1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages

বিশ্ব

ধর্মযাজককে হত্যার চেষ্টার নেপথ্যে কারা?

পাবনায় খ্রিষ্টান ধর্মযাজক লুক সরকারকে হত্যার চেষ্টা পরিকল্পিত বলে মনে করছে পুলিশ৷ লুক জানান, ‘‘যারা আমাকে হত্যার চেষ্টা করেছে, তাদের আমি দেখলে চিনবো৷ যাকে আটক করা হয়েছে, তাকে আমি চিনি না৷''

গত ৫ই সেপ্টেম্বর পাবনার ঈশ্বরদীর ভাড়া বাসায় লুক সরকারকে জবাই করে হত্যার চেষ্টা করে দুবৃত্তরা৷ তিনি নিজের সাহসিকতা এবং পরিবারের সদস্যদের সহায়তায় প্রাণে বেঁচে যান৷ হাসপাতালে প্রাথমিক চিকিত্‍সা নেয়ার পর বাড়িতেই অবস্থান করছেন৷ তিনি জানিয়েছেন, খ্রিষ্টান ধর্ম গ্রহণ করার কথা বলে এর আগেও দুর্বৃত্তরা তাঁর বাসায় একবার এসেছিল৷ তিনি তাদের জানিয়েছেন, ‘‘ধর্মান্তরিত করা আমার কাজ নয়, আমি শুধু যিশুর বাণী প্রচার করি৷''

ঈশ্বরদী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) বিমান কুমার দাশ ডয়চে ভেলেকে বলেন, ‘‘আমাদের কাছে মনে হয়েছে, এটা একটি পরিকল্পিত হত্যা প্রচেষ্টা৷ দুর্বৃত্তরা দীর্ঘদিন ধরে তাঁকে অনুসরণ করেছে৷ হত্যাই ছিল উদ্দেশ্য৷ ধর্মবিশ্বাস ছাড়া আর কোনো মোটিভ আমরা এখনো খুঁজে পাইনি৷''

দেশি-বিদেশি পত্র-পত্রিকা এ নিয়ে সংবাদ করেছে ইতিমধ্যে ৷ সামাজিক যোগাযোগের মাধ্যমেও উঠে এসেছে এ খবর৷

পুলিশ এরই মধ্যে এই ঘটনায় ওবায়দুল ইসলাম নামে এক ‘শিবির কর্মীকে' আটক করেছে৷ ওসি দাবি করেন, ‘‘ওবায়দুল শিবিরের একজন কর্মী৷ পাবনার আশুলিয়া ও ঈশ্বরদী থানায় নাশকতার একাধিক মামলার পলাতক আসামি সে৷ তাকে এই মামলায় গ্রেপ্তার দেখানো হয়েছে৷''

তবে লুক সরকার জানান, ‘‘যাকে আটক করা হয়েছে, তার নাম আমি বলিনি এবং তাকে চিনিও না৷ যারা আমাকে হত্যা করতে এসেছিল, তাদেরও আমি দেখলে চিনবো৷''

তিনি জানান, ‘‘এ বিষয় নিয়ে পুলিশ আমাকে সাংবাদিকদের সঙ্গেও কথা বলতে নিষেধ করেছে৷ আর যদি কথা বলতেই হয়, তাহলে পুলিশের সামনে বলতে হবে৷''

এই যাজক বলেন, ‘‘আমাকে ঘটনার পর পুলিশি নিরাপত্তা দেয়া হয়েছে৷ তবে আমার এখন খুব খারাপ লাগছে এই ভেবে যে, আমি কী এমন অপরাধ করেছি, যে আমাকে হত্যা করতে হবে৷ আমার জানা মতে আমার কোনো শত্রু ছিল না৷ কেন তাঁরা আমার শত্রু হলেন?''

জন্মসূত্রে বাংলাদেশের নাগরিক লুক সরকার বলেন, ‘‘আমার কোনো অভিযোগ নেই কারোর বিরুদ্ধে৷ আমি মামলাও করতে চাইনি৷ তবে দেশের প্রচলিত আইনের প্রতি আমি শ্রদ্ধাশীল৷ তাই পুলিশের অনুরোধে অজ্ঞাত ব্যাক্তিদের বিরুদ্ধে মামলা করেছি৷''

এদিকে লুক সরকারকে হত্যার চেষ্টায় খ্রিষ্টান সম্প্রদায়ের নেতারা অবিলম্বে হামলাকারীদের গ্রেপ্তার ও শাস্তি এবং নিজেদের নিরাপত্তা বাড়ানোর দাবি জানিয়েছেন৷ সোমবার এক বিজ্ঞপ্তিতে ঘটনার প্রতিবাদ ও নিন্দা জানিয়েছে বাংলাদেশ খ্রিষ্টান অ্যাসোসিয়েশন৷

এ বিষয়ে আপনার মন্তব্য লিখুন নীচের ঘরে৷

নির্বাচিত প্রতিবেদন