1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages

সমাজ সংস্কৃতি

দুই হাজার শিশুর বৃক্ষ আলিঙ্গন

বিশ্ব পরিবেশ দিবসে বৃক্ষকে বুকে জড়িয়ে পৃথিবীর কাছে গাছ বাঁচানোর, অরণ্য বাঁচানোর আর্জি জানিয়েছে দুই হাজারেরও বেশি নেপালি শিশু, যার মধ্য দিয়ে নতুন রেকর্ড গড়ার আশা করছেন আয়োজকরা৷

default

বৃক্ষকে বুকে জড়িয়ে পৃথিবীর কাছে গাছ বাঁচানোর, অরণ্য বাঁচানোর আর্জি জানিয়েছে দুই হাজারেরও বেশি নেপালি শিশু

কেবল স্কুল শিশুরা নয়, আইনপ্রণেতা, পেশাজীবী, এমনকি বুদ্ধ ভিক্ষুরাও গত বৃহস্পতিবার কাঠমাণ্ডুর বাইরে শান্তি উদ্যানে জড়ো হয়েছিলেন এই উদ্যোগে শামিল হতে৷

এ উদ্যোগের সমন্বয়ক থানেশ্বর গুরাগাই বলেন, ‘‘আমরা নতুন গিনেস রেকর্ড গড়তে চেয়েছি৷ পাশাপাশি সবাইকে এই বার্তা পৌঁছে দিতে চেয়েছি যে মানুষের বেঁচে থাকার স্বার্থেই গাছ বাঁচানো জরুরি৷''

‘গিনেস বুক অফ ওয়ার্ল্ড রেকর্ডস'-এ বৃক্ষ আলিঙ্গনের আগের রেকর্ডটি হয়েছিল গত বছর জুলাইয়ে৷

যুক্তরাষ্ট্রের অরিগনে ৯৩৬ জন অংশগ্রহণকারী একসঙ্গে বৃক্ষকে আলিঙ্গন করে ওই রেকর্ড গড়েন৷ আর নতুন রেকর্ড গড়ার চেষ্টায় নেপালের স্বেচ্ছাসেবীরা বৃহস্পতিবার পাহাড়ের ঢালে শান্তি উদ্যানের গাছে গাছে বুক মিলিয়ে দাঁড়িয়েছিলেন পুরো দুই মিনিট৷ নেপালের ২০ জন সংসদ সদস্যও শিশুদের সঙ্গে মিলে বৃক্ষ আলিঙ্গনে অংশ নেন৷

রাজন কে সি তাঁদেরই একজন৷ তিনি বলেন, ‘‘বিশ্বজুড়ে বৃক্ষ আর বন রক্ষার দাবি নিয়ে আমরা আজ এখানে এসেছি৷ মানব সভ্যতার জন্য গাছ কতোটা গুরুত্বপূর্ণ- সে বিষয়েও আমরা মানুষে সচেতন করতে চাই৷''

নবম শ্রেণির ছাত্রী গঙ্গা পণ্ডিত জানায়, সে এর আগে বিভিন্ন বৃক্ষরোপণ অভিযানে অংশ নিয়েছে৷ কিন্তু রেকর্ড গড়ার এই উদ্যোগে সে অংশ নিতে এসেছে, কেননা পুরনো গাছগুলো বাঁচিয়ে রাখাটাও জরুরি৷

উদ্যোক্তারা এখন বৃক্ষ আলিঙ্গনের ছবি, ভিডিও এবং নেপালি সাংসদদের সইসহ বিবৃতি পাঠাবে গিনেস বুক অফ ওয়ার্ল্ড রেকর্ডস কর্তৃপক্ষের কাছে৷ সব বিচার বিশ্লেষণ করে গিনেস কর্তৃপক্ষ জানাবে, নেপালীদের চেষ্টা সফল হয়েছে কিনা৷

জেকে/ডিজি (এপি, এএফপি)

নির্বাচিত প্রতিবেদন