1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages

জার্মানি ইউরোপ

নতুন বছরের চাওয়া অধিকাংশই পূরণ হয় না

প্রতি বছর একই ব্যাপার৷ বড়দিন ও নববর্ষের মাঝামাঝি কয়টা দিন জার্মানরা নতুন বছর কীভাবে কাটানো যায়, কোন কোন ভাল কাজ করা যায়, তা নিয়ে মাথা ঘামায়৷ তবে অনেকের পক্ষে সেই ইচ্ছা পূরণ সম্ভব হয় না৷

৪০ শতাংশ জার্মান বছরের শেষ প্রান্তে এসে পরের বছরের জন্য একটা পরিকল্পনা করতে চান৷ এর মধ্যে প্রথমেই রয়েছে স্ট্রেস বা চাপ কমানো৷ পরের স্থানে আছে পরিবার, বন্ধুবান্ধব ও খেলাধুলা৷ ২০১৩ সালের সমাপ্তি লগ্নে জার্মানদের আগামী বছরের পরিকল্পনা নিয়ে এই তথ্য জানায় ‘ফোরসা ইন্সটিটিউট'৷

বিভিন্ন বিষয়ে জরিপ করে থাকে প্রতিষ্ঠানটি৷ স্বাস্থ্য বিমা প্রতিষ্ঠান ডিএকে-এর উদ্যোগে ২০০৬ সাল থেকে এই ধরনের সমীক্ষা চালানো হচ্ছে৷ এবার তিন হাজারের বেশি নারী ও পুরুষকে জিজ্ঞাসাবাদ করা হয়েছে৷

নতুন করে যাত্রা

নতুন বছর অনেকের জন্য নতুন করে যাত্রা শুরু করা, বলে মনে করেন বখুমের মনস্তত্ত্ববিদ ইউর্গেন মারগ্রাফ৷ এর পেছনে রয়েছে তিনটি মনস্তাত্ত্বিক দিক৷ নতুন বছরের পরিকল্পনা হলো জীবনের ওপর নিয়ন্ত্রণের প্রচেষ্টা৷ ‘‘আমরা নিয়ন্ত্রণ করতে চাই৷ কারণ আমরা জানি, যে স্ট্রেস নিয়ন্ত্রণ করা যায়, তা আমাদের ক্ষতি করে না৷''

কোলনের রাইনগোল্ড মার্কেট রিসার্চ ইন্সটিটিউটের শ্টেফান গ্রুনেভাল্ডও একই ধারণা পোষণ করেন৷ ভাল কিছু করার পরিকল্পনা আমাদের দিক নির্দেশনা দেয়৷ ‘‘আমি কেমন হতে পারি, তার একটা ছবি মনে আঁকা হয়৷''

দ্বিতীয় একটা দিক হলো অবাস্তব আশাবাদ: ‘‘আমরা আসলে যা পারি তার চেয়ে বেশি পারবো বলে মনে করি,'' ডয়চে ভেলের সঙ্গে এক সাক্ষাৎকারে বলেন মনস্তাত্ত্বিক মারগ্রাফ৷ নতুন বছরের আশা-আকাঙ্খায় আমরা মনে করি, ‘‘আমরা যদি চাই, তাহলেই কিছু করতে পারি৷''

অন্তরে চলে লড়াই

এর ফলে মানুষের অন্তরে একটা লড়াই শুরু হয়ে যায়, বলেন মনস্তাত্ত্বিক গ্রুনেভাল্ড৷ কেউ যদি ধূমপান ছেড়ে দেওয়া বা খেলাধুলা বাড়িয়ে দেওয়ার পরিকল্পনা করে, তাহলে অনবরত নিকোটিনের আসক্তি বা মনের ভেতরের ‘দানবটার' বিরুদ্ধে লড়াই করে যেতে হয়৷

যারা নতুন বছরে কিছু করার অঙ্গীকার করেন, তাদের মধ্যে মাত্র অর্ধেক তিন মাসের বেশি সেটা করে যেতে পারেন৷ এই তথ্য জানা যায় ফোরসা ইন্সটিটিউটের সমীক্ষা থেকে৷

আত্মপ্রতারণা

মারগ্রাফ মনে করেন অবাস্তব আশাবাদ থেকেই এই ব্যর্থতা আসে৷ বিশেষজ্ঞ গ্র্যুনেভাল্ড বিষয়টিকে ‘আত্মপ্রতারণা' বলে মনে করেন৷

তাঁর ভাষায়, ‘‘যেহেতু আমরা আগে থেকেই জানি যে, এই সংকল্প আমরা বাস্তবায়িত করতে পারব না৷''

নতুন বছরের আশা আকাঙ্খা বাস্তবায়িত করার ব্যাপারে কিছু পরামর্শ দেন এই দুই মনস্তাত্ত্বিক৷ মারগ্রাফ বলেন, ‘‘এক্ষেত্রে আংশিক পদক্ষেপ কাজে লাগতে পারে৷ বেশি স্পোর্টস করার মানে এই নয় যে ১ জানুয়ারি থেকেই ১০ কিলোমিটার দৌড়াতে হবে৷ তার চেয়ে ধীরে ধীরে ট্রেনিং দিয়ে এগিয়ে যেতে হবে৷''

Deutschland Spiel Famlienleben Familie mit Brettspiel

৪০ শতাংশ জার্মান বছরের শেষ প্রান্তে এসে পরের বছরের জন্য একটা পরিকল্পনা করতে চান

গ্র্যুনেভাল্ড মনে করেন এব্যাপারে মাঝামাঝি একটা লক্ষ্যমাত্রা স্থির করা উচিত৷ এছাড়া একেবারে অবাস্তব কোনো পরিকল্পনা নেওয়াই ঠিক নয়৷

মনস্তাত্ত্বিকরাও মাথা ঘামান

গ্র্যুনেভাল্ড নিজেও বড়দিন ও নববর্ষের মাঝখানে কয়েক ঘণ্টা ব্যয় করেন, সামনের বছরের কিছু পরিকল্পনা ক্যালেন্ডারে লিখে রাখার জন্য৷ ২০১২ তে একটা বই লেখার কথা ভেবেছিলেন তিনি৷ ‘‘এই কাজটা করতে পেরেছি,'' বলেন এই মনস্তত্ত্ববিদ৷ তবে তাঁর ইন্সটিটিউটে কিছু পরিবর্তন আনার চিন্তাটা বাস্তবায়িত হয়নি৷

ইউর্গেন মারগ্রাফও প্রতি বছরই কিছু না কিছু করার কথা চিন্তা করেন৷ তবে তা একেবারে ১ জানুয়ারি থেকেই নয়৷ জন্মদিন থেকে৷

অনলাইনের একটি পত্রিকা জার্মানদের নতুন বছরের এই উদ্দীপনা সম্পর্কে কৌতুক করে লিখেছে: ‘২০১৪ সালের ১০টি সর্বোত্তম অঙ্গীকার': অর্থহীন জিনিসের জন্য অর্থব্যয় না করা৷ শুধুমাত্র অপ্রয়োজনীয় জিনিসের জন্য ব্যয় করা৷ কিংবা সপ্তাহে একদিন ফিটনেস স্টুডিওতে গিয়ে দেখা ওটি এখনও টিকে আছে কিনা৷

নির্বাচিত প্রতিবেদন