1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages

বিশ্ব

দক্ষিণ সুদানে যু্দ্ধ থামানোর আহ্বান জানিয়েছে চীন

তিন সপ্তাহ ধরে রক্তক্ষয়ী যুদ্ধ চলছে দক্ষিণ সুদানে৷ যু্দ্ধাবসানের জন্য শান্তি আলোচনা শুরু হলেও তাতে এখনো কোনো অগ্রগতি হয়নি৷ এ অবস্থায় যুদ্ধ থামিয়ে শান্তি আলোচনা চালানোর আহ্বান জানিয়েছে চীন৷

দক্ষিণ সুদানের তেল শিল্পের সবচেয়ে বড় বিনিয়োগকারী চীন৷ তাই বিশ্বের নবীনতম দেশটির পরিস্থিতি নিয়ে বেইজিং ভীষণভাবে উদ্বিগ্ন৷ এ পর্যন্ত এক হাজারেরও বেশি মানুষ মারা গেছে সরকার এবং বিদ্রোহীদের মধ্যে চলমান এই যুদ্ধে৷ চীনের পররাষ্ট্রমন্ত্রী ওয়াং ই দক্ষিণ সুদানের পরিস্থিতি নিয়ে গভীর উদ্বেগ প্রকাশ করে বলেছেন, তাঁর দেশ চায় ইথিওপিয়ায় যে শান্তি আলোচনা শুরু হয়েছে তা চলতে থাকা অবস্থায় যুদ্ধ বন্ধ থাকুক৷

বৃহস্পতিবার ইথিওপিয়ার রাজধানী আদ্দিস আবাবায় শুরু হওয়া শান্তি আলোচনায় দক্ষিণ সুদান সরকার এবং বিদ্রোহীদের প্রতিনিধিরা অংশ নিচ্ছেন৷ ইথিওপিয়ার একটি প্রতিনিধি দল জানিয়েছে, চীনের পররাষ্ট্রমন্ত্রী দু'পক্ষের আলোচকদের সঙ্গেই দেখা করেছেন৷

Südsudan Sudan Omar al-Bashir bei Salva Kiir in Juba

দক্ষিণ সুদানের প্রেসিডেন্ট সালভা কীর (ডানে)-এর সঙ্গে সুদানের প্রেসিডেন্ট ওমর আল-বশির

দক্ষিণ সুদানের ভবিষ্যৎ নিয়ে সে দেশের আর্চ বিশপ ড্যানিয়েল ডেং বুল-ও উদ্বিগ্ন৷ ‘‘আমাদের মানুষগুলো কেন যুদ্ধ করে মরছে?'' – এই প্রশ্ন রেখে তিনি বলেছেন, এ যু্দ্ধ দক্ষিণ সুদানের ভবিষ্যতকে অন্ধকার করবে, সুতরাং অবিলম্বে যুদ্ধ থামানো উচিত৷

তিন সপ্তাহ আগে দক্ষিণ সুদানের রাজধানী যুবায় সামরিক বাহিনীর দুটি অংশের মধ্যে ভয়ংকর সংঘর্ষ শুরু হয়৷ সংঘর্ষে অন্তত ১০০০ মানুষ নিহত হয়েছে৷ প্রেসিডেন্ট সালভা কীর সংঘর্ষের জন্য সাবেক ভাইস প্রেসিডেন্ট রিক মাশার এবং তাঁর অনুগতদের দায়ী করেছেন৷ প্রেসিডেন্টের দাবি, রিক মাশার অভ্যুত্থানের মাধ্যমে ক্ষমতা দখল করতে চাইছেন৷

গত জুলাই মাসে ভাইস প্রেসিডেন্টের পদ থেকে মাশারকে অব্যাহতি দেয়া হয়৷ তারপর থেকে তিনি প্রেসিডেন্ট সালভা কীরের সবচেয়ে বড় প্রতিপক্ষ৷ তবে অভ্যুত্থান চেষ্টা এবং সংঘর্ষে তাঁর জড়িত থাকার কথা অস্বীকার করেছেন মাশার৷

এসিবি/ডিজি (এএফপি, রয়টার্স)

নির্বাচিত প্রতিবেদন