1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages

ভাইরাল ভিডিও

ডাক্তারের বিরুদ্ধে অভিযোগ

ডাক্তার দেখাতে গেলে অপেক্ষা করার অভিজ্ঞতা প্রায় সব দেশের রোগীরই হয়৷ বিশেষ করে প্রথমবার হলে তো কথাই নেই৷ তাই বলে ডাক্তারের বাড়াবাড়ি দেরির কারণ জানতে চাওয়ায় চিৎকার-চেঁচামেচি করে রোগীকে বের করে দেয়া!

যুক্তরাষ্ট্রে এমন কাণ্ডের জন্য অবশ্য সেই ডাক্তারের ব্যাপারে খোঁজখবর নিচ্ছে পুলিশ৷

ঘটনা ফ্লোরিডার গেইনসভিলের৷ ডা. পিটার গালোগলির ক্লিনিকে তার সাথে রোগী জেসিকা স্টিপের বাদানুবাদ হয়৷ সোমবার জেসিকা এই ঘটনার ভিডিও পোস্ট করেন ফেইসবুকে৷ খুব কম সময়েই ভাইরাল হয় ভিডিওটি৷

জেসিকার মেয়ে ঐ ঘটনা ভিডিও করে৷ এতে দেখা যায়, সন্ধ্যা সাড়ে ছয়টায় ডাক্তারকে দেখানোর কথা থাকলেও রাত পৌনে আটটায় ডাক্তার বের হয়ে আসেন তাঁর চেম্বার থেকে৷ ‘কেন এত দেরি হচ্ছে' জেসিকা জানতে চাইলে ডা. পিটার বেশ বিরক্ত হয়ে চিৎকার করতে শুরু করেন৷ বলেন, তিনি অন্য রোগী দেখছেন আর সেখানে তার আরও দেরি হবে৷

‘আপনি কি আমার সাথে মজা করছেন? আপনার কি ধারণা যে পরীক্ষাগুলো এখন আমাকে করতে হবে সেগুলো করতে তিন সেকেণ্ড সময় লাগে?' চিৎকার করে বলেন, ডা. পিটার৷ ‘আপনি এখন কি চান?' জানতে চান তিনি৷

জেসিকা বলেন, ‘বাসায় যেয়ে বিশ্রাম নিতে চাই৷' সাথে সাথেই তাকে ক্লিনিক থেকে বের করে দিতে উদ্যত হন ডাক্তার৷ ‘এক্ষুণি বেরিয়া যান আমার ক্লিনিক থেকে,' বলেন তিনি৷ এমনকি রোগীকে গেইটের দিকে এগিয়ে নিয়ে যেতে থাকেন৷

জেসিকা খানিকটা হতবিহ্বল হয়ে পড়েন তাতে৷ তবে তাঁর মেয়ে বলেন, ‘‘চিন্তা করো না, পুরো ঘটনা আমি ভিডিও করেছি৷''

এ কথা শোনার সাথে সাথে ফোন কেড়ে নেন ডা. পিটার৷ পরে অবশ্য তা ফিরিয়ে দিয়েছেন বলে জানা গেছে৷

ভিডিওটি ফেইসবুকে প্রচার হওয়ার পর ৩ লাখ ৭৩ হাজারেরও বেশি বার মানুষ দেখেছে৷ শরীরে কোনো আঘাত লাগেনি বলে, ঐ ডাক্তারের বিরুদ্ধে  মামলা নেয়নি পুলিশ৷ তবে পরে জানা গেছে, পুলিশ ডা. পিটারের ব্যাপারে খোঁজখবর নিচ্ছেন৷

এএম/এসিবি

নির্বাচিত প্রতিবেদন