1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages

বিশ্ব

‘দেশের বড় দুটি দল রাজনৈতিক চাল চালছে’

বাংলাদেশে রাজনৈতিক পরিস্থিতি কোন দিকে যায় বুঝতে সময় লাগবে৷ এখনও বলা যাচ্ছে না শেষ পর্যন্ত একতরফা নির্বাচন হবে কিনা, অর্থাৎ বিএনপি নির্বাচনে যাবে কিনা৷ নির্বাচনকালীন সরকার হবে না, না দলীয় সরকারের অধীনেই হবে নির্বাচন৷

তত্ত্বাবধায়ক সরকারের আশা ছেড়ে দিয়ে সংবিধান বিশেষজ্ঞ ড. কামাল হোসেন এখন নির্বাচনের সময় সর্বদলীয় সরকারের কথা বলছেন৷ আর প্রবীণ আইনজীবী ব্যারিস্টার রফিকুল হক বলছেন, যৌথ সরকারের কথা৷ এই দুই আইনজ্ঞের মতামত কাছাকাছি৷ ওদিকে, রাজনৈতিক বিশ্লেষক অধ্যাপক ড. ইমতিয়াজ আহমেদ ডয়চে ভেলেকে বলেন, শেষ পর্যন্ত সংকট গিয়ে ঠেকবে নির্বাচনকালীন সরকারের প্রধান কে হবে, সেই বিষয়ে৷ যদি একজন নির্দলীয় নিরপেক্ষ ব্যক্তিকে নির্বাচনকালীন সরকারের প্রধান করা হয়, তাহলে আর সব বিষয়ে বিএনপি ছাড় দেবে বলেই মনে করেন ড. আহমেদ৷ তবে সরকার এই বিষয়টি মানবে কিনা তা বুঝতে আরো সময় লাগবে৷ কারণ সরকারের মেয়াদ আছে ২৪শে জানুয়ারি পর্যন্ত৷ তাই তাদের হাতে এখনও বেশ কিছুটা সময় আছে৷

ড. ইমতিয়াজ বলেন, সরকারি দল যে নির্বাচনের প্রার্থী বাছাই প্রক্রিয়া শুরু করে দিয়েছে তাতে ভাবার কোনো কারণ নেই যে, সরকার একতরফা নির্বাচনের চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত নিয়েছে৷ তাঁর মতে, আসলে বিরোধী দলের প্রতিক্রিয়া দেখতে চাইছে সরকারি দল৷ তারা দেখতে চাইছে সরকারের ওপর কতটা চাপ সৃষ্টি করতে পারে বিএনপি৷ এটা তাদের একটি রাজনৈতিক চাল৷

অন্যদিকে, রাজনীতির সাধারণ নিয়মে বিএনপির এখন চূড়ান্ত আন্দোলন শুরু করার কথা৷ কিন্তু তারা তা করছে না৷ তাই ড. ইমতিয়াজ বলেন, বর্তমান সরকারের মেয়াদ ২৪শে জানুয়ারি পর্যন্ত মাথায় রেখেইে কাজ করছে বিএনপি৷ তাই তারা আপাতত কঠোর কোনো আন্দোলনে যাচ্ছে না৷ তারা অক্টোবর মাস পর্যন্ত হয়ত অপেক্ষা করবে৷ তারা যদি তখন আন্দোলন জোরদার করতে পারে, তাহলে তা প্রভাবিত করবে সরকারি দলকে৷ দেশ যদি সংঘাত-সংঘর্ষের দিকে এগিয়ে যায় তাহলে তা দেশের ভিতরে এবং বাইরেও চাপ সৃষ্টি করবে, যা সরকারি দলকে নতুন সিদ্ধান্তের দিকে নিয়ে যাবে, মনে করেন তিনি৷

ড. ইমতিয়াজ জানান, চলতি মাসেই প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা জাতিসংঘে যাবেন বলে মনে হচ্ছে৷ সেখানে তিনি নিশ্চয়ই বাংলাদেশের নির্বাচন নিয়ে জাতিসংঘের অবস্থান বোঝার চেষ্টা করবেন৷ জাতিসংঘের মহাসচিব বান কি-মুন দুই নেত্রীর সঙ্গে টেলিফোন মারফত কথা বলে আদতে কী চেয়েছেন, তাও পড়ার চেষ্টা করবেন৷

অধ্যাপক ড. ইমতিয়াজ আহমেদের মতে, শেষ পর্যন্ত একটি সমঝোতার জায়গায় যাবে দুই দল৷ কিন্তু আগের চেহারার তত্ত্বাবধায়ক সরকার নয়, সেটা হবে সমঝোতার সরকার৷

নির্বাচিত প্রতিবেদন

সংশ্লিষ্ট বিষয়