1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages

বিশ্ব

ত্রাণ সাহায্য বাড়ছে, পরিস্থিতি ভয়াবহ

পাকিস্তানের বন্যা পরিস্থিতি অপরিবর্তিত রয়েছে৷ লাখ লাখ মানুষ এখনো ত্রাণের অপেক্ষায় প্রহর গুনছে৷ উপদ্রুত এলাকায় বিভিন্ন রোগ বালাই ছড়িয়ে পড়ার খবর পাওয়া যাচ্ছে৷ তবে, আন্তর্জাতিক বিশ্ব পাকিস্তানকে সহায়তার পরিমাণ বাড়াচ্ছে৷

default

বন্যায় গৃহহীন এর সংখ্যা কমপক্ষে ৪৬ লাখ

পাকিস্তানের বন্যা নিয়ে সংবাদমাধ্যমগুলোতে খবর একটাই৷ আর তা হচ্ছে, কে কত সহায়তা দিচ্ছে৷ মার্কিন পররাষ্ট্র মন্ত্রী হিলারি ক্লিন্টন জানিয়েছেন, পাকিস্তানের বন্যা দুর্গতদের আরো ৬০ মিলিয়ন মার্কিন ডলার সহায়তা দেবে যুক্তরাষ্ট্র৷ সব মিলিয়ে সেদেশের সহায়তার পরিমাণ প্রায় ১৫০ মিলিয়ন মার্কিন ডলার৷ ক্লিন্টন জাতিসংঘের অন্যান্য সদস্য দেশকেও পাকিস্তানের সহায়তায় এগিয়ে আসার আহ্বান জানান৷

জার্মানিও পাকিস্তানের বন্যা দুর্গতদের জন্য সহায়তা বাড়ানোর ঘোষণা দিয়েছে৷ সবমিলিয়ে জার্মান সরকারের সহায়তার পরিমাণ ৫০ মিলিয়ন মার্কিন ডলার৷ এছাড়া ইউরোপীয় ইউনিয়নের সহায়তার পরিমাণ বেড়ে দাঁড়িয়েছে ১৪০ মিলিয়ন ইউরোতে৷

Flash-Galerie Pakistan Überschwemmung

অনেক বন্যা দুর্গত এখনো কোন সাহায্য পায়নি বলে অভিযোগ উঠেছে

বলে রাখা ভাল, জাতিসংঘ পাকিস্তানের বন্যা দুর্গতদের সহায়তায় ৪৫৯ মিলিয়ন মার্কিন ডলারের সাহায্যের আবেদন করেছিল৷ বিভিন্ন দেশ এবং সংস্থার কাছ থেকে এই অর্থ বেশ দ্রুতই পাওয়া যাবে বলে আশা করা হচ্ছে৷

জন কেরির পাকিস্তান সফর

মার্কিন সিনেটর জন কেরি বৃহস্পতিবার বন্যা কবলিত এলাকা পরিদর্শন করেন৷ এরপর পাকিস্তানের প্রেসিডেন্ট আসিফ আলি জারদারির সঙ্গে যৌথ সংবাদ সম্মেলনে আন্তর্জাতিক বিশ্বকে দুর্গতদের সহায়তায় এগিয়ে আসার আহ্বান জানান তিনি৷ জন কেরি বলেন, বন্যার সুযোগ কাজে লাগিয়ে জঙ্গিরা সামাজিক অশান্তি তৈরি করতে পারে৷ তাই, যত তাড়াতাড়ি সম্ভব ক্ষতিগ্রস্তদের সহায়তায় এগিয়ে আসতে হবে৷

গৃহহীন ৪৬ লাখ

পাকিস্তানের বন্যায় গৃহহীন এর সংখ্যা কমপক্ষে ৪৬ লাখ৷ তিন সপ্তাহের বন্যায় সেদেশের এক পঞ্চমাংশ এলাকা বর্তমানে পানির নিচে রয়েছে৷ অনেক বন্যা দুর্গত এখনো কোন সাহায্য পায়নি বলে অভিযোগ উঠেছে৷ এছাড়া পানিবাহিত বিভিন্ন রোগও দেখা দিয়েছে দুর্গত এলাকাগুলোতে৷ এর সঙ্গে যোগ হয়েছে মশার আক্রমণ৷ সবমিলিয়ে পরিস্থিতি বেশ ভয়াবহ৷

প্রতিবেদন: আরাফাতুল ইসলাম

সম্পাদনা: হোসাইন আব্দুল হাই

নির্বাচিত প্রতিবেদন

ইন্টারনেট লিংক