1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages

খেলাধুলা

ডোপিং-এর বিরুদ্ধে জার্মানিতে উদ্যোগ

ক্রীড়াক্ষেত্রে ডোপিং-এর ফলে ক্ষতির মাত্রা কম হয় না৷ তাই ডোপিং-এর বিরুদ্ধ আরও কড়া আইন আনতে চায় জার্মানি৷ এই প্রশ্নে রাজ্য ও ফেডারেল স্তরে একাধিক উদ্যোগ দেখা যাচ্ছে৷

জার্মানিতে মহাজোট সরকার এখনো গঠিত হয়নি৷ সংসদের নিম্ন কক্ষ ‘বুন্ডেসটাগ' কার্যত নিষ্ক্রিয় রয়েছে৷ এরই মধ্যে সংসদের উচ্চ কক্ষ ‘বুন্ডেসরাট'-এ শুক্রবার এক ডোপিং বিরোধী আইন অনুমোদিত হলো৷ বাডেন ভ্যুর্টেমব্যার্গ রাজ্য সরকারের উদ্যোগে আনা এই আইন কার্যকর হলে পেশাগত ক্রীড়াক্ষেত্রে ডোপিং ধরা পড়লে ক্রীড়াবিদদের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা নেয়া সম্ভব হবে৷ এবার বুন্ডেসটাগকেও সেই আইন অনুমোদন করতে হবে৷ সেখানে কিছু রদবদল অবশ্য সম্ভব৷ জার্মানির আগামী মহাজোট সরকারও তাদের অভিন্ন কর্মসূচির তালিকায় ডোপিং-এর বিরুদ্ধে সংগ্রামের অঙ্গীকার করেছে৷

2. Fußball Bundesliga 1. Spieltag: FSV Frankfurt - Arminia Bielefeld am Freitag (20.08.2010) im Frankfurter Volksbank Stadion in Frankfurt am Main. Ein Mann geht gegen Spielende mit einer Weste mit der Aufschrift Doping Kontrolle an der Seitenlinie entlang. Foto: Arne Dedert dpa

বাডেন ভ্যুর্টেমব্যার্গ রাজ্যের বিচারমন্ত্রী বলেছেন, ডোপিং-কেও অপরাধ হিসেবে গণ্য করতে হবে৷

আচমকা এমন আইনের প্রয়োজন কেন পড়ছে? বাডেন ভ্যুর্টেমব্যার্গ রাজ্যের বিচারমন্ত্রী বলেছেন, ডোপিং-কেও অপরাধ হিসেবে গণ্য করতে হবে৷ অভিযুক্তদের পুলিশ ও আদালতের ধাক্কা সামলাতে হবে৷ কারণ তারা ক্রীড়াক্ষেত্রে প্রতিযোগিতায় ‘ম্যানিপুলেশন' করছে৷ যে সব ক্রীড়াবিদ অসাধু পথে না গিয়ে নিজেদের স্বাভাবিক ক্ষমতার বলে ও পরিশ্রম করে সুস্থ প্রতিযোগিতায় অংশ নিচ্ছে, এর ফলে তাদের প্রতিও অবিচার করা হচ্ছে৷ অন্যরা ডোপিং করে সাফল্য পেয়ে সেই সাফল্য ভাঙিয়ে আর্থিক পুরস্কার ও স্পনসরদের কাছ থেকে মোটা অঙ্কের বাড়তি অর্থ কামাচ্ছে৷

যারা ডোপিং করছে, শুধু তাদের শাস্তি দিলেই সমস্যার সমাধান হবে না – জার্মানির আইন প্রণেতারা তা বিলক্ষণ জানেন৷ তাই আইনের খসড়ায় ডোপিং-এর কাজে ব্যবহৃত মাদক জাতীয় দ্রব্যের ব্যবসাকেও অপরাধ হিসেবে গণ্য করা হচ্ছে৷ খসড়ায় জরিমানা ছাড়াও নানা রকম শাস্তির বিধানও রাখা হয়েছে৷ ফলে পাঁচ বছর পর্যন্ত কারাদণ্ডও সম্ভব৷

উদ্যোগ মহৎ হলেও কিছু সমালোচনাও শোনা যাচ্ছে৷ কারণ ‘অ্যামেচার স্পোর্টস'-কে এই আইনের বাইরে রাখা হচ্ছে৷ তাছাড়া শুধু প্রতিযোগিতার সময়ই ডোপিং পরীক্ষাকে গুরুত্ব দেওয়া হচ্ছে৷ অর্থাৎ জার্মানিতে খেলাধুলার জগতের একটা বড় অংশের উপরই এই আইনের কোনো প্রভাব পড়বে না৷

এসবি/ডিজি (ডিপিএ, এসআইডি)

নির্বাচিত প্রতিবেদন