1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages

বিশ্ব

তিন বছরেও মামলা জট কমেনি, কমেনি হয়রানি

বিগত ২০০৭ সালের ১লা নভেম্বর যখন বিচার বিভাগ স্বাধীন হয় তখন এর প্রধান উদ্দেশ্য ছিল বিচার প্রার্থীদের হয়রানি কমানো৷ কিন্তু বাস্তবে সেই পরিস্থিতির কোন উন্নতি হয়নি৷ মামলা জট রয়েই গেছে৷ কমেনি বিচার প্রার্থীদের হয়রানি৷

Oberstes Gericht in Dhaka, Bangladesch

বিচার বিভাগকে নির্বাহী বিভাগ থেকে আলাদা করা হয়েছে তিন বছর হল৷ ২০০৭ সালের ১লা নভেম্বর বিচারাধীন মামলার সংখ্যা ছিল পাঁচ লাখ ৬৩ হাজার৷ চলতি বছরের জুলাই পর্যন্ত এই সংখ্যা দাঁড়ায় সাত লাখ ২৯ হাজারে৷ বিচার বিভাগ আলাদা হওযার পর অতিরিক্ত আরো দেড় লাখ মামলার জট বেড়েছে৷

২০০৭ সালে মামলা নিষ্পত্তি হয় ৮৩ হাজার, ২০০৮ সালে এক লাখ ৪২ হাজার, ২০০৯ সালে চার লাখ ১৪ হাজার এবং চলতি বছরের জানুয়ারি থেকে জুলাই পর্যন্ত মামলা নিস্পত্তির সংখ্যা দুই লাখ আট হাজার৷

মামলা জট এবং মামলা নিষ্পত্তি কম হওয়ার কারণ হিসেবে বিচারক স্বল্পতা ও এখনো প্রশাসনের কাছে জিম্মি হওয়াকে দায়ী করেন আইনজীবীরা৷ তারা বলেন সাক্ষী তলব, ওয়ারেন্ট পাঠানো এসবের জন্য নির্ভর করতে হয় প্রশাসনের ওপর৷

মাসদার হোসেন মামলার রায়ের আলোকেই বিচার বিভাগ স্বাধীন হয়েছিল৷ সেই মামলার অন্যতম আইনজীবী ব্যারিস্টার আমীর উল ইসলাম মনে করেন, এখনো মাসদার হোসেন মামলার রায় পুরোপুরি বাস্তবায়ন হয়নি৷ বরং এর এর উল্টোটা ঘটেছে৷ এখনে অনেক বিচারককে বিচার কাজের বাইরে প্রেষণে অন্য কাজে নিয়োজিত রাখা হয়েছে৷

তারা মনে করেন মাসদার হোসেন মামলার রায় পুরোপুরি বাস্তবায়ন করতে বিচার বিভাগের জন্য পৃথক সচিবালয় এবং আলাদা বেতন কাঠামো প্রয়োজন৷ আর প্রয়োজন মানসিকতার পরিবর্তন৷

প্রতিবেদন: হারুন উর রশীদ স্বপন, ঢাকা

সম্পাদনা: রিয়াজুল ইসলাম