1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages

বিজ্ঞান পরিবেশ

ধনকুবেররা এবার অবকাশ যাপন করতে পারবেন মহাশূন্যের হোটেলে

মহাশূন্যে প্রথম হোটেল নির্মাণ হতে যাচ্ছে৷ এই পরিকল্পনার কথা জানালো রাশিয়ার একটি সংস্থা৷ তারপর থেকে জল্পনা-কল্পনা শুরু হয়ে গেছে ধনকুবেরদের মধ্যে৷ কবে হচ্ছে এই হোটেল? কারা যেতে পারবেন সেখানে?

default

অবকাশ যাপন গমন যান

এই হোটেল নির্মাণের বিষয়টি তদারকি করছে ‘ইন্টারন্যাশনাল স্পেস স্টেশন' বা আইএসএস'এর রাশিয়ান অংশীদার৷ ব্যক্তিগত পর্যটন শিল্পের বিকাশের জন্যই এই হোটেল নির্মাণের পরিকল্পনা করা হয়েছে৷ এই কোম্পানির ডেপুটি চিফ ডিজাইনার আলেক্সান্ডার দেরেচিন বলেছেন, রাশিয়ার মালিকানাধীন ‘এনার্জিয়া' সংস্থা ব্যক্তিগত মহাশূন্য স্টেশনের জন্য বিনিয়োগকারী খুঁজছে, যেখানে ৭জন পর্যন্ত মানুষ থাকতে পারে এবং যেটি হোটেল হিসেবে কাজ করবে৷

দেরেচিন বার্তা সংস্থা রয়টার্সকে বলেছেন, বানিজ্যিকভাবে পৃথিবীর বিভিন্ন জায়গায় মহাশূন্যযান তৈরি হচ্ছে৷ তাদের কোনো এক গন্তব্যের প্রয়োজন৷ সাম্প্রতিক বছরগুলোতে রকেটে করে মহাশূন্যে ভ্রমণ নিয়ে প্রবল উৎসাহ দেখা গেছে ধনকুবেরদের মধ্যে৷

অরবিটাল এর এক বিবৃতিতে বলা হয়েছে, এই হোটেলটিতে বিজ্ঞানীরা তাঁদের গবেষণা কাজ চালাতে পারবেন৷ মিডিয়া প্রজেক্টস এবং বিনোদনসহ বিভিন্ন ধরণের সুযোগও রাখা হবে সেখানে৷

দেরেচিন বলছেন, ব্যক্তিগতভাবে বিনিয়োগকারীদের অঙ্গীকারবদ্ধ হতে ১শ' মিলিয়ন থেকে ১ বিলিয়ন মার্কিন ডলার জমা দিতে হচ্ছে৷ অরবিটাল বলছে, এরইমধ্যে কয়েকজন ক্রেতা চুক্তিপত্রে স্বাক্ষর করেছেন৷ তিনি বলছেন, ‘‘২০১৫ সালের আগে এই হোটেলটির কাজ শেষ করতে পারবো বলে আমরা মনে করছিনা৷ কিন্তু আমরা এটাও মনে করছিনা, যে তারও বেশি সময় আমাদের অপেক্ষা করতে হবে৷ এ বিষয়টি নিয়ে দিনদিন প্রতিদ্বন্দ্বিতা বাড়ছে৷ তাই আমাদের দ্রুত এটা করা প্রয়োজন৷''

দেরেচিন জানিয়েছেন, আমেরিকার ‘বাজেট সুটস' হোটেলের মালিক রবার্ট বিজেলোরও মহাশূন্যে এই ধরণের একটি হোটেল নির্মাণের পরিকল্পনা রয়েছে৷ তাই লাস ভেগাসে রবার্টের ‘বিজেলো এয়ারোস্পেস' সংস্থার সঙ্গে যৌথভাবে রাশিয়ান এই প্রকল্পটির কাজ সম্পন্ন করা হবে৷

প্রতিবেদন: জান্নাতুল ফেরদৌস

সম্পাদনা: সঞ্জীব বর্মন