1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages

বিজ্ঞান পরিবেশ

তারকাদের নগ্ন ছবি ফাঁসের কারণ ‘সহজ পাসওয়ার্ড’

জেনিফার লরেন্সসহ কয়েক হলিউড তারকার নগ্ন ছবি ফাঁসের খবর অনেকেই জানেন এখন৷ কিন্তু জানেন কি কিভাবে এ সব ছবি ফাঁস হলো? সাইবার নিরাপত্তা বিশেষজ্ঞ জেরোম বিলোয়িস জানেন৷ চলুন তাঁকে প্রশ্ন করি৷

default

জেনিফার লরেন্সসহ কয়েক হলিউড তারকার নগ্ন ছবি ফাঁস হয়েছে

তারকাদের অ্যাকাউন্ট কিভাবে হ্যাক হলো?

অ্যাপল-এর অনলাইন স্টোরেজ ‘আইক্লাউড' থেকে ছবি হ্যাক হওয়ার খবর প্রথম প্রকাশ করে ‘গিটহাব' নামক একটি ওয়েবসাইট৷ আইফোন-এর একটি অপশনের নাম ‘ফাইন্ড মাই আইফোন'৷ এই অপশন ব্যবহার করে হারানো আইফোন খুঁজে পাওয়া যায়৷ হ্যাকাররা কার্যত এই অপশন ব্যবহার করে আইক্লাউড-এ থাকা নগ্ন ছবি ফাঁস করেছে৷

এক্ষেত্রে সহায়তা করেছে অ্যাপল-এর কিছু কারিগরি বিষয়৷ যেমন ‘ফাইন্ড মাই আইফোন' অপশনে প্রবেশের জন্য যে ওয়েবসাইট রয়েছে, সেটিতে ‘লগ-ইন'-এর বিষয়টি সাধারণ পর্যায়ের ছিল৷

ফলে একজন অসংখ্যবার ভুল পাসওয়ার্ড দিলেও পাতাটি ‘লক' হতো না৷ হ্যাকাররা ছোট্ট একটি হ্যাকিং সফটওয়্যার তৈরি করে তারকাদের সম্ভাব্য পাসওয়ার্ডগুলো দিয়ে অনবরত ‘লগ-ইন' করার চেষ্টা করেছে এবং এক পর্যায়ে সফল হয়েছে৷

এ ধরনের আক্রমণ কিভাবে রোধ করা যায়?

বর্তমানে একজন ফোন ব্যবহারকারী সবকিছু ক্লাউডে-এ সেভ করতে পারেন৷ এর সুবিধা হচ্ছে, কেউ ফোন বদল করলে কোনো তথ্য হারায় না৷ অর্থাৎ, নতুন ফোনে আইক্লাউড থেকে সব আবার ডাউনলোড করা যায় বা ‘সিঙ্ক' করা যায়৷ আরেকটি সুবিধা হচ্ছে, ফোন হারিয়ে গেলেও সব তথ্য উদ্ধার করা যায়৷

সমস্যা হচ্ছে, এ সব তথ্য রক্ষা করা হয় পাসওয়ার্ডের মাধ্যমে৷ আর এই পাসওয়ার্ড যদি দুর্বল হয়, তাহলে সেবা যতই সুরক্ষতি হোক কোনো লাভ নেই৷ হ্যাকাররা সহজেই তখন মানুষের ব্যক্তিগত তথ্য, ছবি হ্যাক করতে পারে৷

পরামর্শ হচ্ছে শক্তিশালী পাসওয়ার্ড ব্যবহারের৷ পাসওয়ার্ড জটিল এবং বড় আকারের হতে হবে৷ প্রয়োজনে পাসওয়ার্ডের সঙ্গে সিকিউরিটি কোড ফাংশনও যোগ করা যেতে পারে৷ তাহলে পাসওয়ার্ডের পাশাপাশি ‘লগ-ইনের' সময় একটি কোডের দরকার হবে যা মুঠোফোনে মেসেজ আকারে পাঠায় সেবাদাতা৷ গুগল, ফেসবুকসহ অনেক ইন্টারনেটে সেবাদাতা এই সেবা দিয়ে থাকে৷

এআই/ডিজি (এএফপি)

নির্বাচিত প্রতিবেদন