1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages

বিশ্ব

‘ঢাকার আম-লিচুতে ভয়ংকর ফরমালিন’

বাংলাদেশের রাজধানী ঢাকার আম, জাম, লিচুসহ মৌসুমী ফলে মিলেছে ভয়ংকর মাত্রার ফরমালিন৷ যে কোনো সময় রাজধানীর জনস্বাস্থ্য চরম হুমকির মুখে পড়তে পারে৷ চেকপোস্টে তল্লাশি চালিয়ে ভয়াবহ চিত্র ধরা পড়ছে৷

বিশেষজ্ঞরা বলছেন, একজন মানুষের দেহে ১ দশমিক ৫ পিপিএম (পার্টস পার মিলিয়ন) মাত্রার ফরমালিন সহনীয়৷ কিন্তু চেকপোস্ট বসিয়ে ঢাকায় প্রবেশ করা মৌসুমী ফলে তল্লাশি চালিয়ে দেখা গেছে ১২৫ পিপিএম মাত্রার ফরমালিন, যা মানবদেহের জন্য চরম ঝুঁকিপূর্ণ৷

বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিক্যাল বিশ্ববিদ্যালয়ের মেডিসিন বিভাগের চেয়ারম্যান ড. এ বি এম আবদুল্লাহ বলেছেন, ‘‘১২৫ পিপিএম মাত্রার ফরমালিন মানুষের শরীরে প্রবেশ করলে লিভার নষ্ট হওয়ার পাশাপাশি শিশুদের অঙ্গ-প্রত্যঙ্গ বিকলাঙ্গ হয়ে যেতে পারে৷ প্যারালাইসিসসহ নানা ধরনের জটিল রোগে আক্রান্ত হওয়ার সম্ভাবনা বেশি৷ সবচেয়ে বড় কথা একজন মানুষ এই ফরমালিনের প্রভাবে যে কোনো সময় স্ট্রোক হয়ে মারা যেতে পারেন৷'

বুধবার সন্ধ্যা থেকে রাজধানীতে প্রবেশ করা সবগুলো ফলের ট্রাকে তল্লাশি চালাচ্ছে ঢাকা মেট্টোপলিটন পুলিশ৷ এর জন্য চেকপোস্টের পাশাপাশি ও ফরমালিন পরীক্ষার জন্য বিশেষজ্ঞও রাখা হয়েছে৷ প্রথম রাতের অভিজ্ঞতা বর্ণনা করতে বৃহস্পতিবার এক সাংবাদিক সম্মেলনের আয়োজন করেছিল ঢাকা মেট্টোপলিটন পুলিশ৷ সেখানে ঢাকা মেট্টোপলিটন পুলিশের মুখপাত্র যুগ্ম কমিশনার মনিরুল ইসলাম বলেন, বুধবার রাত আটটা থেকে বৃহস্পতিবার ভোর পর্যন্ত মোট ২০৮টি ফলবাহী ট্রাক রাজধানীতে প্রবেশ করেছে৷

মনিরুল ইসলাম বলেন, রাজধানীতে প্রবেশ করা এসব ট্রাকে আম, জাম, লিচু, খেজুর, কলা, তাল, আনারস, লটকন, আপেল ও মাল্টা ছিল৷ তিনি বলেন, পুলিশ ঢাকায় আসা ফলে বিশেষ করে আম, জাম ও লিচুতে পরীক্ষা চালায়৷ এসব পরীক্ষায় মানবদেহের জন্য অতি ক্ষতিকর ও ভয়ংকর মাত্রায় ফরমালিনের ব্যবহার পাওয়া যায়৷ আমে পাওয়া গেছে ২ দশমিক ৪৮ থেকে ১২৫ পিপিএম মাত্রায় ফরমালিন৷ লিচুতে ১ দশমিক ৪৯ থেকে ৩১ পিপিএম মাত্রা পর্যন্ত ফরমালিন পাওয়া গেছে৷ আর জামে পাওয়া গেছে ৩৩ থেকে ৩৫ পিপিএম মাত্রায় ফরমালিন৷ তিনি বলেন, বিশেষজ্ঞরা বলেছেন, এই মাত্রা মানবদেহের জন্য অত্যন্ত হুমকিস্বরূপ৷

ঢাকা মেট্টোপলিটন পুলিশের উপ-কমিশনার মাসুদুর রহমান ডয়চে ভেলেকে বলেন, চেকপোস্টগুলোতে অভিযানে ফরমালিনযুক্ত তিন হাজার মণ আম, ২০০ মণ জাম ও আনুমানিক ১৫ লাখ লিচু জব্দ করে ধ্বংস করা হয়েছে৷ এ জন্য দুইজনের ছয় মাস ও একজনের ১৫ দিনের কারাদণ্ড ও ১২ জনের কাছ থেকে ৮৫ হাজার টাকা করে জরিমানা আদায় করা হয়েছে৷ তিনি বলেন, ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশের এই অভিযান অব্যাহত থাকবে৷

Alphonso Mangos

ফলের ট্রাকে তল্লাশি চালাচ্ছে ঢাকা মেট্টোপলিটন পুলিশ

মাসুদুর রহমান বলেন, ফল ব্যবসায়ীরা পুলিশের এই অভিযানের কারণে কৌশল বদলে ফেলেছে৷ তারা দিনের বেলায় ঢাকার আশপাশে ফল এনে রাখছেন৷ এরপর বাস, বাসের ছাদে করে এগুলো রাজধানীতে প্রবেশ করাচ্ছে৷ এগুলো রোধেও কার্যকর ব্যবস্থা নেয়া হচ্ছে৷ চেকপোস্ট ছাড়াও রাজধানীর বিভিন্ন বাজারেও ফরমালিন বিরোধী অভিযান চালানো হচ্ছে৷ বিশেষ করে এ বিষয়ে গোয়েন্দা তত্পরতা বৃদ্ধি করা হয়েছে৷ যেখানে ফরমালিন বিষয়ে তথ্য পাওয়া যাচ্ছে, সেখানেই অভিযান চালানো হচ্ছে৷ মৌসুমী ফলের এই সময়ে অভিযান অব্যাহত থাকবে৷

মনিরুল ইসলাম বলেন, ফরমালিন আমদানিকারকদের তালিকা সংগ্রহ করা হয়েছে৷ দেশে ফরমালিনের চাহিদা ৪০ টন৷ এর বাইরে বেশি পরিমাণে ফরমালিন আমদানি করা হচ্ছে৷ আমদানিকারকদের গুদামেও অভিযান চালানো হবে৷ তিনি বলেন, সর্বোপরি, জনগণকে সচেতন হতে হবে৷ ব্যবসায়ীদের ফরমালিন মেশানোর প্রবণতা কমাতে হবে৷ জনস্বাস্থ্যের দিক বিবেচনা করে ফরমালিন না মেশাতে ব্যবসায়ীদের প্রতি অনুরোধ করেন তিনি৷

এদিকে ফরমালিন আমদানি ও নিয়ন্ত্রণে আলাদা সনদ প্রদানকারী কর্তৃপক্ষ (লাইসেন্সিং অথরিটি) গঠনের নির্দেশনা চেয়ে একটি আবেদন করা হয়েছে৷ বৃহস্পতিবার সুপ্রিম কোর্টের সংশ্লিষ্ট শাখায় আবেদনটি করা হয়েছে৷ আগামী রবিবার আবেদনটি শুনানির জন্য দাখিল করা হতে পারে বলে জানিয়েছেন আবেদনকারীর আইনজীবী সৈয়দ মহিদুল কবির৷ লিগ্যাল অ্যাকশন বাংলাদেশ ফাউন্ডেশনের সহকারী পরিচালক ফরিদ আহমেদ ইতিপূর্বে করা এক রিট আবেদনের ধারাবাহিকতায় সম্পূরক এই আবেদনটি করেন৷ আবেদনে ফরমালিনের ব্যবহার নিয়ন্ত্রণে কী পদক্ষেপ নেয়া হয়েছে, সে বিষয়ে প্রতিবেদন দাখিল করার নির্দেশনাও চাওয়া হয়েছে৷

নির্বাচিত প্রতিবেদন