1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages

খেলাধুলা

দিল্লি কমনওয়েলথ গেমস ২০১০ শুরু মহা সমারোহে

সব সমালোচনা পেছনে ফেলে আজ জাঁকজমকের সঙ্গে শুরু হয়ে গেল ১১-দিন ব্যাপী ১৯-তম দিল্লি কমনওয়েলথ গেমস৷ উদ্বোধন করেন রাষ্ট্রপতি প্রতিভা পাতিল প্রিন্স চার্লসকে পাশে নিয়ে৷

default

ক্রীড়া স্টেডিয়ামগুলিসহ রাজধানী দিল্লিকে মুড়ে ফেলা হয়েছে নিরাপত্তার ঘেরাটোপে৷

নানা বিতর্ক ও সমালোচনার বেড়া ডিঙ্গিয়ে মোট ৭১টি দেশের খেলোয়াড় ও কর্মকর্তা মিলিয়ে মোট ৬৭০০ ক্রীড়াবিদ অবশেষে গেমসে যোগ দেন৷ তুমুল করতালি ও উল্লাসের সঙ্গে আলো ঝলমল মূল ক্রীড়াঙ্গন জওহরলাল নেহেরু স্টেডিয়ামে গেমসের আনুষ্ঠানিক উদ্বোধন করেন রাষ্ট্রপতি প্রতিভা দেবি সিং পাটিল, প্রিন্স চার্লসকে পাশে নিয়ে৷ রানি এলিজাবেথের প্রতিনিধি হিসেবে প্রিন্স চার্লস রানির বার্তা পড়ে শোনান৷ অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন আন্তর্জাতিক অলিম্পিক কমিটির প্রেসিডেন্ট, কমনওয়েলথ গেমস ফেডারেশনের প্রেসিডেন্ট ও অন্যান্য গণ্যমান্য অতিথিরা৷ এরপর প্রথাগত রীতি অনুযায়ী জাতীয় পতাকা হাতে প্রতিটি দেশের প্রতিনিধিত্বকারি দল মার্চপাস্ট করে যান স্টেডিয়ামে৷ ভারতের পতাকা বহন করেন অলিম্পিক সোনাজয়ী শ্যুটার অভিনব বিন্দ্রা৷ ভারতীয় দলে আছেন ৬১৯জন খেলোয়াড়৷

এরপর শুরু হয় ভারতীয় ঐতিহ্য ও সংস্কৃতির এক বর্ণাঢ্য অনুষ্ঠান৷ আলো, ধ্বনি, সঙ্গীত ও নৃত্যে তুলে ধরা হয়

Indien Commonwealth Games New Delhi Flash-Galerie

উদ্বোধনী অনুষ্ঠানের মনোরম দৃশ্য

ভারতীয় সংস্কৃতির এক বিশাল ক্যানভাস৷ থিম সং–এর উপস্থাপক ও সুরকার অস্কারজয়ী এ.আর রহমান৷ অনুষ্ঠানের নেপথ্যে ধ্বনিত হয় ধর্মীয় বিবিধতার প্রতীক হিসেবে বৈদিক স্তোত্র, আজান ও বৌদ্ধ মন্ত্রের আবহ সুর৷

স্টেডিয়ামের ভেতরে-বাইরে এবং শহরের চারদিকে গেমসের প্রতীক চিহ্ন শেরা৷ সব থেকে নজর কাড়ে স্টেডিয়াম জোড়া বিশাল হিলিয়াম বেলুন অ্যারোস্টাট৷ তাতে লাগানো ক্যামেরায় ফুটে ওঠে স্টেডিয়ামের ভেতরের ও বাইরের ছবি৷ গেমসের ১৭টি ইভেন্ট হবে রাজধানী এলাকার ১২টি স্টেডিয়ামে৷ উদ্বোধনের দিনে আজ দিল্লির সব দোকানপাট ও বাণিজ্যিক প্রতিষ্ঠানগুলি সরকারি আদেশে বন্ধ৷

সন্ত্রাস ও নাশকতার সম্ভাবনা দিকে তাকিয়ে দিল্লি মহানগরী আজ দূর্গ৷ গেমসের চৌহদ্দিতে বহুস্তরীয় নিরাপত্তা বলয়৷ মাছি গলারও সুযোগ নেই৷ ভিআইপিদেরও তল্লাশি করা হয়৷ দিল্লিতে মোতায়েন পুলিশ, আধা সামরিক বাহিনী , সাদা পোষাকের পুলিশ ও কমান্ডোসহ প্রায় দেড় লাখ নিরাপত্তা কর্মী৷ আকাশপথে নজরদারিতে রয়েছে হেলিকপ্টার, চালকবিহীন বিমান৷ রয়েছে ডগ ও বম্ব স্কোয়াড৷

প্রতিবেদক: অনিল চট্টোপাধ্যায়, নতুনদিল্লি

সম্পাদনা: সঞ্জীব বর্মন

সংশ্লিষ্ট বিষয়