1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages

বিজ্ঞান পরিবেশ

ত্বক ফর্সার লোশন নিয়ে ফেসবুকে বিতর্ক

ত্বকের রং আর সৌন্দর্যের সংজ্ঞা নিয়ে এবার বিতর্কে জড়ালো ফেসবুক৷ ভারতীয় পুরুষদের জন্য ভ্যাসলিন তৈরি করেছে এক ফেসবুক এপ্লিকেশন৷ তাই নিয়ে নিন্দার ঝড় উঠেছে ফেসবুকেই৷

default

শাহরুখ খানের হাত ধরে বাজারে আসে পুরুষদের ত্বক ফর্সার ক্রিম৷ (ফাইল ফটো)

ভেসলিনের এপ্লিকেশনটির কাজ হচ্ছে পুরুষের ছবি ডাউনলোড করা৷ আর সেটির মাঝখান দিয়ে একটি লাইন টেনে দেখানো, কতটা ফর্সা হতে পারে সেই পুরুষটি৷ অবশ্যই এই ফর্সাটা করা হয় ডিজিটাল উপায়ে৷ আর বিজ্ঞাপনটা হচ্ছে ভেসলিন হোয়াইটেনিং বডি লোশনের৷

ইতিমধ্যেই এই ফর্সা করার চর্চা নিয়ে শুরু হয়েছে ফেসবুক বিতর্ক৷ ভেসলিনের এপ্লিকেশনটির পাতায় জমা হচ্ছে একের পর এক মন্তব্য৷ একজন লিখেছেন, আমি যদি এটাকে একের নিচে রেট দিতে পারতাম তাহলে খুব আনন্দ হতো৷ ভারত বলেই এধরণের এপ্লিকেশন তৈরি সম্ভব হয়েছে৷

অবশ্য ইতিমধ্যেই ভেসলিন এই এপ্লিকেশন সম্পর্কে তাদের অবস্থান ব্যাখ্যা করেছে৷ সংস্থাটি এক বিবৃতিতে জানায়, ‘ভারতীয় পুরুষরা এটি ব্যবহার করে ত্বক উজ্জ্বল করে৷'

ফেসবুক এপ্লিকেশন সম্পর্কে ভেসলিনের মন্তব্য হচ্ছে, ‘এটি ভারতের সংস্কৃতির সঙ্গে সামঞ্জস্য রেখেই তৈরি করা হয়েছে৷ এর উদ্দেশ্য হচ্ছে পুরুষদেরকে লোশনটির প্রতি আকৃষ্ট করা৷'

ভারতে অবশ্য রঙ ফর্সা করার ক্রিম বা লোশনের বিক্রি নতুন নয়৷ ৩০ বছর আগেই সেখানে চালু হয় মেয়েদের রঙ ফর্সা করার ক্রিম৷ এরপর বছর পাঁচেক আগে বলিউড তারকা শাহরুখ খানের হাত ধরে বাজারে আসে পুরুষদের জন্য এধরণের ক্রিম৷ এভাবে গত পাঁচ বছরে ভারতের বাজারে এসেছে ২৪০টি রঙ উজ্জ্বল করার ক্রিম৷

তবে, অভিভাবকদের অনেকে মনে করছেন, এসব ক্রিম আসলে সন্তানদের মনে বিরূপ প্রভাব ফেলছে৷ এদেরই একজন ব্যাঙ্গালুরুর কুন্নাথ সন্তোষ৷ তিনি জানান, আমার ছেলে টিভিতে এক বিজ্ঞাপনে দেখে যে শাহরুখ খান রঙ ফর্সা করার ক্রিম ব্যবহার করছে৷ এরপর আমার ছেলেও নিজেকে ফর্সা করতে এই ক্রিম কিনে দিতে বলে৷ সন্তোষ বলেন, আমার ছেলে মনে করছিল তার রঙ ফর্সা নয়, তাই সে নোংরা৷ সন্তোষ এধরণের ফর্সা করার ক্রিমের প্রতিবাদে ফেসবুকে একটি গ্রুপ খুলেছেন৷

তবে, অনেক ভারতীয় পুরুষ কিন্তু রঙ ফর্সা করার ক্রিম ব্যবহারের পক্ষে৷ যেমন, ২০ বছর বয়সী মনিত মালহোত্রা৷ তিনি ভ্যাসলিনের রঙ ফর্সা করার লোশন ব্যবহার করেন৷ একইসঙ্গে ফেসবুকে ভ্যাসলিনের এপ্লিকেশনটিও ব্যবহার করে দেখেছেন৷ তার মতে, এটি একটি ত্বকের যত্নে নেবার ক্রিম৷ এর বাইরে আর কিছু নয়৷

বলে রাখা ভাল, যেখানে এত আলোচনা মানে সেই ফেসবুক কিন্তু এই ব্যাপারে নীরব৷ কেননা, ভ্যাসলিনের এপ্লিকেশনটি তাদের তৈরি নয়৷

প্রতিবেদন: আরাফাতুল ইসলাম

সম্পাদনা: রিয়াজুল ইসলাম

সংশ্লিষ্ট বিষয়