1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages

বিশ্ব

নবম জাতীয় সংসদের অধিবেশন শেষ

নবম জাতীয় সংসদের অধিবেশন শেষ হয়েছে বুধবার৷ সংসদ সদস্যরা তাঁদের পদে বহাল থাকলেও এই মেয়াদে সংসদের অধিবেশ আর বসবে না৷ তাই বিরোধী দলের নির্দলীয় সরকারের দাবি পূরণে সংবিধান সংশোধনেরও কোনো সুযোগ নেই৷

বুধবার রাতে নবম জাতীয় সংসদের সমাপনী ভাষণে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেন, তাঁর সরকার সংসদ নির্বাচনের জন্য প্রস্তুত৷ নির্বাচন হবে সাংবিধানিক কাঠামোর মধ্যেই৷ এছাড়া নির্বাচনকালীন সরকার পরিচালনার দায়িত্ব পালন করতে রাষ্ট্রপতি তাঁকে অনুমতি দিয়েছেন বলেও জানান তিনি৷ তিনি বলেন, বৃহস্পতিবার নির্বাচনকালীন মন্ত্রিসভার সদস্যদের নাম এবং তাঁদের দপ্তর বণ্টনের গেজেট প্রকাশিত হবে৷ তাই তত্ত্বাবধায়ক সরকারের বিষয়কে আবারো নাকোচ করে দিয়ে বিরোধী দল বিএনপিকে নির্বাচনে অংশ নেয়ার আহ্বান জানান প্রধানমন্ত্রী৷

প্রধানমন্ত্রী বলেন, বিরোধী দলকেও নির্বাচনকালীন সরকারে যোগ দেয়ার আমন্ত্রণ জানানো হয়েছিল৷ কিন্তু দুঃখজনক হলেও সত্য যে, তারা যোগ দেয়নি৷ তিনি বলেন, ছোট আকারের নির্বাচনকালীন মন্ত্রিসভা নির্বাচন কমিশনকে সহায়তা করবে আর ‘রুটিন ওয়ার্ক' চালিয়ে যাবে৷



শেখ হাসিনা তাঁর সমাপনী ভাষণে বলেন, একটি নির্বাচিত সরকার আরেকটি নির্বাচিত সরকারের কাছে দায়িত্ব হস্তান্তর করবে৷ নির্বাচন ছাড়া সরকার পরিবর্তনের কোনো সুযোগ নেই৷ তাঁর কথায়, দেশের উন্নয়নের জন্য গণতান্ত্রিক প্রক্রিয়া অব্যাহত রাখা প্রয়োজন৷ সে কারণেই তাঁর সরকার কোনো অগণতান্ত্রিক প্রক্রিয়াকে সুযোগ দেবে না৷

তিনি সংসদে জানান, দশম জাতীয় সংসদ নির্বাচন যথাসময়ে অনুষ্ঠিত হবে৷ এই নির্বাচন কেউ বাধাগ্রস্থ করতে পারবে না৷ তিনি বলেন, নির্বাচন হবে সুষ্ঠু এবং নিরপেক্ষ৷

২০০৯ সালের ২৫শে জানুযারি নবম জাতীয় সংসদের প্রথম অধিবেশন বসেছিল৷ মোট ১৯টি অধিবেশনের মাধ্যমে এই সংসদের কার্যক্রম শেষ হলো৷ এই সংসদের মেয়াদ ২৪শে জানুয়রি পর্যন্ত হলেও আর অধিবেশন বসবে না৷ অর্থাৎ, আগামী জানুযারি মাসে নির্বাচনকে সামনে রেখেই অধিবেশ শেষ করা হলো৷

এদিকে বিএনপির নেতৃত্বে বিরোধী ১৮ দল নির্দলীয় তত্ত্বাবধায়ক সরকারের অধীনে নির্বাচন দাবি করে আসছে৷ তাদের দাবি ছিল, সংসদের এই শেষ অধিবেশনেই সংবিধান সংশোধন করে তত্ত্বাবধায়ক সরকার ব্যবস্থা ফিরিয়ে আনা৷ এ জন্য তারা এই অধিবেশনের শুরুর দিকে সংসদে গিয়ে খালেদা জিয়ার প্রস্তাব তুলে ধরেছিল৷ কিন্তু সংসদের অধিবেশন শেষ হয়ে যাওয়ায় এখন আর সেই সুযোগ নেই বলে ডয়চে ভেলেকে জানান সুপ্রিম কোর্ট আইনজীবী সমিতির সাবেক সাধারণ সম্পাদক শ. ম রেজাউল করিম৷ তিনি বলেন, অতি গুরত্বপূর্ণ রাষ্ট্রীয় প্রয়োজনে রাষ্ট্রপতি চাইলে সংসদের অধিবেশন ডাকতে পারেন৷ তবে তার নজির এখন পর্যন্ত বাংলাদেশে নেই বলে জানান তিনি৷

নির্বাচিত প্রতিবেদন

সংশ্লিষ্ট বিষয়