1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages

অন্বেষণ

‘নন-ডেস্ট্রাক্টিভ টেস্টিং’: অ-বৈনাশিক পরীক্ষা

ফ্লাক্স-স্ক্রলার কাকে বলে জানেন? মসৃণ লোহার ওপর চুলের দাগের মতো, কিংবা আঁচড়ের মতো সরু ফাটল আবিষ্কার করার ক্ষমতা রাখে এই যন্ত্র৷ অপর একটি সেন্সর যন্ত্র দিয়ে কংক্রিটে চিড় ধরেছে কিনা, তাও বোঝা সম্ভব৷

default

ফ্লাক্স-স্ক্রলার দিয়ে ট্রেনের চাকায় চুলের মতো সূক্ষ্ম ফাটলও ধরা পড়ে

এই সব যন্ত্র উদ্ভাবন করা হচ্ছে জারব্রুকেনের ফ্রাউনহোফার ইনস্টিটিউটে, যার পুরো নাম হলো: ফ্রাউনহোফার ইনস্টিটিউট ফর নন-ডেস্ট্রাক্টিভ টেস্টিং বা আইজেডএফপি৷ ইনস্টিটিউটের গবেষকরা তাঁদের যন্ত্রপাতি ভাড়াও দিয়ে থাকেন, কেননা সেন্সরের মাধ্যমে টেস্টিং-এর বাজার বাড়ছে বৈ কমছে না৷

কখনো গোঙাচ্ছে, কখনো চিঁ চিঁ করছে: এমনই একটি অদ্ভুত বস্তু হলো এই ‘ফ্লাক্স-স্ক্রলার'৷ জার্মান ও ফরাসি গবেষকরা মিলে যন্ত্রটি উদ্ভাবন করেছেন৷ এটি বস্তুত একটি রোবোট৷ এই ফ্লাক্স-স্ক্রলার যখন একটি লোহার পাইপের চারপাশে ঘোরে কিংবা কেঁচোর মতো সেই পাইপ বেয়ে এগোতে থাকে, তখন সে আসলে পাইপের উপরিভাগ পরীক্ষা করে দেখে খুঁত বার করার চেষ্টা করছে৷ সেটাই হলো এই যন্ত্রের কাজ৷ প্রযুক্তিবিদ ও তাদের সহযোগী শিল্পসংস্থারা মিলে যন্ত্রটিকে বাজারে বিক্রি করার পর্যায়ে আনার চেষ্টা করছেন৷ চেইন বা শিকল তৈরির কোম্পানিরা ইতিমধ্যেই আগ্রহ দেখিয়েছে৷

জারব্রুকেনের আইজেডএফপি-র ইওখেন কুরৎস বলেন: ‘‘চেইন বা শিকল পরীক্ষার আন্তর্জাতিক চাহিদা আছে৷ আমরা তো শুধু ঝোলানো সেতুর চেইনের কথাই ভাবছি না: যে কোনো ধরনের কনস্ট্রাকশন, যা-তে চেইন আছে, সে সবই এভাবে পরীক্ষা করা সম্ভব৷ কাজেই এর একটা বেশ বড় বাজার আছে, বলে আমার ধারণা৷''

সেতু হলো অবকাঠামোর অঙ্গ৷ কাজেই সেতু পরীক্ষা ফ্রাউনহোফার ইনস্টিটিউটের গবেষকদের কাছে একটি গুরুত্বপূর্ণ কাজ৷ এ কাজের জন্য তাঁরা একটি বিশেষ ধরনের সেন্সর উদ্ভাবন করেছেন৷ এই যন্ত্রটি তাঁরা বানিয়েছেন জার্মান রেলওয়ের জন্য: যন্ত্রটি দিয়ে ট্রেনের চাকায় চুলের মতো সূক্ষ্ম ফাটলও ধরা পড়ে৷ ইতিমধ্যেই একশোটির বেশি ওয়ার্কশপে এই টেস্টিং প্রণালী চালু হয়ে গেছে৷ তার মধ্যে একটি বসানো হয়েছে ইংলিশ চ্যানেলের নীচে ইউরো টানেলে৷

ইওখেন কুরৎস বলেন: ‘‘ফ্রাউনহোফার সমিতির ঘোষিত লক্ষ্য হলো, ফলিত বিজ্ঞানের ক্ষেত্রে গবেষণা৷ যে কারণে আমরা শিল্পসংস্থাগুলির সঙ্গে ঘনিষ্ঠ যোগাযোগ রেখে চলি৷ ফ্রাইনহোফার সমিতি তার কর্মীদের শিল্প-ব্যবসায়ের পক্ষে উপযোগী গবেষণা প্রকল্পে কাজ করতে উৎসাহ দেয়৷'' কোনো শিল্পসংস্থার প্রকল্পে এক ইউরো রোজগার হলে, তার ৩০ সেন্ট পান গবেষকরা৷ যেমন তেল ও গ্যাসের পাইপলাইন পরীক্ষা করার সেন্সর৷

গ্রাহকদের প্রয়োজন অনুযায়ী তৈরি ইলেকট্রনিক যন্ত্রপাতি থেকে ভালোই আমদানি হয়৷ গবেষকরা গতবছর এভাবে রোজগার করেছেন মোট ১ কোটি ২০ লক্ষ ইউরো৷

টেস্টিং-এর জন্য রোবোট ভাড়া দিয়েও রোজগার হয়৷ অবশ্য ভাড়ার রোবোট মাত্র দু'টি৷ চাকা দেওয়া গাড়িটি যা পরীক্ষা করে, তা হলো কংক্রিট, যা কিনা পরীক্ষা করা খুব শক্ত৷ এই রোবোটটি প্রায়শই ভাড়া দেওয়া হয়ে থাকে, কেননা রোবোটটি দ্রুত এবং অপেক্ষাকৃত সহজ পন্থায় ভবনটির অবস্থা যাচাই করতে পারে৷ ইওখেন কুরৎস-এর ভাষ্যে:

‘‘এ থেকে জানা যায়, কোথায়, কখন এবং কীভাবে মেরামতির কাজ করতে হবে৷ মেরামতির জন্য পরিকল্পনার প্রয়োজন৷ প্রায়ই দেখা যায়, কারখানা অথবা বাড়ির আদত নকশা খোয়া গেছে৷ কাজেই ভেতরের কাঠামো সম্বন্ধে কেউ কিছু জানে না৷ কিন্তু ক্ষয়ক্ষতি চোখে পড়লে, সেগুলো কোত্থেকে এলো, তা জানা দরকার৷''

এখনও বহু বাড়ি, সেতু কিংবা অন্যান্য স্থাপত্যে স্থায়ী সেন্সর না বসিয়ে উপায় নেই৷ তবে ইনস্টল্ড হোক আর মোবাইল, সেন্সরের মাধ্যমে টেস্টিং বেড়েই চলেছে৷ কেননা সর্বত্রই বাড়ছে অবকাঠামোর বয়স৷

নির্বাচিত প্রতিবেদন

ইন্টারনেট লিংক