1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages

বিশ্ব

দণ্ড নিয়ে বিএনপি-র প্রথম প্রতিক্রিয়া

বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য ব্যারিস্টার মওদুদ আহমেদ রিভিউ নিষ্পত্তির আগে কাদের মোল্লার ফাঁসির দণ্ড কার্যকর না করার আহ্বান জানিয়েছেন৷ তবে অতিরিক্ত অ্যাটর্নি জেনারেল বলেছেন, মানবতাবিরোধী আন্তর্জাতিক আইনে এই সুযোগ নেই৷

যুদ্ধাপরাধের বিচার নিয়ে বিএনপি স্বচ্ছতা এবং আন্তর্জাতিক মানের কথা বলে আসলেও এর আগ পর্যন্ত বিচারের রায়ের ওপর কোন প্রতিক্রিয়া জানায়নি৷ তবে বুধবার বিএনপি নেতা ব্যারিস্টার মওদুদ আহমেদ কাদের মোল্লার মৃত্যুদণ্ড রিভিউয়ের আগে কার্যকর করা না করা নিয়ে মন্তব্য করেন৷ তিনি বলেন, সংবিধান অনুযায়ী সুপ্রিম কোর্টের আপিল বিভাগের রায় নিয়ে রিভিউ আবেদন করার অধিকার প্রত্যেক নাগরিকের আছে৷

তিনি জাতীয়তাবাদী আইনজীবী ফোরামের সংবাদ সম্মেলনে তাঁর লিখিত বক্তব্যে বলেন, এই রায় দুই কারণে নজীরবিহীন৷ কাদের মোল্লাকে ট্রাইব্যুনাল যাবজ্জীবন কারাদণ্ড দেয়ার পর আইন সংশোধন করে রাষ্ট্রপক্ষ আপিলের সুযোগ পায়৷ আর নিম্ন আদালতের যাবজ্জীবন কারাদণ্ডের পরিবর্তে উচ্চ আদালতের মত্যুদণ্ডাদেশ৷ তিনি আরো বলেন, এই বিচার প্রচলিত আইন ও আন্তর্জাতিক মানদণ্ড অনুযায়ী হয়েছে বলে তিনি মনে করেন না৷ তাই তিনি কাদের মোল্লাকে রিভিউয়ের সুযোগ দেয়ার কথা বলেন এবং রিভিউ নিষ্পত্তির আগে মৃত্যুদণ্ড কার্যকর করার বিরোধিতা করেন৷

তবে এর জবাবে অতিরিক্ত অ্যাটর্নি জেনারেল এমকে রহমান ডয়চে ভেলেকে বলেন, সংবিধানের ১০৫ অনুচ্ছেদ কাদের মোল্লার ক্ষেত্রে প্রযোজ্য নয়৷ কারণ তাঁর বিচার প্রচলিত আইনে হয়নি৷ ১৯৭৩ সালের মানবতা বিরোধী আন্তর্জাতিক আইনের অধীনে হয়েছে৷ তিনি মনে করেন, পূর্ণাঙ্গ রায় প্রকাশ পেলেই কাদের মোল্লার ফাঁসির দণ্ড কার্যকর করা যাবে৷ রায়ের কপি প্রথমে ট্রাইব্যুনালে যাবে৷ সেখান থেকে যাবে কারাগারে৷ এর পর কারা কর্তৃপক্ষ রায় কার্যকর করার উদ্যোগ নেবে৷

সংবিধান বিশেষজ্ঞ ড. শাহদীন মালিক বলেন, এই বিচারে কোনো আন্তর্জাতিক মানদণ্ড লঙ্ঘন হয়েছে বলে তিনি মনে করেন না৷ একাত্তরের মানবতা বিরোধী অপরাধের বিচার প্রচলিত আইনে সম্ভব ছিলনা৷ পৃথিবীর কোন দেশে মানবতা বিরোধী অপরাধের বিচার প্রচলিত আইনে হয়নি৷

নির্বাচিত প্রতিবেদন