1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages

পাঠক ভাবনা

ডিডাব্লিউ-র ওয়েবসাইট খুব ভালো লাগে

ডয়চে ভেলের ওয়েবসাইটটি খড়িখালি, সাতক্ষীরার পাঠক বন্ধু জিয়াউর রহমানের কাছে খুব ভালো লাগে৷ তাই তিনি সময় পেলেই আমাদের ওয়েবসাইটের বিভিন্ন প্রতিবেদনগুলো পড়েন৷

তাঁর মতে, প্রতিবেদনের সাথে দেওয়া ছবিগুলো প্রতিবেদনগুলোকে আরো জীবন্ত করে তোলে৷ তবে তাঁর দুঃখ, ব্যস্ত থাকার কারণে নিয়মিত ওয়েবসাইটে ঢোকা রোজ সম্ভব হয়ে ওঠে না৷

মলত্যাগের স্বপ্ন পূরণ করবে ‘উড়ন্ত শৌচাগার' – এই প্রতিবেদনটি পড়ে ভালো লাগলেও এরকম শৌচাগারের কেন উড়ন্ত নাম হলো, বুঝতে পারলাম না৷ লিখেছেন বর্ধমান থেকে বন্ধু সুহৃত বন্দোপাধ্যায়৷ তাঁর প্রশ্ন, বায়োডিগ্রেডেবল প্ল্যাস্টিক জাতীয় ব্যাগে কি পরিবারের সকলেই ব্যবহার করতে পারবে? তাই যদি হয়, প্রায় সকল দেশেই এই জাতীয় বস্তুর প্রতি চরম ঘেন্নার ভাব লক্ষ্য করা যায়৷ তারপর এই জাতীয় ব্যাগ যেখানেই থাকবে গন্ধ না থাকলেও সেই জায়গা এক অস্বস্তিকর পরিবেশ সৃষ্টি করবে৷ সব শেষে তাঁর প্রশ্ন, একে উড়ন্ত শৌচাগার না বলে শৌচাগারের বিকল্প বলা যায় কি? কারণ শৌচাগারটি উড়তে পারছে না বরং বিকল্প ব্যবস্থা করা হছে৷ ই-মেলের শেষে তিনি আমাদের সবাইকে শুভেচ্ছা জানিয়েছেন৷

বন্ধু, আমি ও আমাদের শ্রোতা ক্লাবের সবাই হতাশা ও উদ্বেগের মধ্যে আছি৷ প্রায় ৩০ বছর শ্রোতা-পাঠক হিসেবে সক্রিয় থাকার পরও ব্যর্থতায় পর্যবসিত হচ্ছি৷ শুধু ডয়চে ভেলেই নয়, চীন আন্তর্জাতিক বেতার, রেডিও তেহরান – কারুর পক্ষ থেকেই কোনো উপহার পাচ্ছি না৷ সবকটি বেতারে মূল্যবান মতামত, গঠনমূলক ই-মেল লেখার পরও আমি দুর্ভাগা, অপায়া৷ দুঃখ লাগে মাত্র কয়েক দিনের শ্রোতাদের একাধিকবার বিজয়ী করা হচ্ছে৷ পাবনা থেকে বন্ধু ডা. এস এম এ হান্নান এভাবেই ই-মেলটি লিখেছেন আমাদের কাছে৷

- বন্ধু হান্নান, পুরস্কার বিজয়ীদের লটারির মাধ্যমে নির্ধারিত করা হয়ে থাকে৷ সেক্ষেত্রে নতুন বা পুরোনো পাঠকের মধ্যে কোনো পার্থক্য করা হয় না৷ তাই সকলে যে পুরস্কার পাবেন না – তা বলাই বাহুল্য৷

সংকলন: নুরুননাহার সাত্তার

সম্পাদনা: দেবারতি গুহ

নির্বাচিত প্রতিবেদন