1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages

খেলাধুলা

দেশপ্রেমের মর্ম বোঝালো ব্রাজিল, বুঝলেন ব্লাটার

জয় ব্রাজিল ফুটবল দলের, কিন্তু আসল জয় ব্রাজিলের মানুষের৷ প্রসঙ্গ কনফেডারেশন্স কাপ৷ ব্রাজিল-স্পেন ফাইনালের পর এমন ধারণার কথাই জানিয়েছেন ফিফার দুই কর্মকর্তা৷ এ আয়োজনে বিশ্বকাপ আয়োজনের সাফল্যের সম্ভাবনাও দেখেছেন তাঁরা৷

দৃষ্টিনন্দন, আক্রমণাত্মক ফুটবল খেলে ফাইনালে স্পেনকে ৩-০ গোলে হারিয়েছে ব্রাজিল৷ মারাকানার সেই ফাইনালের কথা এখনো সবার মুখে মুখে৷ তাই রিও ডি জেনিরোর সংবাদ সম্মেলনেও উঠেছিল সেই প্রসঙ্গ৷ ফাইনাল নিয়ে সাংবাদিকদের করা প্রশ্নের জবাবে ফিফা সভাপতি সেপ ব্লাটার তুমুল প্রশংসায় ভাসিয়েছেন মারাকানার দর্শকদের৷ বিশেষ করে ফাইনাল শুরুর আগে দর্শকরা যেভাবে সমস্বরে ব্রাজিলের জাতীয় সংগীত কণ্ঠে নিয়েছিলেন, তা অভিভূত করেছে তাঁকে৷ বাজানো জাতীয় সংগীত থেমে গেলেও দর্শকরা থামেননি৷ তাঁরা নীরব হতে দেরি করায় ম্যাচ শুরু হয় দু'মিনিট পরে৷ ফিফা সভাপতি তাতে মনক্ষুণ্ণ নন৷ শুরু থেকে শেষ পর্যন্ত দর্শকরা মারাকানায় যেভাবে বিস্ফোরক একটা আবহ তৈরি করে রেখেছিলেন, তাকে ‘অভূতপূর্ব' বলে, এই ফুটবলপ্রেমকে ২০১৪ বিশ্বকাপেরও প্রেরণা মনে করছেন ব্লাটার৷

FIFA-Präsident Joseph Blatter ARCHIVBILD 2011

কনফেডারেশন্স কাপেই বিশ্বকাপের সফল আয়োজনের ই্ঙ্গিত দেখছেন ব্লাটার

ব্রাজিলের মানুষ ব্লাটারের বিবেচনায় তাই ‘উগ্র নয়, চমৎকার ফুটবলভক্ত'৷ তাঁর কথার যথার্থতা ফুটে উঠেছে ফিফার সাধারণ সম্পাদক জেরম ভাল্কের পর্যবেক্ষণে৷ ব্রাজিল এবার কনফেডারেশন্স কাপ আয়োজন করেছে রাষ্ট্রীয় শাসনে চরম হতাশাগ্রস্তদের বিক্ষোভের ডামাডোলে৷ ভাল্কে সেটাকেই দেখছেন ইতিবাচক দৃষ্টিতে৷ স্টেডিয়ামের বাইরে চলেছে তুমুল বিক্ষোভ, বিক্ষোভকারীদের উদ্দেশ্যে কাঁদানে গ্যাস ছুড়েছে পুলিশ, কিন্তু খেলায় বিঘ্ন ঘটায়নি কিছুই৷ আগ্রহীরা খেলা দেখতে গিয়েছেন নির্বিঘ্নে৷ বিক্ষোভকারীরা বাঁধা দেননি৷ গ্যালারিতে উপস্থিত দর্শকরাও এমন কিছু করেননি যাতে বিক্ষোভকারীদের মনে আঘাত লাগতে পারে৷ এসবই উঠে এসেছে ভাল্কের কথায়৷ সব দেখে তাঁর একটাই উপলব্ধি – মাঠের আর মাঠের বাইরের সব মানুষের মধ্যে যেখানে এমন সৌহার্দ্য, সেখানে ২০১৪ বিশ্বকাপ আয়োজন সার্থক হওয়ারই কথা৷

কিন্তু স্বাস্থ্য আর যোগাযোগের মতো কিছু বিষয় নিয়ে যদি জনমনে ক্ষোভের আগুন থাকে, দেশের অধিকাংশ মানুষ যদি খেলা দেখতে না পারেন, তাহলে আয়োজন যত ভালোই হোক, সার্থকতা কোথায় থাকে! ফিফা সভাপতি এবং সাধারণ সম্পাদক বিক্ষোভের কারণ ‘রাজনৈতিক' বলেই হয়ত সেই প্রসঙ্গে তেমন কিছু বলেননি৷ বিশ্বকাপের ৩০ লক্ষ টিকিট এখন বিক্রির অপেক্ষায়৷ অথচ ব্রাজিল ২০ কোটি মানুষের দেশ৷ সুতরাং খুব কম মানুষই গ্যালারিতে বসে খেলা দেখতে পারবেন৷ যাঁরা পারবেন না তাঁদেরও বিশ্বকাপের আনন্দ দিতে দেশজুড়ে ফ্যান ক্লাব করা এবং বড় পর্দায় খেলা দেখানোর আশ্বাস দিয়েছেন ভাল্কে৷ ব্লাটার শুনিয়েছেন শেষ কথা, ‘‘হ্যাঁ, (আয়োজনে) কিছু সমস্যা এখনো আছে৷ কিন্তু সেগুলো সমাধান করা হবে এবং আশা করি ব্রাজিলে আগামী বছর দারুণ একটা বিশ্বকাপ হবে৷''

এসিবি/ডিজি (রয়টার্স)

নির্বাচিত প্রতিবেদন