1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages

সমাজ সংস্কৃতি

দোররা মেরে নৃশংসভাবে হত্যা করা হল হেনাকে

প্রথমে ধর্ষণের শিকার, পরে ৭০ থেকে ৮০টি দোররা৷ কিশোরী হেনার মৃত্যু নিশ্চিত করতে আর কোন কিছুর প্রয়োজন হয়নি৷ তার পরিবারের দাবি, ধর্ষণের শিকার হেনা নির্যাতনের পরে মৃত্যুর কোলে ঢলে পড়ে৷ ভয়াবহ ঘটনাটি ঘটেছে শরীয়তপুর জেলায়৷

default

ধর্মের নামে নারীদের উপর অত্যাচার কবে বন্ধ হবে?

ঘটনার পরে স্থানীয় পুলিশ একজন ফতোয়াবাজসহ চারজনকে গ্রেপ্তার করেছে গত বুধবার৷ ফরাসি বার্তা সংস্থা এএফপির সঙ্গে আলাপকালে শরীয়তপুরের পুলিশ প্রধান এ.কে.এম শহিদুর রহমান অবশ্য দাবি করেন, কিশোরী হেনা বেগমের ‘অবৈধ সম্পর্ক’ ছিল তার জ্ঞাতি ভাই মাহবুবের সঙ্গে৷

শহিদুর রহমান এএফপিকে বলেছেন, ‘অবৈধ সম্পর্ক’ প্রকাশের পরে গ্রাম্য সালিশে মেয়েটিকে ১শ'টি দোররা মারার সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়৷ যেখানে, সে অজ্ঞান না হওয়া পর্যন্ত তাকে দোররা মারা হয়৷ এরপরে সোমবারে হাসপাতালে স্থানান্তর করার পরে হেনার মৃত্যু হয়৷

Klimawandel Bangladesch Überschwemmung Slum Haors

গ্রামবংলার ঐতিহ্যে এমন নির্মম ফতোয়াবাজদের স্থান নেই

বার্তা সংস্থা এএফপিতে প্রকাশিত পুলিশের এই বক্তব্যের সঙ্গে স্থানীয় গণমাধ্যমে প্রকাশিত খবরের অমিল রয়েছে৷ মৃতের বাবা দরবেশ খাঁ দৈনিক প্রথম আলোকে বলেন, ‘আমার মেয়েকে ধর্ষণ করার পর কোনো বিচার পেলাম না৷ উল্টো মেয়েকে বিচারের মুখোমুখি হয়ে জীবন দিতে হলো৷’

এই ঘটনার পর হেনার বাবা বাদী হয়ে গ্রেপ্তার হওয়া চারজনসহ ১৮ জনের বিরুদ্ধে মামলা করেছেন৷ ধর্ষক মাহাবুব ও অন্যান্য ফতোয়াবাজদের গ্রেপ্তার করা সম্ভব হয়নি বলেও জানিয়েছে দৈনিক প্রথম আলো৷ ইংরেজি দৈনিক দ্য ডেইলি স্টারেও একই তথ্যসহ সংবাদ প্রকাশ করেছে৷

মানবাধিকার সংস্থাগুলো বলছে, মুসলিম অধ্যুষিত বাংলাদেশের প্রত্যন্ত রক্ষণশীল গ্রামাঞ্চলে ব্যভিচারের মতো ‘‘অপরাধ''-এর দায়ে মেয়েদেরকে জনসমক্ষে দোররা মারার এই সমস্ত সালিশ বসে, যদিও বাংলাদেশে এভাবে শাস্তি দেওয়া সম্পূর্ণ নিষিদ্ধ৷

স্থানীয় মানবাধিকার সংস্থাগুলো জনস্বার্থ বিষয়ক বিতর্কিত কয়েকটি মামলা দায়ের করার পরে, গত জুলাই মাসে বাংলাদেশের হাইকোর্ট, ফতোয়া বা ধর্মীয় গ্রাম্য সালিশের মাধ্যমে শাস্তি বিধান করা নিষিদ্ধ ঘোষণা করেছে৷ একজন মহিলার বিরুদ্ধে তাঁর সৎ ছেলের সঙ্গে ঘুমানোর অভিযোগে তাঁকে ৪০ বার দোররা মারার পরে মহিলার মৃত্যু হয়৷ গত ডিসেম্বরের ঐ ঘটনার কথা উল্লেখ করে মানবাধিকার সংস্থাগুলো বলেছে, হাইকোর্টের এই সিদ্ধান্ত খুব কমই কার্যকর হয়েছে বলে মনে করা হচ্ছে৷ ঐ মহিলাকেও গ্রাম্য সালিশের মাধ্যমেই শাস্তি দেওয়া হয়েছিল৷

এএফপি’র তথ্য অনুযায়ী, প্রায় ১৫ কোটি মানুষের দেশ বাংলাদেশের প্রায় শতকরা ৯০ ভাগ মানুষ মুসলমান এবং তাদের বেশিরভাগই গ্রামে বসবাস করেন৷

প্রতিবেদন: ফাহমিদা সুলতানা
সম্পাদনা: সুপ্রিয় বন্দ্যোপাধ্যায়