1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages

বিশ্ব

তনু হত্যার তদন্ত নিয়ে অনেক সংশয়

শিক্ষার্থী ও নাট্যকর্মী সোহাগী জাহান তনু হত্যার বিচার আদায়ের আন্দোলন তীব্রতর হচ্ছে৷ তবে প্রকৃত আসামীরা ধরা পড়বে কিনা এ নিয়ে সংশয় এখনো কাটেনি৷ বাংলাদেশ মানবাধিকার কমিশনের চেয়ারম্যানও এ বিষয়ে সন্দিহান৷

বৃহস্পতিবার কুমিল্লা সেনানিবাসে যেখানে তনুর লাশ পড়েছিল সে জায়গাটি পরিদর্শন করেছেন বাংলাদেশ মানবাধিকার কমিশনের চেয়ারম্যান ড. মিজানুর রহমান৷ পরে কুমিল্লা সার্কিট হাউসে সাংবাদিকদের সঙ্গে মতবিনিময়ের সময় তিনি জানান, যে জায়গায় তনুর লাশ পাওয়া গিয়েছিল, সেই জায়গাটি পরিষ্কার করা হয়েছে৷ তিনি মনে করেন, ‘‘এর মাধ্যমে কিন্তু অপরাধের অনেক সাক্ষ্য বিনষ্ট হয়ে যেতে পারে৷ এটি তদন্ত কাজকে আরও জটিল করে দিতে পারে এ আশঙ্কা আমাদের মনে রয়েছে৷ তনু হত্যা একটি মর্মান্তিক ঘটনা৷ এর সঙ্গে জড়িত অপরাধীদের বিচার নিশ্চিত করতে হবে৷''

তনু হত্যার বিচার বিচারের দাবিতে সারা দেশ এখনো সোচ্চার৷

গত ২০ শে মার্চ কুমিল্লা সেনানিবাস এলাকায় পাওয়া যায় ভিক্টোরিয়া কলেজের ছাত্রী সোহাগী জাহান তনুর লাশ৷ শুরুতে বাংলাদেশের সংবাদমাধ্যমে খবরটি আসেনি৷ তনু হত্যার বিচার দাবিতে আন্দোলন শুরু করে কুমিল্লার তরুণ প্রজন্ম৷ সেনানিবাসের ভিতরে হত্যাকাণ্ডটি ঘটেছে বলেই গণমাধ্যম খবরটি পরিবেশনে সময় নিয়েছে বলেও অনেকের ধারণা৷

তবে গণমাধ্যমে তনু হত্যার খবর পরিবেশন শুরুর পর থেকে সারা দেশেই ছড়িয়ে পড়তে শুরু করে হত্যাকারীদের দ্রুত শাস্তির আওতায় নিয়ে আসার দাবি৷

তনু হত্যা এখন আর সাধারণ কোনো হত্যা ও ধর্ষণ মামলার পর্যায়ে নেই৷ আগামী ৩রা এপ্রিল দেশের সব শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে তনু হত্যার বিচার দাবিতে ধর্মঘট পালিত হবে৷

সংকলন: আশীষ চক্রবর্ত্তী

সম্পাদনা: দেবারতি গুহ

নির্বাচিত প্রতিবেদন

সংশ্লিষ্ট বিষয়