

এখন পর্যন্ত মোট ২৮টি রাজ্যের ফল ঘোষণা করা হয়েছে৷ এর মধ্যে গুডলাক জনাথন ২০টিতে জিতেছেন৷ সঙ্গে রাজধানীতেও তিনি জয়লাভ করেছেন৷ তাঁর নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী মুহাম্মাদু বুহারি জিতেছেন সাতটি প্রদেশে৷ আর একটিতে জিতেছেন আরেক প্রার্থী৷ এখনো ফল ঘোষণা বাকী আটটি রাজ্যের৷ আজ সোমবার সেগুলো ঘোষিত হবে৷

নির্বাচন কেমন ছিল?

নির্বাচনী পরিস্থিতি অনেকটা শান্তই ছিল৷ অন্তত গত দুই দশক ধরে নাইজিরিয়ায় নির্বাচন মানেই সহিংসতা বলে যে ধারণা প্রচলিত ছিল এবার সেটা দেখা যায়নি৷ তবে ফলাফল ঘোষণার পর দেশটির উত্তরাঞ্চলে কিছু দাঙ্গার খবর পাওয়া গেছে৷ কারণ কয়েকটি রাজ্যের ঘোষিত ফলাফলে দেখা গেছে, গুডলাক জনাথন শতকরা ৯৫ শতাংশের বেশি ভোট পেয়েছেন৷ আর তাঁর নিজের রাজ্যে তিনি ভোট পেয়েছেন ৯৯.৬৩ ভাগ৷ মানে প্রায় শতভাগই বলা যায়৷ এজন্য বিরোধীদের অভিযোগ নির্বাচনে কারচুপি হয়েছে৷ এছাড়া কোনো কোনো বিশেষজ্ঞও এই ধরণের ফলাফলে সন্দেহ প্রকাশ করে বলেছেন এটা কারচুপির কথাই মনে করিয়ে দেয়৷

আঞ্চলিক বিভক্তি

অনেকে বলছেন নির্বাচনের ফলাফলে নাইজিরিয়ার আঞ্চলিক বিভক্তি আরও পরিস্কার হয়ে উঠেছে৷ কারণ দেখা গেছে মুসলমান অধ্যুষিত উত্তরে প্রেসিডেন্ট প্রার্থী বুহারি, যিনি একজন মুসলমান, তিনি জয়ী হয়েছেন৷ আর গুডলাক জনাথন, যিনি একজন খ্রিস্টান, তিনি ভাল করেছেন খ্রিস্টান অধ্যুষিত দক্ষিণে৷ এই বিষয়টা অনেকের কাছে একটু শঙ্কার৷ কারণ নাইজিরিয়াতে বিভিন্ন নৃতাত্ত্বিক জনগোষ্ঠীর সংখ্যাটা অনেক বেশি৷ প্রায় আড়াইশো জনগোষ্ঠীর বসবাস এই দেশটিতে৷

কে এই গুডলাক জনাথন?

নামের মতোই তাঁর ‘লাক' মানে ভাগ্যটা ভালই বলতে হবে৷ কারণ হঠাৎ করেই তিনি বড় নেতা হয়ে উঠেছিলেন৷ এবং প্রাক্তন প্রেসিডেন্টের মৃত্যুর কারণে মাত্র গত বছরই তিনি প্রেসিডেন্ট পদে আসীন হয়েছিলেন৷

প্রতিবেদন: জাহিদুল হক

সম্পাদনা: সুপ্রিয় বন্দ্যোপাধ্যায়