1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages

বিশ্ব

ডাচ গণভোট ইইউ-ইউক্রেন চুক্তির বিরুদ্ধে গেল

মাত্র এক-তৃতীয়াংশ ভোটার অংশগ্রহণ করা সত্ত্বেও, তাদের প্রায় দুই-তৃতীয়াংশ চুক্তিটি প্রত্যাখ্যান করেছেন৷ এই ফলাফলে ইউরোপ জুড়ে ইউরোনিন্দুকরা খুশি; অপরদিকে ব্রাসেলসের কর্মকর্তারা সচকিত৷

৩২.২ শতাংশ ভোটার ভোটে অংশগ্রহণ করেন; তাদের মধ্যে ৬১.১ শতাংশ ইইউ-ইউক্রেন চুক্তি প্রত্যাখ্যান করেছেন; চুক্তির পক্ষে ভোট দিয়েছেন ৩৮.১ শতাংশ৷

ফলাফল ঘোষিত হবার পর নেদারল্যান্ডসের ইসলাম-বিরোধী ও সেই সঙ্গে ইইউ-বিরোধী রাজনীতিক গের্ট উইল্ডার্স টুইট করেন: ‘‘ইইউ-এর অন্তের সূচনা৷'' ভোটে অংশগ্রহণ ৩০ শতাংশের বেশি হওয়ায় এই গণভোটের ফলাফল বৈধ, কিন্তু বাধ্যতামূলক নয়৷ তবুও, তা ডাচ সরকারের পক্ষে লজ্জাকর বৈকি৷ বুধবার সকালেও প্রধানমন্ত্রী মার্ক রুটে ভোটারদের প্রতি ইউ-ইউক্রেন চুক্তির সপক্ষে ভোট দেবার আহ্বান জানান এই বলে যে, এই চুক্তি ‘‘ইইউ-এর বহির্সীমান্তে আরো বেশি স্থিতি আনবে''৷

বৃহস্পতিবার ডাচ সরকার বলেন যে, তাঁদের পক্ষে গণভোটের পরিষ্কার ‘‘না''-কে উপেক্ষা করার কোনো উপায় নেই, তবে সরকারের প্রতিক্রিয়া নির্দিষ্ট করতে বেশ কয়েক সপ্তাহ সময় লেগে যেতে পারে – যা আবার ইউরোপীয় কমিশনকেও তাদের করণীয় নির্ধারণ করার সময় দেবে৷ ইউরোপীয় কমিশনের প্রেসিডেন্ট জঁ-ক্লোদ ইয়ুঙ্কার ইতিমধ্যেই বলেছেন, ‘‘(নেদারল্যান্ডস) সরকার যদি না-ভোটের কাছে নতিস্বীকার করেন, তাহলে (ইইউ-ইউক্রেন) চুক্তিটি বাতিল হবে৷ এই ‘না' একটি বড় আকারের ইউরোপীয় সংকটের দরজা খুলে দিতে পারে৷''

২০১৫ সালের মাঝামাঝি নেদারল্যান্ডসে যে অ্যাডভাইজরি রেফারেন্ডাম অ্যাক্ট পাশ হয়, সেই আইনের বলে এই প্রথম একটি গণভোট অনুষ্ঠিত হলো৷ ওদিকে ব্রিটেনের ইইউ-বিরোধী ইউকিপ দলের নেতা নাইজেল ফারাজ গোড়া থেকেই ডাচ ইউরোনিন্দুকদের সমর্থন করে যাচ্ছিলেন, তাদের প্রচার সমাবেশেও অবতীর্ণ হয়েছিলেন৷ ডাচ ‘গেনপাইল' আন্দোলন চার লাখের বেশি স্বাক্ষর সংগ্রহ করে সরকারকে এই গণভোটের আয়োজন করতে বাধ্য করে৷ কাজেই দক্ষিণপন্থি পপুলিস্ট গের্ট উল্ডার্স টুইটারে ‘‘ব্রাসেলস এবং দ্য হেগ-এর এলিটকে'' এক হাত নিয়েছেন৷ ওদিকে ইউরোপ জুড়ে এই গণভোটের নানা ধরনের ব্যাখ্যা ও ব্যাখ্যান চলেছে৷ তার মধ্যে একটি হলো: ‘‘ইন্টারনেট কিভাবে আমাদের ইউরোপ্রেমিক এলিটের কাছ থেকে ক্ষমতা ছিনিয়ে নিচ্ছে৷''

এসি/ডিজি (ডিপিএ, এপি, রয়টার্স)

নির্বাচিত প্রতিবেদন

সংশ্লিষ্ট বিষয়