1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages

বিশ্ব

দু’দফায় শেষ হল বিশ্ব ইজতেমা

ঢাকার অদূরে টঙ্গীতে রোববার আখেরী মোনাজাতের মধ্য দিয়ে শেষ হয়েছে তাবলিগ জামাতের ধর্মীয় সমাবেশ বিশ্ব ইজতেমা৷ মুসলিম ও বিশ্ব মানবতার শান্তি কামনা করা হয়েছে মোনাজাতে৷

default

আখেরী মোনাজাত শেষে ঘরে ফেরা

এই প্রথমবারের মত এবারের বিশ্ব ইজতেমা অনুষ্ঠিত হল দু'দফায়৷ প্রথম দফা ২১ থেকে ২৩শে জানুয়ারি ৷ এরপর ৪ দিন বিরতি দিয়ে দিয়ে ২৮ থেকে ৩০শে জানুয়ারি৷ আজ আখেরী মেনাজাতের মধ্য দিয়ে শেষ হল দু'দফার বিশ্ব ইজতেমা৷ আখেরী মোনাজাত পরিচালনা করেন দিল্লীর মাওলানা জুবায়ের আহমেদ৷ মুনাজাতে বিশ্ব মুসলিমের শান্তি, সমৃদ্ধি এবং সৌহার্দ্য কামনা করে দোয়া করা হয়৷

মোনাজাতে অংশ নেন দেশী-বিদেশী লাখো মুসল্লি৷ এবার বাংলাদেশ ছাড়াও ৪০টি দেশের ধর্মপ্রাণ মুসল্লিরা অংশ নেন তাবলিগ জামাতের এই ইজতেমায়৷ তারা আল্লাহর কাছে প্রার্থনা করেন৷ প্রার্থনা করেন বিশ্ব শান্তি এবং নিজেদের কল্যাণ৷

নিরাপত্তা এবং সুষ্ঠু ব্যবস্থাপনার জন্যই এবার দু'পর্বে বিশ্ব ইজতমার আয়োজন করা হয়৷ আখেরী মোনাজাতের আগে বিমানবন্দর সড়ক থেকে টঙ্গী পর্যন্ত যানবাহন চলাচল বন্ধ করে দেয়া হয়৷ তবে ব্যবস্থাপনা নিয়ে শেষ পর্যন্ত তুষ্ট হতে পারেননি মুসল্লিরা৷ তারা পানির সংকটের কথা বলেন৷

ইজতেমায় মহিলারাও অংশ নিয়েছেন৷ অনেকে এসেছেন সপরিবারে৷ তারাও খুশি এত বড় ধর্মীয় সম্মেলনে যোগ দিতে পেরে৷

আজ সকাল থেকেই টঙ্গীর তুরাগ নদীর তীরে ইজতেমা ময়দান ছিল লাখো মানুষে পূর্ণ৷ তারা অপেক্ষায় ছিলেন আখেরী মোনাজাতের৷ কিন্তু মাইকের ব্যবস্থা না থাকায় যারা ময়দানের বাইরে ছিলেন তাদের মোনাজাত শুনতে অসুবিধা হয়৷

ধারণা করা হয় তাবলীগ জামাতের এই বাৎসরিক সমাবেশ বিশ্বের ২য় বৃহত্তম মুসলিম জমায়েত৷ ইসলামের দাওয়াত দেয়ার জন্য প্রতিবছর ঢাকার অদূরে টঙ্গীতে আয়োজন করা হয় এই বিশ্ব ইজতেমার৷

প্রতিবেদন: হারুন উর রশীদ স্বপন, ঢাকা

সম্পাদনা: সঞ্জীব বর্মন

সংশ্লিষ্ট বিষয়