1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages

ইউরোপ

দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধে লুণ্ঠিত পিসারোর ছবি ফেরত দিতে নির্দেশ

দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধ চলাকালীন লুণ্ঠিত হয় প্রখ্যাত ফরাসি চিত্রকর কামি পিসারোর আঁকা কয়েকটি ছবি৷ এর মধ্যে সন্ধান পাওয়া একটি ছবি তার প্রকৃত মালিকের কাছে ফিরিয়ে দেয়ার নির্দেশ দিয়েছে প্যারিসের একটি আদালত৷

এ বছরের শুরুর দিকে প্যারিসের মারমোতঁ জাদুঘরে উনিশ শতকের বিখ্যাত চিত্রকর কামি পিসারোর আঁকা ছবি ‘লা কিয়েৎ দে পোয়া' বা ‘পি হারভেস্ট' প্রদর্শিত হয়৷ মার্কিন দম্পতি ব্রুস ও রোবি টল তাঁদের সংগ্রহে থাকা ছবিটি প্রদর্শনী উপলক্ষ্যে জাদুঘরে দিয়েছিলেন৷ আর সেখানেই তা নজরে পরে ফ্রান্সের ব্যবসায়ী সিমোঁ বাউয়ার৷ ১৯৪৩ সালে যে সম্ভ্রান্ত ইহুদি আর্ট কালেক্টর পরিবারের কাছ থেকে ছবিটি নাৎসিরা লুট করে, সিমোঁ বাউয়ার তাঁদেরই বংশধর৷ ছবিটি প্রদর্শনীতে দেখেই এর স্বত্ব দাবি করে মামলা করেন সিমোঁ বাউয়ার৷ মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের এই দম্পতি ১৯৯৫ সালে নিলামে ৮ লক্ষ ডলার দিয়ে ছবিটি কিনেছিলেন৷ আদালতের ঘোষণা অনুযায়ী, ছবিটির এ হাত বদল অবৈধ আর তা ফেরত দিতে হবে মূল মালিকের কাছে৷ এমনকি যে অর্থ দিয়ে তাঁরা ছবিটি কিনেছিলেন তা ফেরত দেয়ার আদেশের বদলে উলটে এ দম্পতিকেই ৮ হাজার ইউরো আদালতে জমা দিতে বলা হয়েছে৷

তবে মার্কিন দম্পতি এর বিরুদ্ধে আপিল করবে বলে জানান তাদের আইনজীবী৷ ‘‘আমার মক্কেল ছবিটি উদ্ধার করতে না পারলে খুবই হতাশ হবেন৷ ছবিটি তাঁদের খুবই পছন্দ৷ তাঁরা নিশ্চয় এ রায়ের বিরুদ্ধে আপিল করবেন৷''

অন্যদিকে, বাউয়ার পরিবার আদালতের এ সিদ্ধান্তকে ‘স্বাভাবিক' বলে মনে করেন৷ বাউয়ার-এর পিতামহ ছিলেন জুতার ব্যবসায়ী৷ নাৎসি কনসেন্ট্রেশন ক্যাম্পে নিয়ে যাওয়ার পথে সৌভাগ্যক্রমে পালিয়ে বেঁচেছিলেন তিনি৷ যুদ্ধ শেষে ১৯৪৭ সালে মৃত্যু হয় তাঁর৷ 

২০১১ সালে জার্মানির মিউনিখ থেকে উদ্ধার করা হয়েছিল শত শত অমূল্য পেইন্টিং যেগুলো নাৎসি বাহিনী বিভিন্ন সময়ে লুট করেছিল৷ ছবিগুলো বর্তমানে বন শহরে ‘গুরলিট কালেকশন' নামে প্রদর্শিত হচ্ছে৷

আরএন/ডিজি (এপি, এএফপি)

প্রতিবেদনটি কেমন লাগলো জানান আমাদের, লিখুন নীচের ঘরে৷

নির্বাচিত প্রতিবেদন