1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages

বিশ্ব

দক্ষিণ সুদানের পরিস্থিতি নিয়ে উদ্বিগ্ন জাতিসংঘ

দেশের অর্ধেক অংশে সংঘর্ষ ছড়িয়ে পড়েছে৷ প্রায় ৪৫ হাজার মানুষ জাতিসংঘের ঘাঁটিতে আশ্রয় নিয়েছে৷ দক্ষিণ সুদান সম্পর্কে এসব তথ্য জানিয়েছে জাতিসংঘ৷ নিরাপত্তা পরিষদের কাছে শান্তিরক্ষা সৈন্য বাড়ানোর অনুরোধ জানানো হয়েছে৷

জাতিসংঘের নিরাপত্তা পরিষদের কাছে দক্ষিণ সুদানে শান্তিরক্ষা সৈন্য বাড়ানোর অনুরোধ জানিয়ে চিঠি লিখেছেন বান কি মুন৷ চিঠিতে জাতিসংঘের মহাসচিব জানান, আফ্রিকার নবীনতম দেশটিতে গৃহযুদ্ধ শুরু হতে পারে৷ জানমালের ব্যাপক ক্ষয়ক্ষতি এড়াতে জরুরি ভিত্তিতে শান্তিরক্ষা বাহিনীর শক্তি বাড়ানো দরকার৷

এদিকে জাতিসংঘের মানবিক বিষয় সম্পর্কিত সমন্বয় সংস্থা (ওসিএইচএ) জানিয়েছে, দক্ষিণ সুদানে সামরিক বাহিনীর দুটি অংশের মধ্যে সংঘর্ষ শুরুর পর থেকে এ পর্যন্ত রাজধানী যুবা এবং বিদ্রোহী নিয়ন্ত্রিত শহর বোরসহ কয়েকটি এলাকা থেকে মোট ৪৫ হাজার নিরীহ মানুষ প্রাণ বাঁচাতে ঘরবাড়ি ছেড়েছে৷ জাতিসংঘের ঘাঁটিতে আশ্রয় নিয়েছে তাঁরা৷ আশ্রয়প্রার্থীর সংখ্যা দ্রুত অনেক বেড়ে যেতে পারে বলে আশঙ্কা করা হচ্ছে৷

Südsudan Süd Sudan Flüchtlinge Unruhen Juba

জাতিসংঘের মহাসচিব মনে করেন, আফ্রিকার নবীনতম দেশটিতে গৃহযুদ্ধ শুরু হতে পারে

দক্ষিণ সুদানের রাজধানী যুবায় সামরিক বাহিনীর দুটি অংশের মধ্যে কয়েকদিন আগে সংঘর্ষ শুরু হয়৷ সরকারি তথ্য অনুযায়ী সংঘর্ষে অন্তত ৫০০ মানুষ নিহত হয়েছে৷ তবে মানবাধিকার সংস্থাগুলো বলছে, নিহতের প্রকৃত সংখ্যা অনেক বেশি৷ প্রেসিডেন্ট সালভা কির মনে করেন, চলমান এ সংঘর্ষের জন্য সাবেক ভাইস প্রেসিডেন্ট রিক মাচার এবং তাঁর অনুগতরা দায়ী৷

জাতির উদ্দেশে দেয়া এক ভাষণে প্রেসিডেন্ট বলেছেন, রিক মাচার অভ্যুত্থানের মাধ্যমে ক্ষমতা দখল করতে চাইছেন৷

তবে অভ্যুত্থান চেষ্টা এবং সংঘর্ষে তাঁর জড়িত থাকার কথা অস্বীকার করেছেন মাচার৷ তাঁর মতে, সংঘর্ষ শুরু হয়েছিল সামরিক বাহিনীর দুটি গ্রুপের মধ্যে ভুল বোঝাবুঝির কারণে৷ গত জুলাইয়ে ভাইস প্রেসিডেন্টের পদ থেকে মাচারকে সরিয়ে দেয়া হয়৷ তারপর থেকে তিনি প্রেসিডেন্ট সালভা কিরের সবচেয়ে বড় প্রতিপক্ষ

এসিবি / জেডএইচ (এএফপি, ডিপিএ)

নির্বাচিত প্রতিবেদন