1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages

বিশ্ব

দেশি গণমাধ্যমের আচরণে ‘দুঃখ’ পেয়েছেন ইউনূস

দেশে ফিরে সংবাদ সম্মেলন করলেন প্রফেসর ইউনূস৷ জানালেন, গণমাধ্যম ‘দুঃখ’ দিয়েছে তাঁকে, তবে এই নিয়ে লড়াইয়ে রাজি নন তিনি৷ এদিকে, চট্টগ্রামে পোশাক শ্রমিকদের সংঘর্ষে নিহত ৪৷ আর যোগাযোগ করা গেছে ‘জাহাজ মণি’র সঙ্গে৷

default

গ্রামীণ ব্যাংকের ব্যবস্থাপনা পরিচালক মুহাম্মদ ইউনূস (ফাইল ফটো)

সংবাদ সম্মেলন মুহাম্মদ ইউনূস

‘১২ বছর আগে বিষয়টি নিষ্পত্তি হয়েছে, সংবাদ সম্মেলনে বললেন মুহাম্মদ ইউনূস' - দৈনিক প্রথম আলো করেছে এই শিরোনাম৷ শান্তিতে নোবেল জয়ী ও গ্রামীণ ব্যাংকের ব্যবস্থাপনা পরিচালক মুহাম্মদ ইউনূস রবিবার বলেন, ‘‘কয়েক দিন ধরে দেশের সংবাদমাধ্যমের একটি উল্লেখযোগ্য অংশে যা প্রকাশিত হয়েছে, তাতে অত্যন্ত দুঃখ পেয়েছি৷''

এখানে বলে রাখা ভালো, দিনকয়েক আগে নরওয়ের রাষ্ট্রীয় টেলিভিশনে প্রচারিত এক প্রামাণ্যচিত্রে বলা হয়েছিল, এক প্রতিষ্ঠানের টাকা অন্য প্রতিষ্ঠানে স্থানান্তরের মাধ্যমে গ্রামীণ ব্যাংক অনুদানের শর্ত লঙ্ঘন করেছে৷ এই খবরটিকেই কিছু গণমাধ্যমে সম্পূর্ণ ভিন্নভাবে সাজিয়ে ইউনূসের অর্থ আত্মসাৎ, দুর্নীতি বলে তুলে ধরা হয়৷

‘মামলা না, ষড়যন্ত্র নেই'

বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকমের শিরোনাম, ‘মামলা করবো না, ষড়যন্ত্র নেই: বলেছেন ইউনূস'৷ প্রফেসর ইউনূস জানিয়েছেন, অর্থ স্থানান্তরের বিষয়টি নিষ্পত্তির দীর্ঘদিন পরও গণমাধ্যমে আসার পেছনে কোন ষড়যন্ত্র আছে বলে মনে করেন না তিনি৷ তাছাড়া এই নিয়ে লড়াই চালিয়ে যাওয়ার কোন ইচ্ছাও তাঁর নেই৷

চট্টগ্রামে নিহত ৪

চট্টগ্রাম ইপিজিডে সংঘর্ষে মৃত্যুর খবর জানাচ্ছে গণমাধ্যম৷ দৈনিক কালের কণ্ঠের দাবি, চট্টগ্রাম ইপিজেডে সংঘর্ষে প্রাণ হারিয়েছে চারজন৷ এদের মধ্যে তিনজন নিহত হন গুলিবিদ্ধ হয়ে৷ এছাড়া সংঘর্ষ চলাকালে এক পথচারী ‘হার্ট অ্যাটাকে' মৃত্যুবরণ করেন৷ রবিবার সকাল থেকে দুপুর পর্যন্ত এই সংঘর্ষে আহত হন শতাধিক ব্যক্তি৷ ন্যূনতম মজুরি কাঠামো বাস্তবায়ন নিয়ে বিক্ষোভের জের ধরে সংঘর্ষের সূত্রপাত হয়, জানাচ্ছে গণমাধ্যম৷ একই বিষয়ে দৈনিক ইত্তেফাকের শিরোনাম, ‘বিক্ষোভে উত্তাল গার্মেন্টস'৷ চট্টগ্রাম ছাড়াও ঢাকাতে পোশাক শ্রমিকরা একই দাবিতে বিক্ষোভ করে রবিবার৷

নাবিকরা সুস্থ আছেন

‘‘জাহাজ মণি'র সবাই সুস্থ' - জানিয়েছে দৈনিক প্রথম আলো৷ সোমালিয়ায় উপকূলে নোঙ্গর করা ছিনতাইকৃত জাহাজটির সঙ্গে অবশেষে যোগাযোগ সম্ভব হয়েছে৷ জাহাজটিতে বর্তমানে ২০-২৫ জন সোমালীয় জলদস্যু রয়েছে৷ তবে তারা বাংলাদেশি নাবিকদের সঙ্গে ‘ভালো আচরণ' করছে বলেই খবর৷

গ্রন্থনা: আরাফাতুল ইসলাম

সম্পাদনা: রিয়াজুল ইসলাম

নির্বাচিত প্রতিবেদন