1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages

সমাজ সংস্কৃতি

দুর্ঘটনার কবলে জনপ্রিয় টিভি অনুষ্ঠান ‘ভেটেন, ডাজ...?’

জার্মান ভাষায় ‘ভেটেন, ডাজ...?’ অর্থ দাঁড়ায় ‘ধরবে কি বাজি, যে.....?’ বিশেষ পারদর্শিতা দেখানোর চ্যালেঞ্জ ছুঁড়ে দেওয়ার এই অনুষ্ঠানটি হঠাৎ করেই মাঝপথে থেমে গেল শনিবার৷ হোঁচট খেলেন টেলিভিশনের সামনে থাকা প্রায় এক কোটি দর্শক৷

Samuel Koch, Duesseldorf, ZDF, Wetten, dass..?, Auto, দুর্ঘটনা, জনপ্রিয় টিভি, জার্মান, অনুষ্ঠান, ‘ভেটেন, ডাজ...?’, TV Show

দুর্ঘটনায় বিব্রত সঞ্চালকসহ আয়োজকরা

জার্মানির সবচেয়ে জনপ্রিয় টিভি অনুষ্ঠান ‘ভেটেন, ডাজ...?' চলে আসছে টানা ২৯ বছর ধরে৷ কিন্তু এবারই প্রথম কোন বড় দুর্ঘটনার শিকার হলেন এক অংশগ্রহণকারী৷ ২৩ বছরের তরুণ স্যামুয়েল কখ ঝুঁকি নিয়েছিলেন একটি চলন্ত গাড়ির উপর দিয়ে দৈর্ঘ্য বরাবর লাফিয়ে পার হওয়ার৷ ইতিমধ্যে অসংখ্যবার এমন দুঃসাহসিক কাজের পারদর্শিতা দেখিয়েছেন কখ৷ স্প্রিং যুক্ত দণ্ডের উপর ভর করে চলন্ত গাড়ির সামনে থেকে দিলেন জোরে লাফ৷ গাড়ির ছাদে মাথা ছুঁয়েই লাফ দিলেন পেছন দিকে৷ কিন্তু মেঝেতে পড়ার পর আর চেতনা নেই কখের৷

অগণিত দর্শকের সাথে আয়োজনকারীরাও একেবারে থ৷ সাথে গাড়ি চালক কখের পিতাও৷ কখকে দ্রুত নিয়ে যাওয়া হলো হাসপাতালে৷ কিছুক্ষণ পর জ্ঞান ফিরলে কথাও বলেছেন তিনি৷ কিন্তু টিভি চ্যানেল সেডডেএফ রবিবার জানিয়েছে, মেরুদণ্ডে মারাত্মক আঘাত পেয়েছেন কখ৷ তাই দীর্ঘ আড়াই ঘণ্টা অস্ত্রোপচার চালানোর পর চিকিৎসকরা এখন তাঁকে কৃত্রিমভাবে ঘুম পাড়িয়ে রেখেছেন৷ ড্যুসেলডর্ফ বিশ্ববিদ্যালয় হাসপাতালের প্রধান চিকিৎসক ডা. ভোল্ফগাঙ রাব জানিয়েছেন, কখের আঘাত এতোটাই মারাত্মক যে পক্ষাঘাতের আশঙ্কা করা হচ্ছে৷

ঘটনার পরপরই গণমাধ্যমের কাঠগড়ায় হাজির হতে হয়েছে অনুষ্ঠানটির সঞ্চালক থমাস গটশাল্ককে৷ এসময় তিনি বলেন, ‘‘গত ২৯ বছরে আমরা অনেক ঝুঁকিপূর্ণ কাজের পারদর্শিতা দেখেছি৷ তরুণরা দেওয়াল বেয়ে উপরে উঠেছে৷ এক তরুণ তার স্কেটবোর্ড নিয়ে একটি বাড়ির উপর দিয়ে লাফিয়ে পার হয়েছে৷ তবে সর্বোচ্চ ক্ষতি হয়েছিল একবার একজনের পা ভেঙে গিয়েছিল৷'' তিনি আরো বলেন, ‘‘আমরা যদি তাঁর এই কাজে পারদর্শিতায় ঘাটতি লক্ষ্য করতাম তাহলে তাঁকে এটা থেকে বিরত রাখতাম৷ কিন্তু আমরা কখনই এমনটি লক্ষ্য করিনি৷''

যাহোক কখের আহত হওয়ার ঘটনায় মর্মাহত গোটা জার্মানি৷ তবে কখের শারীরিক অবস্থা যেমনটিই দাঁড়াক না কেন এই ঘটনার পর কঠোর সমালোচনার মুখে পড়েছে অনুষ্ঠানটি৷ এমনকি আর কখনও হয়তো এমন দুঃসাহসিক কাজের পারদর্শিতা দেখা যাবে না সেখানে এমন আশঙ্কাও করছেন অনেকে৷

প্রতিবেদন: হোসাইন আব্দুল হাই

সম্পাদনা: রিয়াজুল ইসলাম

ইন্টারনেট লিংক