1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages

বিশ্ব

নতুন আঙ্গিকে বইমেলা, নিরাপত্তাই বড় চ্যালেঞ্জ

অমর একুশে গ্রন্থমেলা শুরু হবে আর ২ দিন পর, ১লা ফেব্রুয়ারি৷ মাসব্যাপী এই বইমেলা এবার বাংলা একাডেমী ছাড়িয়ে সোহরাওয়ার্দী উদ্যানেও বিস্তৃত হচ্ছে৷ আয়োজকরা এবারের বইমেলার নিরাপত্তাকেই সর্বাধিক গুরুত্ব দিচ্ছেন৷

প্রতি বছর অমর একুশে গ্রন্থমেলা বাংলা একাডেমী প্রাঙ্গণে সীমাবদ্ধ থাকলেও এবার মেলার পরিসর বিস্তৃত হচ্ছে৷ একাডেমীর সামনের সড়ক পেরিয়ে এবার মেলা বিস্তৃত হয়েছে সোহরাওয়ার্দী উদ্যান পর্যন্ত৷ তাই মেলায় স্টল অনেক বেশি ৷ একাডেমী প্রাঙ্গণে ২০০ এবং সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে ২৩০টি মিলিয়ে মোট ৪৩০টি স্টল বরাদ্দ দেয়া হয়েছে প্রকাশকদের৷

এছাড়াও একাডেমী প্রাঙ্গণে শিশু কর্নার, লিটল ম্যাগ চত্বর, তথ্যকেন্দ্র, মিডিয়া, স্বায়ত্ত শাসিত প্রতিষ্ঠান, সেবামূলক প্রতিষ্ঠান, শিল্প ও সংস্কৃতি বিষয়ক প্রতিষ্ঠানকে জায়গা দেয়া হয়েছে৷ আর বটতলার নজরুল মঞ্চে হবে নতুন বইয়ের মোড়ক উন্মোচন৷ এবার মেলায় বাংলা একাডেমীর বইয়ের স্টল থাকছে ২টি৷

বইমেলা পরিচালনা কমিটির সদস্য সচিব শাহিদা খাতুন ডয়চে ভেলেকে জানান, মেলার পরিসর বাড়ানোর দাবি ছিল দীর্ঘদিনের৷ আর নিরাপত্তার দিক থেকে পরিসর বাড়ানো ছিল একটি বড় চ্যালেঞ্জ৷ এবার বাংলা একাডেমী সেই চ্যালেঞ্জটি নিয়েছে৷ নিরাপত্তাও নিশ্ছিদ্র করা হয়েছে৷

১লা ফেব্রুয়ারি বিকেলে গ্রন্থমেলার উদ্বোধন করবেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা৷ উদ্বোধনের পরই মেলা সবার জন্য উন্মুক্ত করে দেয়া হবে৷ এবারের মেলা উত্‍সর্গ করা হয়েছে প্রয়াত ভাষা সৈনিক, লেখক, সাবেক তত্ত্বাবধায়ক সরকারের উপদেষ্টা ও সাবেক প্রধান বিচারপতি হাবিবুর রহমানকে৷

১লা ফেব্রুয়ারি থেকে শুরু হলেও বই মেলা পুরোপুরি সরগরম হতে সময় লাগবে, কারণ, অধিকাংশ স্টলের কাজই এখনো শেষ হয়নি৷ প্রতি বছর মেলা শুরুর ১ সপ্তাহ আগে স্টল বরাদ্দ দেয়া হলেও এবার তা সম্ভব হয়নি৷ মঙ্গলবার লটারির মাধ্যমে স্টল বরাদ্দ দেয়া হয়৷ তবে উদ্বোধনের জন্য অমর একুশে মঞ্চ প্রস্তুত৷ শাহিদা খাতুন জানান, মেলা এবার সম্প্রসারিত হওয়ায় কোন অংশে কোন প্রকাশকরা স্টল বরাদ্দ পাবেন তা নির্ধারণ করতে বেগ পেতে হয়েছে৷ আর নতুন অংশের নির্মাণ কাজ ও স্পন্সর পেতে সময় লেগেছে৷ তাই স্টল বরাদ্দের লটারি করতে দেরি হয়েছে৷ তবে তাঁর আশা, ১লা ফেব্রুয়ারিই সব স্টলের কাজ শেষ হয়ে যাবে৷

এবারে নিরাপত্তার দিকে বিশেষ নজর দেয়া হয়েছে৷ দুই অংশের দু'টি প্রবেশ পথেই ২টি করে ৪টি আর্চওয়ে গেট বসানো হয়েছে৷ থাকছে ৬৫টি সিসি ক্যামেরা আর একাধিক পর্যবেক্ষণ টাওয়ার৷ ব়্যাব পুলিশের টহল ছাড়াও সাদা পোশাকে পুলিশ থাকছে মেলার নিরাপত্তায়৷ সঙ্গে থাকছে ৫০ জন আনসার সদস্যও থাকছেন৷

মেলার পরিসর বাড়ায় প্রকাশকরা খুশি৷ সাহিত্যকথা প্রকাশনীর মিজানুর রহমান জানান, এবার নতুন ৪৫টি প্রকাশনা প্রতিষ্ঠান স্টল পেয়েছে৷ তিনি মনে করেন, এবার মেলায় নতুন বই বেশি আসবে৷ আর লোকজনও বেশি আসবেন৷ কারণ তিনি আসা করছেন এবার মেলা চলাকালে তেমন কোনো রাজনৈতিক কর্মসূচি থাকবেনা৷

এবার বই মেলায় সাহিত্য পুরস্কার ও ফেলোশিপ দেয়া হবে৷ আন্তর্জাতিক খ্যাতিসম্পন্ন মুখাভিনয় শিল্পী পার্থপ্রতিম মজুমদারকে ফেলোশিপ দেয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছে বাংলা একাডেমী৷

নির্বাচিত প্রতিবেদন

সংশ্লিষ্ট বিষয়