1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages

বিশ্ব

দুই সপ্তাহের মধ্যে সন্ত্রাসী হামলা হতে পারে জার্মানিতে

আগামী দুই সপ্তাহের মধ্যে জার্মানির অভ্যন্তরে নাশকতা চালাতে পারে ইসলামি সন্ত্রাসবাদীরা৷ জার্মানি জুড়ে নিরাপত্তা বাড়ানো হয়েছে৷ স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর বৈঠকে স্থির হয়েছে বিভিন্ন গুরুত্বপূর্ণ বিষয়৷

জার্মানি, আল কায়েদা, হামলা, নাশকতা, মুম্বই, জঙ্গি, Al-Queda, Germany, Rail station, Airport, Mumbai, Merkel, Chancellor

জার্মান স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী টোমাস দেমেজিয়ার

কী ধরণের হামলা হতে পারে

বৃহস্পতিবার জার্মান ফেডারাল স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী টোমাস দেমেজিয়ার বার্লিনে জার্মানির বিভিন্ন প্রদেশের স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীদের নিয়ে এক রুদ্ধদ্বার বৈঠকে বসেছিলেন৷ বৈঠকের পর দেমেজিয়ার জানান, হামলার আশঙ্কা রয়েছে মুম্বইয়ের কায়দায়৷ অন্য দেশ থেকে আসবে এই জঙ্গিরা৷ তারা জার্মানিতে এসেই হামলা চালাবে৷ সম্ভাব্য ক্ষেত্রে তারা কোন ভবন বা কোন জনাকীর্ণ স্থানে হামলা চালাতে পারে৷ যারা হামলা চালাবে বলে খবর পাওয়া গেছে, তারা সকলেই আত্মঘাতী জঙ্গি, নিজেদের জীবনের কোন পরোয়া তারা করে না৷ জার্মান টিভি চ্যানেল সেটডেএফকে দেওয়া সাক্ষাৎকারে এই কথাই বলেছেন দেমেজিয়ার৷ এক কথায় জানিয়েছেন, এই হামলা ‘মুম্বই-স্টাইল' হওয়ারই আশঙ্কা করছে জার্মানি৷ তবে পাশাপাশি তিনি আশ্বস্ত করেছেন এই বলে যে, যে সমস্ত ব্যবস্থা ইতিমধ্যেই জার্মানির নিরাপত্তা বিভাগ নিয়েছে, তাতে জঙ্গি হামলা আগেভাগেই প্রতিহত করা হবে৷ আর যদি হামলা চালাতে সফলও হয় জঙ্গিরা, তারপরেও অত মানুষের প্রাণহানি কিছুতেই ঘটতে দেওয়া হবে না৷ প্রসঙ্গত, ২০০৮ সালে মুম্বইয়ের তাজ হোটেলে পাকিস্তান ভিত্তিক জঙ্গিদের হামলায় ১৬৬ জনের মৃত্যু হয়েছিল৷

নিরাপত্তা কোথায় কেমন

ইসলামপন্থি জঙ্গি সংগঠনগুলি সচরাচর যেহেতু সাধারণ মানুষকেই তাদের টার্গেট হিসেবে বেছে নেয়, অতএব রেলস্টেশন, চলন্ত ট্রেন কিংবা বিমানবন্দরের মত সহজ হামলার জায়গাগুলিতে বহুগুণ বাড়িয়ে দেওয়া হয়েছে নিরাপত্তা৷ সর্বত্রই পুলিশের উপস্থিতি চোখে পড়তে শুরু করেছে

Deutschland Berlin Polizei Brandenburger Tor Terrorgefahr erhöht

পুলিশি সতর্কতা চোখে পড়ছে জার্মানিতে

বৃহস্পতিবার থেকে৷ ট্রেনের প্রতিটি যাত্রীকে আলাদা করে তাঁদের মালপত্রের মালিকানা নিয়ে প্রশ্ন এবং প্রয়োজন পড়লে খানাতল্লাশি চালাচ্ছে পুলিশ৷ এদিকে, হামলার ধরণ সম্পর্কে মন্তব্য করতে গিয়ে বার্লিনে নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক জার্মান নিরাপত্তা দপ্তরের উচ্চপদস্থ এক সূত্র সংবাদসংস্থা রয়টার্সকে জানিয়েছেন, প্রথমত, আল কায়েদার শীর্ষ নেতাদের একজন ইউনিস আল মাউরিটানি এই সম্ভাব্য হামলার সঙ্গে প্রত্যক্ষভাবে যুক্ত থাকতে পারে৷ দ্বিতীয়ত স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর মতই ওই সূত্রেরও ধারণা, মুম্বই ধাঁচের হামলা হতে পারে এবং তৃতীয়ত, হামলাকারীরা ইতিমধ্যেই জার্মানিতে ঢুকে পড়েছে৷

জনমানসে কী এই পরিস্থিতির কোন প্রভাব পড়েছে

কিছুটা পড়েছে৷ সংবাদপত্র, টেলিভিশন, রেডিও সর্বত্রই এই বিষয়ে চর্চা চলছে৷ বাচ্চাদের কোন জনাকীর্ণ স্থানে না যাওয়ার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে বিভিন্ন স্কুলে৷ সন্দেহজনক কোনকিছু দেখলে তা সঙ্গে সঙ্গে পুলিশকে জানাতে নির্দেশ পেয়েছেন সাধারণ নাগরিকরা৷ স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী টোমাস দেমেজিয়ার সকলকে শান্ত কিন্তু সতর্ক থাকার নির্দেশও দিয়েছেন৷ ওদিকে, চ্যান্সেলর আঙ্গেলা ম্যার্কেলের দপ্তর সূত্রে তাঁর মুখপাত্র স্টিফেন জাইবার্ট সাংবাদিকদের জানিয়েছেন, এই পরিস্থিতিতে চ্যান্সেলর তাঁর কোন সফর বা কোন বৈঠক কিংবা সাধারণ্যে হাজির হওয়ার অনুষ্ঠান বাতিল করছেন না৷

প্রতিবেদন: সুপ্রিয় বন্দ্যোপাধ্যায়

সম্পাদনা: সাগর সরওয়ার

নির্বাচিত প্রতিবেদন