1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages

বিজ্ঞান পরিবেশ

দমকল নয়, আগুন নেভাতে আসছে বোমা!

বাড়িঘরে আগুন লাগলে দমকল ডাকতে হয়৷ জঙ্গলে দাবানল দেখা দিলে বিমান থেকে আগুন নেভানোর চেষ্টা চলে৷ তাতে সে রকম কাজ হচ্ছে না বলে অস্ট্রেলিয়ার বিজ্ঞানীরা এবার বিস্ফোরক ব্যবহারের কথা ভাবছেন৷

default

অস্ট্রেলিয়ার ভয়াবহ বুশফায়ার

অস্ট্রেলিয়ায় ‘বুশফায়ার' বা দাবানল কতটা মারাত্মক আকার ধারণ করতে পারে, টেলিভিশনের পর্দায় প্রায়ই আমরা সেটা দেখতে পাই৷ এই রোষের মুখে মানুষকে বড় অসহায় লাগে৷ আশেপাশের এলাকা থেকে মানুষজনকে উদ্ধার করা অথবা দাবানলের পথে গাছ কেটে আগুন রোখার চেষ্টা করা ছাড়া অন্য কোনো উপায় থাকে না৷ বিমান থেকে বিশেষ তরল মিশ্রণ ঢেলে আগুন নেভানোর চেষ্টাও সব সময় সফল হয় না৷ তাহলে কি প্রকৃতির রোষের মুখে মানুষ নিষ্ক্রিয় হয়ে থাকবে?

Waldbrände in Australien

দাবানলের মুখে দমকলকর্মীরা অসহায় হয়ে পড়েন

অস্ট্রেলিয়ার গবেষকরা এক অভিনব উপায়ে বুশফায়ার মোকাবিলার উদ্যোগ নিচ্ছেন৷ মোমবাতির শিখা নেভাতে যেমন ফু দেওয়া হয়, সেই পদ্ধতিতেই বিস্ফোরক থেকে শব্দ তরঙ্গ সৃষ্টি করে আগুন নেভাতে চান তাঁরা৷ বিষয়টা একেবারে নতুন নয়৷ তেলের কূপে আগুন ধরলে বিস্ফোরক ব্যবহার করে তা নেভানোর চেষ্টা চলছে অনেক কাল ধরেই৷

সিডনি শহরে নিউ সাউথ ওয়েলস বিশ্ববিদ্যালয়ের গ্র্যাহ্যাম ডইগ বিষয়টি নিয়ে গবেষণা করছেন৷ একটি পরীক্ষায় তিনি চার মিটারের একটি ইস্পাতের নলের মধ্যে বিস্ফোরণ ঘটিয়ে শকওয়েভ সৃষ্টি করেছিলেন৷ নল থেকে যে বাতাস বেরিয়ে এসেছিল, তা প্রায় ১ মিটার উঁচু আগুনের শিখার উপর ধরা হয়৷ আগুনের শিখার উৎস ছিল একটি প্রপেন বার্নার৷ বিস্ফোরণের শকওয়েভ-এর ধাক্কায় শিখাটি তার উৎস থেকে ছিটকে যায়৷

দেখা গেল, জ্বালানি থেকে বিচ্ছিন্ন হলেই আগুন নিভে যায়৷ কিন্তু তার জন্য চাই বিশাল পরিমাণ ‘কমপ্রেসড এয়ার' বা ঘনীভূত বাতাস৷

সহজেই এমন ‘কমপ্রেসড এয়ার' তৈরি করতে নাইট্রোগ্লিসারিন-এর মতো বিস্ফোরক কাজে লাগানো যেতে পারে৷ ডইগ মনে করেন, ভবিষ্যতে হেলিকপ্টার থেকে এমন বিস্ফোরক আগুনের উপর ফেলে দেওয়া যাবে৷ তবে শুধু তাতেই কাজ হবে না৷ এক সার্বিক কৌশলের অংশ হিসেবে এই প্রক্রিয়া কাজে লাগাতে হবে৷ তাছাড়া ব্যাপক আকারে বুশফায়ার দ্রুত ছড়িয়ে পড়ার আশঙ্কা দেখা দিলে এই বিস্ফোরক আগুনের প্রসার সাময়িকভাবে বন্ধ করতে পারবে, যাতে উদ্ধারকার্য শেষ করা যায়৷

বাস্তবে এই প্রক্রিয়া কাজে লাগাতে গ্র্যাহ্যাম ডইগ দমকল কর্মীদের সঙ্গে কাজ করার কথা ভাবছেন৷ কোন কোন অবস্থায় এটা সবচেয়ে ভালো কাজে লাগতে পারে, তা জানতে চান তিনি৷ দমকল কর্মীরা যদি কোনো আগুন একেবারে নিয়ন্ত্রণে আনতে না পারেন, সে ক্ষেত্রে এখনই বিস্ফোরক কাজে লাগানোর ইচ্ছাও আছে তাঁর৷ অর্থাৎ সব ক্ষেত্রে আগন নেভাতে না পারলেও এই প্রযুক্তির প্রয়োগের বিষয়ে আরও জ্ঞান অর্জন করতে আগ্রহী বিজ্ঞানীরা৷

এসবি/ডিজি (এএফপি, এপি)

নির্বাচিত প্রতিবেদন