1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages

বিশ্ব

তারেকের ইচ্ছা, তাই টানা অবরোধ চলবে

লাগাতার অবরোধ কর্মসূচি প্রত্যাহার না করে বিএনপি এর সঙ্গে আরও নতুন কর্মসূচি যোগ করার পরিকল্পনা করছে বলে জানা গেছে৷ অবশ্য দলটির কোনো নীতিনির্ধারক এ বিষয়ে এখনো কিছু বলেননি৷

বিএনপি নেতাদের মধ্যে যাঁরা কারাগারের বাইরে আছেন তাঁদের অধিকাংশের মোবাইল ফোনও বন্ধ৷ দুই-একজন নেতাকে পাওয়া গেলেও তাঁরা কর্মসূচি নিয়ে কিছু বলতে রাজি হচ্ছেন না৷ শুধু বলছেন টানা অবরোধ কর্মসূচি চলবে৷ নতুন কোনো কর্মসূচি যোগ করতে হলে দলীয় প্রধান খালেদা জিয়া নিজেই করবেন৷ এ ব্যাপারে তাঁকেই সব ক্ষমতা দেয়া আছে৷ তাই নতুন কি ধরনের কর্মসূচি আসতে পারে সে ব্যাপারেও তাঁরা কিছু জানেন না৷

বিএনপির সহ-দফতর সম্পাদক আসাদুল করিম শাহীন বলেন, দাবি আদায় না হওয়া পর্যন্ত লাগাতার অবরোধ কর্মসূচি চলতেই থাকবে৷ এর সঙ্গে দলের নীতিনির্ধারকরা নতুন নতুন কিছু কর্মসূচিও যোগ করবেন৷

Bangladesch Parlamentswahlen Gewalt in Rajshahi

হরতাল ও অবরোধের দেশে পরিণত হয়েছে বাংলাদেশ...

বিএনপির একাধিক নেতা বলেছেন, লন্ডন থেকে টেলিফোনে একাধিক নেতার সঙ্গে যোগাযোগ করে বিএনপির সিনিয়র ভাইস চেয়ারম্যান ও খালেদা জিয়ার বড় পুত্র তারেক রহমান বলেছেন, কর্মসূচি শিথিল করা যাবে না, লাগাতার কর্মসূচি চলতে থাকবে৷ দাবি আদায় না হওয়া পর্যন্ত কর্মসূচি চলবে৷

তবে খালেদা জিয়া টানা কর্মসূচি না দিয়ে বিরতি দিয়ে কর্মসূচির পক্ষে বলে জানান ওই নেতারা৷ শেষ পর্যন্ত তারেক রহমানের ইচ্ছায় কর্মসূচি শিথিল না করে লাগাতার অবরোধ চালানোর চিন্তাভাবনা করছেন বিএনপির নীতিনির্ধারকরা৷

Bangladesch Parlamentswahlen

একটি সর্বদলীয় দ্বিতীয় নির্বাচন কি আদৌ সম্ভব?

বুধবার সন্ধ্যায় বিএনপির ভারপ্রাপ্ত মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর এক বিবৃতিতে বলেছেন, প্রহসনের নির্বাচন বাতিলের দাবিতে ডাকা টানা হরতাল শেষ হলেও অবিরাম অবরোধ কর্মসূচি চলবে৷ বিবৃতিতে ‘খালেদা জিয়ার পক্ষ থেকে' চলমান আন্দোলনের অংশ হিসেবে লাগাতার অনির্দিষ্টকালের রাজপথ-রেলপথ-নৌপথ অবরোধ কর্মসূচি শান্তিপূর্ণভাবে চালিয়ে যাওয়ার আহ্বান জানান তিনি৷

অর্থনীতির অবস্থা খারাপ হবে

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের আন্তর্জাতিক সম্পর্ক বিভাগের অধ্যাপক ইমতিয়াজ আহমেদ ডয়চে ভেলেকে বলেন, বিএনপির পক্ষে এই মুহূর্তে এর বাইরে কোনো কিছু করার সুযোগ আছে বলে মনে হয় না৷ কারণ ১৯৯৬ সালের ১৫ ফেব্রুয়ারি বিএনপি একতরফা নির্বাচন করে ফেলার পর টানা আন্দোলনেই ছিল আওয়ামী লীগ৷

তখনও কিন্তু আওয়ামী লীগ টানা হরতাল ও অবরোধ কর্মসূচি পালন করেছে৷ বিএনপিও সে পথেই যাচ্ছে৷ তিনি বলেন, এভাবে আসলে কোনো সমস্যার সমাধান হবে না৷ জনগণকে দুর্ভোগের মধ্যেই থাকতে হবে৷ কারণ যতদিন পর্যন্ত না সমাধান হচ্ছে আগামী নির্বাচন কিভাবে হবে, ততদিন পর্যন্ত এভাবেই চলতে থাকবে৷ তবে নতুন সরকার গঠিত হলেও তা কিন্তু শক্তিশালী হবে না৷ কারণ এই নির্বাচন দেশীয় বা আন্তর্জাতিকভাবে গ্রহণযোগ্য হচ্ছে না৷ ফলে সরকারও জোর করেই ক্ষমতায় থাকার চেষ্টা করবে, আর বিরোধী দল টানা কর্মসূচির মধ্যে থাকতে চাইবে৷ এতে দেশের অর্থনীতির অবস্থা খুবই খারাপ জায়গায় চলে যাবে৷ এ থেকে পরিত্রাণ খুবই জরুরি৷

গাড়ি চলবে

বিএনপির লাগাতার অবরোধের মধ্যেই গাড়ি চালানোর সিদ্ধান্ত নিয়েছে পরিবহণ মালিক শ্রমিকরা৷ ঢাকা পরিবহণ মালিক সমিতির সভাপতির খন্দকার এনায়েত উল্লাহ ডয়চে ভেলেকে বলেছেন, এভাবে গাড়ি বসিয়ে রেখে মালিক, শ্রমিকদের পথে বসার উপক্রম হয়েছে৷ তাই তাঁরা গাড়ি চালানোর সিদ্ধান্ত নিয়েছেন৷ বুধবার রাত থেকেই গাড়ি চলবে৷

এদিকে বরিশাল জেলা সড়ক পরিবহণ শ্রমিক ইউনিয়নের সভাপতি জাহাঙ্গীর হোসেন টেলিফোনে ডয়চে ভেলেকে বলেন, গত ২৭ নভেম্বর থেকে সরকারি ছুটির দিন ব্যতিত লাগাতার হরতাল ও অবরোধ চলছে৷ এতে প্রায় দেড়মাস যাবত দূরপাল্লার ও অভ্যন্তরীণ রুটে বাস চলাচল বন্ধ থাকায় পরিবহণ মালিক ও শ্রমিকেরা এখন দুর্বিসহ জীবনযাপন করছেন৷ এ অবস্থায় জেলা সড়ক পরিবহণ শ্রমিক ইউনিয়নের এক সভায় হরতাল ও অবরোধ উপেক্ষা করে বরিশালের অভ্যন্তরীণ রুটে বাস চলাচলের সিদ্ধান্ত নেয়া হয়৷ বরিশাল জেলা বাস মালিক সমিতিও পৃথক সভা করে একই সিদ্ধান্ত নিয়েছে৷

নির্বাচিত প্রতিবেদন