1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages

খেলাধুলা

দুবাই টেস্ট: ড্রয়ের নায়ক ইউনিস খান

পাকিস্তান ও দক্ষিণ আফ্রিকার মধ্যকার প্রথম টেস্ট ড্র৷ দুবাই এ অনুষ্ঠিত হয় এই খেলা৷ তাই এই টেস্টের নাম দুবাই টেস্ট৷ অভিজ্ঞ ইউনিস খানের হার না মানা সেঞ্চুরির সুবাদে প্রথম ম্যাচ ড্র জানাচ্ছে ক্রিক ইনফো৷

default

ইউনিস খান

প্রথম টেস্টে জয়ের জন্য পাকিস্তান কে ৪৫১ রানের টার্গেট দেয় দক্ষিণ আফ্রিকা৷ পঞ্চম ও শেষ দিন ব্যাট করতে নেমে তিন উইকেট হারিয়ে পাকিস্তান ৩৪৩ রানে দিন শেষ করে৷ ইউনিস খান করেন অপরাজিত ১৩১ রান৷ ক্যারিয়ারের ২২তম সেঞ্চুরিকে তিনি ৯টি চার ও ৪টি ছয় দিয়ে সাজান৷

দ্বিতীয় ইনিংসে ৪৫১ রানের জয়ের লক্ষ্য তাড়া করতে গিয়ে পাকিস্তান শুরুতেই হোঁচট খায়৷ দলের ৪১ রানের মাথায় আউট হন ওপেনার মোহাম্মদ হাফিজ৷ পেসার ডেল স্টেইনের বলে জোহান বোথার হাতে ক্যাচ দিয়ে ব্যক্তিগত ৩৪ রানে সাজ ঘরে ফেরেন তিনি৷ অপর ওপেনার তৌফিক উমরও সুবিধা করতে পারেননি৷ ২২ রান করে বোথার বলে জ্যাক ক্যালিসকে ক্যাচ দিয়ে ফিরে যান তিনি৷ এরপর আজহার ও ইউনুস দেখেশুনে তৃতীয় উইকেটে ৮২ রানের জুটি গড়েন৷ দলীয় ১৫৭ রানের মাথায় পল হ্যারিসের বলে সরাসরি বোল্ড হওয়ার আগে আজহার করেন ৬৩ রান৷

চতুর্থ উইকেট জুটিতে ইউনুস খান ও অধিনায়ক মিসবাহ-উল-হকের দায়িত্বশীল ব্যাটিংয়ের পর আর কোনো উইকেট না হারিয়ে দিন শেষ করে পাকিস্তান৷ তারা করেন ১৮৫ রানের পার্টনারশিপ৷ মিসবাহ ৭৬ রানের অপরাজিত একটি ইনিংস খেলেন৷ এর মধ্যে ৮টি চার ও একটি ছয়ের মার ছিলো৷ ডেল স্টেইন, হ্যারিজ ও বোথা ১টি করে উইকেট নেন৷ প্রথম ইনিংসে পাকিস্তান করেছিলো ২৪৮ রান৷

এর আগে দ্বিতীয় ইনিংসে দক্ষিণ আফ্রিকা ২ উইকেটে ৩১৮ রান তুলে ইনিংস ঘোষণা করে৷ হাশিম আমলা এবং ক্যালিস দুজনেই শতক হাঁকান৷ আমলা ১১৮ এবং ক্যালিস ১৩৫ রানে অপরাজিত ছিলেন৷ তাদের ২৪২ রানের জুটি নতুন রেকর্ড গড়ে৷ এটি পাকিস্তানের বিপক্ষে টেস্টে দক্ষিণ আফ্রিকার যে কোনো উইকেটে দ্বিতীয় সর্বাধিক রানের রেকর্ড৷ দক্ষিণ আফ্রিকা প্রথম ইনিংসে করেছিল ৩৮০ রান৷

স্বাভাবিক ভাবেই ম্যাচ সেরা নির্বাচিত হন পাকিস্তানের ইউনিস খান৷

প্রতিবেদন: সাগর সরওয়ার

সম্পাদনা: আরাফাতুল ইসলাম