1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages

বিশ্ব

ঢাকা ও চট্টগ্রামে সিটি নির্বাচনের হাওয়া

ঢাকা ও চট্টগ্রামের তিন সিটি করপোরেশন নির্বাচন নিয়ে দেশের প্রধান দুই রাজনৈতিক দল আওয়ামী লীগ এবং বিএনপি ব্যস্ত হয়ে পড়েছে৷ বিএনপি আন্দোলনে থাকলেও নির্বাচনকেও সমান গুরুত্ব দিচ্ছে৷ এরই মধ্যে মনোনয়নপত্র সংগ্রহ শুরু হয়ে গেছে৷

ঢাকা উত্তর ও দক্ষিণ এবং চট্টগ্রাম এই তিন সিটি করপোরেশনের নির্বাচনকে দুই দলই মর্যাদার লড়াই হিসেবে নিচ্ছে৷ নির্বাচনের আগে বিএনপি নির্বাচন কমিশনের সঙ্গে দেখা করে কিছু শর্ত দেবে বলে জানা গেছে৷ তারা চাইবে সবার জন্য সমান সুযোগ৷

বিএনপি চেয়ারপার্সনের উপদেষ্টা আহমেদ আযম খান ডয়চে ভেলেকে বলেন, ‘‘বিএনপির নেতা-কর্মীদের গত তিন মাসে গণহারে গ্রেপ্তার করা হয়েছে৷ তাঁদের বিরুদ্ধে দেয়া হয়েছে মামলা৷ যাঁরা মেয়র থেকে ওয়ার্ড কাউন্সিলর পদে প্রার্থী হবেন তাঁদের বড় একটি অংশ কারাগারে৷''

প্রশাসন ও পুলিশের নিরপেক্ষ ভূমিকা ছাড়া সফল ও গ্রহণযোগ্য নির্বাচন হবে না বলেও মনে করেন বিএনপির এই নেতা৷

এদিকে, আওয়ামী লীগের যুগ্ম সম্পাদক মাহবুব উল আলম হানিফ বলেছেন, ‘‘আমরাও চাই বিএনপি নির্বাচনে আসুক৷ নির্বাচনে সবার জন্য সমান সুযোগ থাকবে, সেটা আমাদেরও দাবি৷ তা নিশ্চিত করতে হবে নির্বাচন কমিশনকে৷ আর বিএনপিকে নাশকতা বন্ধ করতে হবে৷ নাশকতা করলে পুলিশ ধরবে, মামলা হবে এটাইতো স্বাভাবিক৷''

সিটি নির্বাচনে মনোনয়নপত্র সংগ্রহ এরই মধ্যে শুরু হয়ে গেছে৷ ২৯ মার্চ পর্যন্ত মনোনয়নপত্র কেনা এবং জমা দেয়া যাবে৷ ১ ও ২ এপ্রিল মনোনয়নপত্র বাছাই এবং প্রত্যাহারের শেষ তারিখ ৯ এপ্রিল৷ তিন সিটিতে নির্বাচন ২৮ এপ্রিল৷

ঢাকার দুই সিটি করপোরেশনে মেয়র পদে প্রার্থীতা নিয়ে শাসক দল আওয়ামী লীগে এরই মধ্যে কোন্দল শুরু হয়ে গেছে৷ ঢাকা উত্তরে মেয়র পদে আওয়ামী লীগ সমর্থিত প্রার্থী এফবিসিসিআই এর সাবেক সভাপতি আনিসুল হক৷ তবে বিদ্রোহী প্রার্থী হিসেবে মাঠে আছেন আওয়ামী লীগ নেতা এবং মিরপুরের সংসদ সদস্য কামাল আহমেদ মজুমদার৷ ঢাকা দক্ষিণে আওয়ামী লীগের প্রার্থী প্রয়াত মেয়র মোহাম্মদ হানিফের ছেলে আওয়ামী লীগ নেতা সাঈদ খোকন৷ তবে বিদ্রোহী প্রার্থী হিসেবে মাঠে সরব আছেন সংসদ সদস্য এবং আওয়ামী লীগ নেতা হাজী সেলিম৷

Bildergalerie Opfer politischer Gewalt in Bangladesch 2015

আওয়ামী লীগের যুগ্ম সম্পাদক মাহবুব উল আলম হানিফ বলেছেন বিএনপিকে নাশকতা বন্ধ করতে হবে

চট্টগ্রামে মেয়র পদে আওয়ামী লীগ সমর্থিত প্রার্থী মহানগর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক আ জ ম নাছির উদ্দিন৷ সাবেক মেয়র এবং মহানগর আওয়ামী লীগের সভাপতি এ বি এম মহিউদ্দিন চৌধুরী এবার মনোনয়ন পাননি৷ এর ফলে চট্টগ্রাম সিটি আওয়ামী লীগে গ্রুপিং এখন স্পষ্ট৷

এদিকে বিএনপি ঢাকা উত্তরে মেয়র পদে শিল্পপতি আব্দুল আউয়াল মিন্টুকে প্রার্থী হিসেবে চূড়ান্ত করেছে বলে জানা গেছে৷ আর দক্ষিণে বিএনপি নেতা মির্জা আব্বাসের নাম শোনা গেলেও তা চূড়ান্ত হয়নি৷ দেশের বাইরে থাকা বিএনপি নেতা এবং সাবেক মেয়র সাদেক হোসেন খোকাও সংবাদ সম্মেলন করে ঢাকা দক্ষিণে প্রার্থী হওয়ার আগ্রহের কথা জানিয়েছেন৷ কারাগারে থাকা বিএনপি নেতা ও সাবেক সংসদ সদস্য নাসির উদ্দিন পিন্টুর পক্ষেও ঢাকা দক্ষিণের মেয়র পদে মনোনয়নপত্র কেনা হয়েছে৷

চট্টগ্রাম সিটি করপোরেশনের বর্তমান মেয়র মনজুর আলম বিএনপির সমর্থনেই গত নির্বাচনে মেয়র হয়েছেন৷ তিনি এরইমধ্যে নির্বাচনি জনসংযোগ শুরু করে দিয়েছেন৷ আশা করছেন এবারও বিএনপির মনোনয়ন পাবেন৷ তবে চট্টগ্রাম মহানগর বিএনপির সভাপতি আমির খসরু মাহমুদ চৌধুরীকেই প্রার্থী করতে চাইছে বিএনপি৷ সম্ভাবনা আছে আব্দুল্লাহ আল নোমানেরও৷

এদিকে বিএনপি চাইছে কোনো একটি জোটের ব্যানারে প্রার্থীদের সমর্থন দিতে৷ নাগরিক ঐক্যের আহ্বায়ক মাহমুদুর রহমান মান্না ঢাকা উত্তরে মেয়র পদে প্রার্থী হচ্ছেন৷ তাই শেষ পর্যন্ত এমনও হতে পারে যে, বিএনপি কোনো প্রার্থী না দিয়ে মান্নাকে সমর্থন দিতে পারে৷ বিএনপি নেতা আহমেদ আযম খান জানান, ‘‘শেষ পর্যন্ত আমরা যোগ্য প্রার্থীকে সমর্থন দেব৷ আমাদের টার্গেট থাকবে তিন সিটির তিন মেয়র পদেই যেন বিএনপি সমর্থকরা পাস করে৷''

বিএনপির এই কৌশল আওয়ামী লীগেরও মাথায় আছে৷ তাই প্রকৃত অর্থে মেয়র পদে প্রার্থী চূড়ান্ত হবে মনোনয়নপত্র প্রত্যাহারের শেষ দিন ৯ এপ্রিলের আগে৷

নির্বাচিত প্রতিবেদন

সংশ্লিষ্ট বিষয়