1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages

খেলাধুলা

দ্রগবা’র ইনজুরি, তবুও আশা আইভরি কোস্টকে নিয়ে

এবারের বিশ্বকাপে আফ্রিকার দলগুলো নিয়ে ফুটবল বিশেষজ্ঞদের ধারণা, যে এবার তারা সম্ভবত কিছু একটা করে দেখাতে পারবে৷ সেই হিসেবে যে দলটির নাম সবার আগে আসবে সেটা হল দিদিয়ের দ্রগবার আইভরি কোস্ট৷

default

আহত দিদিয়ের দ্রগবার

আসলে আফ্রিকান দলগুলোই যেন এমন, কখন কি করে বসবে তা আগে থেকে কিছু বলে দেওয়া যায় না৷ যেমন সেনেগালের কথাই ধরুন না৷ ২০০২ এর বিশ্বকাপে তাদের পারফরমেন্স ছিল একটা বড় চমক৷ প্রথম ম্যাচে তারা হারিয়ে দিয়েছিল তখনকার ডিফেন্ডিং চ্যাম্পিয়ন ফ্রান্সকে৷ গত বিশ্বকাপে আইভরি কোস্ট তেমন আহামরি কিছু দেখাতে না পারলেও এটুকু অন্তত বুঝিয়ে দিয়েছিল তারা ফেলনা নয়৷ আসলে প্রথমবারের মত বিশ্বকাপে এসে আর্জেন্টিনা ও নেদারল্যান্ডসের সঙ্গে গ্রুপে পড়ার ফলে তারা সে সুযোগটি পায়নি৷ আসলে আইভরি কোস্টের ভাগ্যটিই যেন এমন৷ এবারও তাদের গ্রুপে রয়েছে ব্রাজিল ও পর্তুগালের মত শক্তিশালী দল৷ গ্রুপের অন্য দলটি হল উত্তর কোরিয়া৷ তাই গতবারের মত এবারও তাদের প্রথম রাউন্ডেই বেশ শক্ত পরীক্ষা দিতে হবে৷ তবুও এক জরিপে দেখা গেছে যে শতকরা ৫০ ভাগ লোক মনে করছে এবার ঠিকই দ্বিতীয় রাউন্ডে উঠে যাবে আফ্রিকান এলিফেন্টরা৷

পশ্চিম আফ্রিকার এই দলটির সবচেয়ে বড় ভরসা তাদের অধিনায়ক ও স্ট্রাইকার দিদিয়ের দ্রগবা৷ যদিও ইতিমধ্যে দ্রগবার বিশ্বকাপ খেলা অনিশ্চিত হয়ে গেছে ইনজুরির কারণে৷ তবু দলে আছেন কোলো তুরে, গেরভিনহোর মত খেলোয়াড়রা যারা যে কোন ম্যাচে প্রতিপক্ষকে ভড়কে দিতে সক্ষম৷ এর বাইরে তো তাদের রয়েছে সভেন গোরান এরিকসনের মত কোচ৷ গত বিশ্বকাপে ইংল্যান্ডকে প্রশিক্ষণ দিয়েছেন তিনি৷ এর বাইরেও রয়েছে ইটালি ও পর্তুগালের মত দেশের কোচিং এর অভিজ্ঞতা৷ আশা করা যায় এরিকসনের নেতৃত্বে এবার একটা চমক হয়তো দেখাবে আইভরি কোস্ট৷ দলের সবচেয়ে শক্তিশালী দিক হল তাদের গতি এবং আক্রমণ যা আর সব আফ্রিকান দলেই দেখা যায়৷ তবে রক্ষণভাগ তুলনামূলকভাবে দুর্বল৷ এছাড়াও দলের খেলোয়াড়দের অভ্যন্তরীণ কোন্দলও একটি বড় সমস্যা হয়ে দেখা দিতে পারে৷

প্রতিবেদন: রিয়াজুল ইসলাম
সম্পাদনা: দেবারতি গুহ

সংশ্লিষ্ট বিষয়