1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages

বিশ্ব

দেশে ফেরার অপেক্ষায় সীমান্তে ২২ হাজার বাংলাদেশি

লিবিয়ার পরিস্থিতির কারণে মিশর ও টিউনিশিয়া সীমান্ত এবং গ্রিসে ২২ হাজার বাংলাদেশি দেশে ফেরার অপেক্ষায় রয়েছেন বলে ডয়চে ভেলেকে জানিয়েছেন আন্তর্জাতিক অভিবাসন সংস্থা আইওএম-এর দক্ষিণ এশীয় আঞ্চলিক প্রতিনিধি রাবাব ফাতিমা৷

default

টিউনিশিয়া সীমান্তে লিবিয়া থেকে আসা হাজারো বাংলাদেশি

রাবাব ফাতিমা জানান, লিবিয়ার ভেতরে যেসব বাংলাদেশি রয়েছেন তাদের উদ্ধারে আইওএম-এর তেমন কিছু করার নেই৷ কারণ নিরাপত্তার প্রশ্নটি এখন বড় হয়ে দেখা দিয়েছে৷

রাবাব ফাতিমা জানান, এপর্যন্ত ৫ হাজার ২শ’ বাংলাদেশিকে লিবিয়ার সীমান্ত এলাকা থেকে বাংলাদেশে ফিরিয়ে আনা হয়ছে আইওএম-এর উদ্যোগে৷ এর বাইরেও ব্যক্তিগত এবং বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানের উদ্যোগে বেশ কিছু বাংলাদেশি নাগরিক ফেরত এসেছেন৷ আরো ২২ হাজার বাংলাদেশিকে পর্যায়ক্রমে ফিরিয়ে আনা হচ্ছে৷ আগামী ৫ দিনে আসবে ৫ হাজার৷ আর আজ ৮টি চার্টার্ড বিমানে একযোগে সবচেয়ে বেশি বাংলাদেশি ফেরত আসার কথা রয়েছে৷

কিন্তু লিবিয়ায় এখনো কম করে হলেও ৪০ হাজার বাংলাদেশি আটকা আছেন৷ রাবাব ফাতিমা জানান, লিবিয়ার ভেতরে যারা রয়েছেন তাদের উদ্ধার করার কোন পরিকল্পনা নেই আইওএম-এর৷ যারা প্রতিবেশী দেশের সীমান্তে আসবে, তাদেরই উদ্ধার করা সম্ভব৷ নিরাপত্তার কারণে লিবিয়ার ভেতরে খুব জরুরি কিছু সহায়তা ছাড়া অন্য কোনো সহায়তা দেয়া সম্ভব নয়৷

উপসাগরীয় যুদ্ধের সময় কুয়েত থেকে ফিরে আসা বাংলাদেশিরা ক্ষতিপূরণ পেয়েছে৷ এবার লিবিয়া থেকে ফিরে আসা বাংলাদেশিরা ক্ষতিপূরণ পাবে কিনা, প্রশ্নের জবাবে আইওএম প্রতিনিধি বলেন, সে সম্ভাবনা কম৷ কারণ উপসাগরীয় যুদ্ধ ছিল ইউএন ম্যান্ডেটে৷ আর লিবিয়ায় চলছে অভ্যন্তরীণ সংঘাত৷ তবে তাদের সহায়তায় সরকারী ও বেসরকারী উদ্যোগে ফান্ড গঠন করা যেতে পারে৷

রাবাব ফাতিমা বলেন, তাদের প্রতি সবারই উচিত সহানুভূতিশীল হওয়া৷ কারণ তারা সব কিছু হারিয়ে দেশে ফিরে আসছেন৷

প্রতিবেদন: হারুন উর রশীদ স্বপন, ঢাকা

সম্পাদনা: সঞ্জীব বর্মন

সংশ্লিষ্ট বিষয়