1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages

পাঠক ভাবনা

‘দুদকের হঠাৎ তৎপরতা লোক দেখানো’

ডয়চে ভেলে বাংলার ফেসবুক পেজের ফ্যানদের একটা বড় অংশ মনে করেন, দুর্নীতি দমন কমিশন বা দুদকের হঠাৎ করে ব্যাপক তৎপর হয়ে ওঠার বিষয়টি লোক দেখানো৷

ঢাকা প্রতিনিধির পাঠানো প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, সম্প্রতি সরকারি দলের প্রভাবশালী নেতা থেকে শুরু করে সরকারি কর্মকর্তাদের দুদকে ডেকে পাঠানো হচ্ছে৷ এ ব্যাপারে দুদক কমিশনার শাহাবুদ্দিন চুপ্পু ডয়চে ভেলেকে বলেন, এই সরকার, এর আগের সরকার এবং তার আগেও যারা সরকার বা বিরোধী দলে ছিলেন – সকলেরই দুর্নীতি খতিয়ে দেখা হবে৷ তাঁর মতে, ‘‘শুধু যে এই সরকার দুর্নীতি করছে তা নয়৷ এর আগে যাঁরা ছিলেন তাঁরা এবং তার আগেও যাঁরা ক্ষমতায় ছিলেন তাঁরাও দুর্নীতি করেছেন৷ সেই দুর্নীতিগুলো এখনো মরে যায়নি৷ তাই আমরা সরকার ও বিরোধী দল সকলের দুর্নীতিই খতিয়ে দেখবো৷'' তিনি বলেন, দুদক যে কাজ শুরু করেছে শিগগিরই দেশবাসী তার রেজাল্ট দেখতে পাবে৷

প্রতিবেদনটি ডয়চে ভেলের ফেসবুক পাতায় শেয়ার করা হলে অনেক পাঠক তাঁদের মতামত জানান৷ সামিউল আজাদ সেতু লিখেছেন, ‘‘এটা একটা শোডাউন মাত্র৷ আসলে কিছুই হবে না৷'' হাসিবুল লিমন মনে করেন এটা শুধুমাত্র আইওয়াশ৷ আসাদুজ্জামান সরকারের ধারণা, কিছুদিন পর শর্ষের মধ্যে ভূত পাওয়া যাবে! এনায়েত উল্লাহ লিখেছেন, ‘‘এটা মানুষের চোখে ধুলো দেয়া ছাড়া আর কিছু নয়৷'' রফিকুল সাঈদ মনে করেন, ‘‘এটা লোক দেখানো৷ দুই দিন পর আর থাকবে না৷''

এদিকে, আনিসুজ্জামান ভুঁইয়া লিখেছেন, সবাইকে নাকি সার্টিফিকেট দেয়ার জন্য দুদকে ডেকে পাঠানো হচ্ছে৷

তবে মোস্তফা রহমানের প্রত্যাশা দুদকের কাজ যেন লোক দেখানো না হয়৷ আর মুন্সি মাসুদ পারভেজ জানিয়েছেন, তিনি দুদকের কাজের ফল দেখার অপেক্ষায় রয়েছেন৷

সংকলন: জাহিদুল হক

সম্পাদনা: দেবারতি গুহ

নির্বাচিত প্রতিবেদন