1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages

বিশ্ব

দুর্নীতি ইস্যুতে জেরবার মনমোহন সিং সরকার

টেলিকম দুর্নীতির তদন্তে যৌথ সংসদীয় কমিটি গঠনের দাবিতে বিরোধী পক্ষ অবিচল৷ সরকারও তার অবস্থানে অনড়৷ সংসদের অচলাবস্থা অব্যাহত৷ অ-বিজেপি দশটি বিরোধী দল আজ এই নিয়ে রাষ্ট্রপতি সঙ্গে দেখা করে তাঁকে এক স্মারকপত্র দেন৷

default

বিরোধীদের প্রবল চাপের মুখে মনমোহন সিং

টু-জি স্পেকট্রাম কেলেঙ্কারির তদন্তে যৌথ সংসদীয় কমিটি গঠনের দাবি নিয়ে ভারতের সংসদে বর্তমানে যে অচলাবস্থা চলছে, তা কাটাতে সাংবিধানিক প্রধান হিসেবে রাষ্ট্রপতির হস্তক্ষেপ চেয়ে ১০টি অ-বিজেপি দল আজ তাঁর সঙ্গে দেখা করেএক স্মারকপত্র দেন৷ পরে সিপিআই-এম সাংসদ সীতারাম ইয়েচুরি সাংবাদিকদের বলেন, ‘‘জেপিসি গঠনের দাবি মেনে নিতে সংসদের প্রধান হিসেবে তিনি যেন সরকারকে বলেন৷ রাষ্ট্রপতি প্রতিনিধিদলের বক্তব্য শোনেন৷ আশা করি তিনি এ বিষয়ে ব্যবস্থা নেবেন৷'' সিপিআই-এম নেতা সীতারাম ইয়েচুরির বক্তব্য, ‘‘পুরো প্রশাসনিক ব্যবস্থার ওপর নজরদারি দরকার৷ দুর্নীতির দরুণ যেভাবে প্রশাসনের অপব্যবহার হচ্ছে, তা বন্ধ করতে দরকার হলে নতুন নিয়মবিধির সুপারিশ করতে পারে যৌথ সংসদীয় কমিটি৷ স্বাধীন ভারতে এতবড় আর্থিক কেলেঙ্কারি আর হয়নি৷ কম্পট্রোলার ও অডিটার জেনারেলের রিপোর্ট অনুসারে এর পরিমাণ প্রায় ১লক্ষ ৭৬ হাজার কোটি টাকা৷ এই অর্থে দেশের খাদ্য,শিক্ষা,বাসস্থানের মত মৌলিক সমস্যার উন্নতি করা যেত৷ বড় কথা, জেপিসি দোষীদের শুধু শাস্তি নয়, কীভাবে প্রশাসনিক সিস্টেমটাকে কাজে লাগানো হয়েছে,সেটাকে তুলে ধরার জন্য৷''

Wahlen Indien 2009 Sitaram Yechuri

সিপিআই-এম নেতা সীতারাম ইয়েচুরি

রাষ্ট্রপতি ভবনে যাবার আগে সংসদ ভবনে তারা প্রতিবাদ সমাবেশ করেন৷

অন্যদিকে, আজ সংসদের নিম্নকক্ষ লোকসভার স্পীকার মীরা কুমারের ডাকা সর্বদলীয় বৈঠকেও কোন ফল হয়নি৷ সরকার ও বিরোধীপক্ষ যে যার অবস্থানে অনড়৷

বিজেপি সংসদীয় নেতা এস.এস আলুওয়ালিয়া বলেন, সংসদীয় গণতন্ত্রের অধীনে আমরা জেপিসি চেয়েছি৷সেটা না মানা পর্যন্ত আমরা সরকারের সঙ্গে কোনরকম সহযোগিতা করব না৷

পাশাপাশি কমনওয়েলথ গেমসে দুর্নীতির অভিযোগে কেন্দ্রীয় তদন্ত ব্যুরো সিবিআই আজ কমনওয়েলথ গেমস আয়োজক কমিটির দুজন শীর্ষ আধিকারিকের বাসভবন ও অফিসে হানা দিয়ে অনেক নথিপত্র আটক করে৷ জোচ্চুরি ও ক্ষমতার অপব্যবহারের অভিযোগ তাঁদের বিরুদ্ধে৷ এর আগে আরও তিনজনকে পুলিশী হেফাজতে নেয়া হয়৷এরা সবাই কালমাডির ঘনিষ্ট৷

আমজনতার অভিযোগের আঙুল এখন সরকারের দিকেও৷ বলছে একের পর এক কেলেঙ্কারিতে জেরবার মনমোহন সিং সরকার৷ সেটাকে সামাল দিতে নানা ছল চাতুরির আশ্রয় নিচ্ছে সরকার৷ নাহলে এখনও তদন্তকারি এজেন্সি প্রধান অভিযুক্ত সাবেক টেলিকম মন্ত্রী এ.রাজা বা কমনওয়েলথ গেমসের প্রধান সুরেশ কালমাডিকে কেন জেরা করছেনা?কেন রাজি হচ্ছেনা জেপিসিতে ?


প্রতিবেদন: অনিল চট্টোপাধ্যায়, নতুনদিল্লি
সম্পাদনা: আব্দুল্লাহ আল-ফারূক

সংশ্লিষ্ট বিষয়