1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages

জার্মানি ইউরোপ

দ্বৈত নাগরিকত্ব নিয়ে দ্বিধা, নানা প্রশ্ন

জার্মানি যে অভিবাসীদের দেশ হয়ে উঠতে চলেছে, জার্মান রাজনীতিকরাও সে কথা মানেন৷ কিন্তু দ্বৈত নাগরিকত্ব? সেখানে আইনের যে বাধা আছে, তা দূর করতে চায় সামাজিক গণতন্ত্রী এসপিডি দল৷

জার্মানিতে জন্ম, এমন অভিবাসী সন্তানদের ২৩ বছর বয়স পর্যন্ত দ্বৈত নাগরিকত্ব থাকতে পারে৷ কিন্তু ২৩ বছর হবার মধ্যে তাঁদের জার্মান অথবা বাবা-মায়ের সাবেক দেশের নাগরিকত্ব, এই দু'টোর মধ্যে একটাকে বেছে নিতে হবে৷ এ না করলে তাঁদের জার্মান পাসপোর্ট তলব করে ‘‘নাগরিকত্ব খারিজের নোটিশ'' জারি করা যেতে পারে – এবং হয়েও থাকে!

কোনো একটি দেশের নাগরিকত্ব বেছে নেওয়ার এই ‘‘অপশান মডেল''-টি ২০০০ সালে চালু করা হয়৷ সে যাবৎ জার্মানিতে জন্ম, এমন অভিবাসী সন্তানদের ঐ দ্বৈত নাগরিকত্বের সুযোগ দেওয়া হয়ে থাকে – তবে ২৩ বছর বয়স অবধি৷ ২৩তম জন্মদিনের মধ্যে নিজের পছন্দ-অপছন্দ না জানালে সংশ্লিষ্টের অজান্তেই তাঁর জার্মান নাগরিকত্ব খারিজ হয়ে যায়৷

দ্বৈত নাগরিকত্ব

অপরদিকে এই ‘‘অপশান মডেল'' বাস্তবিক দ্বৈত নাগরিকত্বের বিকল্প হতে পারে না৷ বলতে কি, আইনের নানা ফাঁকফোকর দিয়ে জার্মানিতে ইতিমধ্যেই দ্বৈত নাগরিকত্ব ঢুকে পড়েছে: যেমন মরোক্কান, ইরানি, আলজিরীয়, সিরীয় এবং ল্যাটিন অ্যামেরিকা থেকে আসা অধিকাংশ বহিরাগতদের ক্ষেত্রে ‘‘অপশান মডেল''-টি চলে না, কেননা তাদের সাবেক দেশগুলি ‘‘এক্সপ্যাট্রিয়েশন'' বা নাগরিকত্ব বাতিল মেনে নেয় না৷ ফলে জার্মান-সিরীয় বা জার্মান-আলজিরীয় নাগরিকত্বের মানুষরা জার্মানিতে দু'ধরনের পাসপোর্ট রাখতে পারে৷

তবে দ্বৈত নাগরিকত্বের প্রশ্নটি যে বহিরাগত গোষ্ঠীর কাছে সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ, তাঁরা হলেন জার্মানিতে বসবাসকারী তুর্কিরা, যাঁদের সংখ্যা প্রায় ৩০ লাখ৷ এঁদের মধ্যে প্রায় দশ লক্ষের জন্ম আবার এই জার্মানিতেই৷ জার্মানির তুর্কি সম্প্রদায় নামধারী সমিতির ফেডারাল সভাপতি কেনান কোলাৎ ‘‘অপশান মডেলের'' অবসান দাবি করেছেন৷ তিনি চান, জার্মান নাগরিকত্ব আহরণের সহজ এবং সরলতর প্রক্রিয়া৷ এছাড়া দ্বৈত নাগরিকত্ব রাখার সুবিধাও তাঁর কাম্য৷ কোলাতের বক্তব্য: ‘‘যুগপৎ দু'জন প্রভুর সেবা করা যে সম্ভব নয়, এই আদর্শগত বিতর্কের অবসান ঘটা প্রয়োজন৷'' দ্বৈত নাগরিকত্বের অর্থ, সংশ্লিষ্ট ব্যক্তির ‘‘সংস্কৃতিকে স্বীকৃতি দেওয়া''৷

কার কোথায় অবস্থান

সংসদীয় নির্বাচনের পর জোট সরকার গঠন নিয়ে যে আলাপ-আলোচনা চলেছে, তা-তেও দ্বৈত নাগরিকত্বের প্রশ্নটি মাথা চাড়া দিয়েছে৷ এসপিডি দল ‘‘অপশান মডেল'' তুলে দিতে চায় এবং নীতিগতভাবে দ্বৈত নাগরিকত্ব চালু করতে চায়৷ অপরদিকে খ্রিষ্টীয় সামাজিক সিএসইউ দল তার বিরোধী: জার্মানির সিএসইউ স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী হান্স-পেটার ফ্রিডরিশ যেমন বলেছেন, ‘‘টক বিয়ারের মতো করে জার্মান নাগরিকত্ব অফার করার কোনো প্রয়োজন নেই''৷

Zwei Reisepässe in Jeanstasche. babimu - Fotolia 22406610

জার্মানিতে জন্ম, এমন অভিবাসী সন্তানদের ২৩ বছর বয়স পর্যন্ত দ্বৈত নাগরিকত্ব থাকতে পারে

অপরদিকে ফ্রিডরিশ অপশান মডেলের সময়সীমা ২৩ বছর থেকে বাড়িয়ে ৩০ বছর করতে রাজি৷ এছাড়া ফ্রিডরিশের সিএসইউ দলের নেতা হর্স্ট জেহোফার স্বয়ং একটি ‘‘সুপ্ত নাগরিকত্ব'' মডেলের প্রস্তাব দিয়েছেন, যার জন্য একক দেশগুলির সম্মতির প্রয়োজন পড়বে৷ তা সত্ত্বেও জেহোফারের এই প্রস্তাবকে দ্বৈত নাগরিকত্ব মেনে নেওয়া পথে সিডিইউ-সিএসইউ দলের প্রথম পদক্ষেপ হিসেবে গণ্য করা হচ্ছে৷

নির্বাচিত প্রতিবেদন

সংশ্লিষ্ট বিষয়