1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages

পাঠক ভাবনা

‘তনু হত্যা নিয়ে আন্দোলন হলেও প্রধানমন্ত্রী একদম চুপ'

‘আমি বাংলাদেশে তনু হত্যার বিচার পাওয়ার আশা করি না' – ডয়চে ভেলের ফেসবুক পাতায় এই মন্তব্য একজন পাঠকের৷ তনুকে ধর্ষণ ও হত্যা সম্পর্কে অবশ্য আমাদের বেশিরভাগ পাঠকের মত অনেকটা এরকমই৷

নিজের দেশে আইন থাকলেও আইনের প্রয়োগ নিয়ে অত্যন্ত হতাশ ডয়চে ভেলের ফেসবুক বন্ধু অনিন্দিতা শহিদ৷ তাই তাঁর প্রশ্ন, ‘‘বাংলাদেশে বিচার বলতে কিছু আছে নাকি?''

দেশের বর্তমান পরিস্থিতিতে হয়ত সাধারণ জনগণের তেমন কিছুই করার নেই৷ তবে এ ধরনের বিষয় যে তাঁদের কষ্ট দেয়, ভাবায়, এতে কোনো সন্দেহ নেই৷ আর সেকথাই বুঝিয়েছেন পাঠক সোহেল মিয়া তাঁর মন্তব্যের মধ্য দিয়ে৷ তিনি লিখেছেন, ‘‘তনু হত্যার পেছনে তাদের হাত, যারা এই বিষয়টিকে ধামাচাপা দেওয়ার চেষ্টা করছেন৷ এ জন্য আমি সব বিচারের ভার আল্লাহকে দিলাম৷ আল্লাহ যেন বিচার দ্রুত গতিতে করেন৷''

বন্ধু তরিরও লিখেছেন, ‘‘আমি বাংলাদেশে তনু হত্যার বিচার পাওয়ার আশা করি না৷ আর এ জন্য আমি সব বিচার আল্লাহকে দিলাম৷''

গত ২০ মার্চ কুমিল্লা ক্যান্টনমেন্ট এলাকায় তনুর লাশ পাওয়া যায়৷ ঘটনার রাতে কুমিল্লা ভিক্টোরিয়া কলেজের ছাত্রী ও নাট্যকর্মী নিহত সোহাগী জাহান তাদের ক্যান্টনমেন্টের বাসা থেকে ক্যান্টনমেন্টের ভেতরেই আরেকটি বাসায় ছাত্র পড়াতে গিয়েছিলেন৷

এ সম্পর্কে ইব্রাহিম হোসেন ফেসবুকে লিখেছেন, ‘‘বাংলাদেশ যে একসময় পাকিস্তান ছিল, তনুর ধর্ষিত হওয়ার মাধ্যমে তার প্রমাণ আবার পেলাম৷ ১৯৭১ সালে পাকিস্তান বাহিনীর ক্যাম্পে আমাদের মেয়েরা ধর্ষিত হয়েছে আর এখন স্বাধীন দেশের স্বাধীন সেনাবাহিনীর ক্যাম্পে আবারো সেই আমাদের মেয়েরাই ধর্ষিত হচ্ছে৷ এ যেন বড় ভাইয়ের দেখানো পথে ছোট ভাইয়ের পথ চলা...৷''

নারী দিবসেই শুধু ‘নারী অধিকার' নিয়ে মাতামাতি করা হয়৷ এ কথাই বলতে চেয়েছেন ডয়চে ভেলের পাঠক বক্তিয়ার মানিক৷ তিনি লিখেছেন, ‘‘নারী দিবসে আমরা চিৎকার করে বলি, নারীর ন্যায্য অধিকার চাই আর নারী লাঞ্ছিত হলে বলি তার বিচার নাই৷''

যে দেশে হত্যারও বিচার হয় না, এরকম স্বাধীন দেশ কি কেউ চেয়েছিল? এমনই একটা প্রশ্ন করেছেন পাঠক ইয়াসমিন আলম৷ দুঃখ করে তিনি লিখেছেন, ‘‘কিছু বলার নাই, শুধু দেখে যেতে হচ্ছে৷ হায়রে দেশ! এই স্বাধিীনতাই কি আমরা চেয়েছিলাম ?

অন্যদিকে আশরাফের প্রশ্ন, ‘‘যে মোবাইলটা লাশের পাওয়া গেছে সেই মোবাইলটার সিম কার্ড কোথায়? গোয়েন্দা বিভাগই বা কী করছে?''

‘‘দেশে তনু হত্যা নিয়ে এত আন্দোলন হচ্ছে অথচ প্রধনমন্ত্রী শেখ হাসিনা একদম চুপ৷ এখন যদি খালেদা জিয়া কিছু বলেন, তখনই প্রধানমন্ত্রীর মুখ খোলা শুরু হবে৷'' – এ মন্তব্য শারমীন সুচিরের৷

পাঠক জীবন লিখেছেন, ‘‘তনু হত্যার ঘটনায় সেনাবাহিনীদের প্রতি জনসাধারণের আস্থা ওঠে গেল৷''

আর ডয়চে ভেলের ফেসবুক বন্ধু রতন বরুয়া নিশ্চিত যে চার বছর আগে সাংবাদিক সাগর আর রুনি হত্যার বিচারের মতোই তনু হত্যারও কোনো বিচার হবে না৷

সংকলন: নুরুননাহার সাত্তার

সম্পাদনা: দেবারতি গুহ

নির্বাচিত প্রতিবেদন