1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages

বিশ্ব

তেল বিপর্যয়: ক্যাথেটার দিয়ে লীক থেকে তেল শোষার প্রচেষ্টা

মেক্সিকো উপসাগরে বিপি’র তেলের রিগে দুর্ঘটনার পর তিন সপ্তাহের বেশি কেটে গেছে৷ এখনও দেড় কিলোমিটার সমুদ্রগর্ভে লীক আটকানোর চেষ্টা চলছে৷ প্রেসিডেন্ট ওবামা ধৈর্য্য হারাচ্ছেন৷

default

মেক্সিকো উপসাগরে তেলের আস্তর

ইঞ্জিনীয়ারদের চেষ্টার তো কোনো কমতি নেই৷ প্রথমে চৌকোণা ফানেল নামিয়ে লীক ঢাকা দেবার প্রচেষ্টা ব্যর্থ হয় সমুদ্রগর্ভে ফানেলের ভেতরের দেয়ালে তেলে-জলে দানা বাঁধার ফলে৷ দ্বিতীয় ধারণাটা ছিল, আরো অনেক ছোট, টপ হ্যাট আকৃতির একটি নলযুক্ত ফানেল নামিয়ে তেল তোলা যায় কিনা৷ ব্রিটিশ পেট্রোলিয়াম সংস্থার বিশেষজ্ঞদের সর্বাধুনিক পরিকল্পনা হল, সাগরের তলায় যে ২১ ইঞ্চি পাইপটি ফেটে তেল

New York Time Square Bombe

তেল কোম্পানিগুলোর সমালোচনা করেছেন ওবামা

বেরোচ্ছে, সেই ফুটোয় একটি রবারে ঢাকা পাতলা টিউব ঢুকিয়ে তেল সরাসরি জাহাজে তুলে আনা হবে৷ এ'সব কাজই হচ্ছে রোবোট দিয়ে৷ কিন্তু বিপুল গভীরতার কারণে দৃশ্যত সময় বেশি লাগছে৷

এই মওকায় বলে নেওয়া যাক যে, নয়া নয়া উদ্ভাবনশীল পরিকল্পনার কোনো অভাব নেই৷ জলের তলায় তথাকথিত ‘ব্লোআউট প্রিভেন্টার'-টিতে প্লাস্টিকের কিউব, দড়িদড়া, এমনকি গলফ খেলার বল ঢুকিয়ে সেটিকে জ্যাম করারও নাকি প্রস্তাব এসেছে, বলে জানিয়েছে নিউ ইয়র্ক টাইমস পত্রিকা৷ কিন্তু বাস্তবে যেটা ঘটছে, সেটা হল: দুর্ঘটনার স্থল থেকে দিনে ৫,০০০ ব্যারেল না হয়ে, ৭০,০০০ ব্যারেল অবধি তেল বেরোচ্ছে, বলে আশঙ্কা করছেন নিরপেক্ষ বিশেষজ্ঞরা৷ এমনকি মেক্সিকো উপসাগরের ‘ডীপওয়াটার হোরাইজন' দুর্ঘটনা ইতিমধ্যেই ১৯৮৯ সালের ‘এক্সন ভালডেজ' তেল দুর্ঘটনাকে ছাড়িয়ে গিয়ে থাকতে পারে, বলে তাঁদের ধারণা৷

শুক্রবার হোয়াইট হাউসের রোজ গার্ডেনে প্রেসিডেন্ট বারাক ওবামাকে দেখা গেল অগ্নিমূর্তি৷ তিনি বলেন, তেল কোম্পানিগুলির সঙ্গে ফেডারাল সরকারের উপরও এই দুর্ঘটনার দায় বর্তাবে৷ তাঁর মতে গোটা ‘‘প্রণালীটি'' গুরুতরভাবে ব্যর্থ হয়েছে৷ কাজেই তিনি ড্রিলিং পার্মিটগুলি নতুন করে পরীক্ষা করে দেখার নির্দেশ দিয়েছেন৷ তেলের রিগটির সঙ্গে যুক্ত বিভিন্ন কোম্পানির কর্মকর্তারা যেভাবে পরষ্পরের উপর দোষারোপ করেছেন, ওবামা তাকে একটি ‘‘হাস্যকর দৃশ্য'' বলে অভিহিত করেন৷ কোম্পানিগুলির সঙ্গে ফেডারাল সরকারের দহরম-মহরমও তাঁর পছন্দ নয়৷

প্রতিবেদন: অরুণ শঙ্কর চৌধুরী

সম্পাদনা: জাহিদুল হক

সংশ্লিষ্ট বিষয়