1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages

খেলাধুলা

তাহিতি যাচ্ছে কনফেড কাপে!

ওসিয়ানিয়া-র ছোট্ট দ্বীপরাজ্য তাহিতি যাচ্ছে বিশ্বের সেরা ফুটবল দেশগুলির সঙ্গে খেলতে, ব্রাজিলে৷ বলে নাকি কনফেডারেশনস কাপ হলো বিশ্বকাপের স্টেজ রিহার্সাল৷ ওদিকে তাহিতি দলের ২৩ জন প্লেয়ারের মধ্যে ২২ জনই অ্যামেচার৷

কনফেড কাপে তাহিতি পড়েছে গ্রুপ বি-তে৷ গ্রুপের অন্য তিনটি দল হলো আফ্রিকা চ্যাম্পিয়ন নাইজিরিয়া, দক্ষিণ অ্যামেরিকা চ্যাম্পিয়ন উরুগুয়ে ও ইউরোপীয় চ্যাম্পিয়ন স্পেন৷ গতবছর ওসিয়ানিয়া কাপ অফ নেশনস-এ জিতে কনফেড কাপে যাবার টিকিট সংগ্রহ করে তাহিতি৷ কনফেড কাপ বা কনফেডারেশনস কাপ হয় বিশ্বকাপের মতোই প্রতি চার বছর অন্তর৷ অংশ নেয় বিশ্বের ছ'টি মহাদেশের ছয় চ্যাম্পিয়ন দেশ, সেই সঙ্গে আমন্ত্রণকারী দেশ এবং সর্বাধুনিক বিশ্বকাপ বিজয়ী দেশ৷ যেমন এ বছর গ্রুপ বি-র দেশগুলি ছাড়াও খেলছে আমন্ত্রণকারী দেশ ব্রাজিল, কনকাসাফ গোল্ড কাপ বিজয়ী মেক্সিকো, এশীয় চ্যাম্পিয়ন জাপান এবং ইটালি – কেননা তারা গতবছরের ইউরো চ্যাম্পিয়নশিপে স্পেনের কাছে হারে৷

পেশাদার ১, অপেশাদার ২২

ওদিকে তাহিতির দলে পেশাদারি খেলোয়াড় বলতে একজনই আছেন: ৩৩ বছর বয়সি ফরোয়ার্ড মারামা ভাহিরুয়া, যিনি খেলেন গ্রিসের পানথ্রাইকিকোস ক্লাবের হয়ে৷ তবে ভাহিরুয়া তাঁর পেশাদারি জীবনের অধিকাংশ কাটিয়েছেন ফ্রান্সে, নঁৎ, নিস, লোরিয়ঁ, নঁসি এবং মোনাকোর হয়ে খেলে৷ ভাহিরুয়ার খেলোয়াড়ি জীবনের সবচেয়ে গৌরবপূর্ণ মুহূর্ত ঘটে ২০০১ সালের মে মাসে সঁৎ'এতিয়েন-এর বিরুদ্ধে নঁৎ-এর হয়ে জয়ের গোলটি করার সময়৷ তারপর ভাহিরুয়া পলিনেশিয়ার বাইচ নৌকোর দাঁড় টানার ভঙ্গি করে তাঁর আনন্দ প্রকাশ করেন৷

Aerial view of the Christ the Redeemer statue atop Corcovado Hill and the Mario Filho (Maracana) stadium in Rio de Janeiro, Brazil on May 10, 2013. The Maracana stadium will host the upcomig Confederations Cup next June, the Brazil 2014 FIFA World Cup and the 2016 Summer Olympics. AFP PHOTO /VANDERLEI ALMEIDA (Photo credit should read VANDERLEI ALMEIDA/AFP/Getty Images)

ওসিয়ানিয়া-র ছোট্ট দ্বীপরাজ্য তাহিতি যাচ্ছে বিশ্বের সেরা ফুটবল দেশগুলির সঙ্গে খেলতে, ব্রাজিলে

কিন্তু তাহিতি দলে ভাহিরুয়ার অন্যান্য সতীর্থরা পাদপ্রদীপের আলো তো দূরের কথা, মঞ্চ দেখেছেন কিনা সন্দেহ৷ ওদিকে বিশ্বব্যাপী অর্থনৈতিক সংকটের ধাক্কা পলিনেশিয়াকে যতটা সামলাতে হয়েছে, অন্যত্র কোথাও ততটা হয়েছে কিনা সন্দেহ৷ তাহিতির এক-তৃতীয়াংশ মানুষ আজ কর্মহীন৷ তারই মধ্যে ফরোয়ার্ড স্যামুয়েল হনানাইন মালপত্র ডেলিভারি করে দিন গুজরান করেন: অনেক সময় তাঁকে ৫০ কিলো ময়দার বস্তা বইতে হয়৷ ডিফেন্ডার তেহেইভারাই লুডিভিওন পাহাড়ে চড়ার গাইড৷ গোলকিপার গিলবার্ট মেরিয়েল হলেন চার্টার্ড অ্যাকাউন্ট্যান্ট৷ এঁরাই এবার মোহড়া নেবেন নেইমার, আন্দ্রেস ইনিয়েস্তা এবং আন্দ্রেয়া পির্লোর মতো সুপারস্টারদের৷

খেলাম ২১, দিলাম ০

তাহিতির অপেশাদার ফুটবল বাহিনী মাত্র দু'মাস ছুটি পেয়েছে কনফেড কাপের প্রস্তুতির জন্য৷ এই ছুটিতে তাদের মাইনে দিচ্ছে তাহিতির ফুটবল অ্যাসোসিয়েশন৷ অন্যদিকে তাহিতির কোচ এডি এটায়েটা বড় গলা করে বলেছেন: ‘‘ফুটবলের ইতিহাসে আমরাই হলাম প্রথম অ্যামেচার, যারা একটা বড় আন্তর্জাতিক প্রতিযোগিতায় অংশগ্রহণ করছে৷''

অবশ্য ফুটবলে তাহিতির প্রথম আন্তর্জাতিক অভিজ্ঞতা হিসেবে কনফেড কাপই প্রথম নয়৷ তাহিতির আন্ডার-টোয়েন্টি দল ২০০৯ সালে মিশরে অনুষ্ঠিত আন্ডার-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের জন্য কোয়ালিফাই করেছিল৷ কিন্তু গ্রুপের তলানি হিসেবে ২১টি গোল খেয়ে এবং কোনো গোল না করে প্রথম পর্যায়েই বিদায় নেয়৷ প্রসঙ্গত, সেই গ্রুপেও ছিল নাইজিরিয়া এবং স্পেন৷

এসি/ডিজি (এএফপি)

নির্বাচিত প্রতিবেদন