1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages

খেলাধুলা

টেস্টে দুইশ ক্যাচের ঘর ছুলেন দ্রাবিড়

বোলারদের উইকেট উৎসবে দ্বিতীয় দিন শেষেই জমে উঠেছে দক্ষিণ আফ্রিকা ও ভারতের দ্বিতীয় টেস্ট৷ ভারত প্রথম ইনিংসে লিড নিলেও আবার ঘুরে দাঁড়িয়েছে প্রোটিয়াসরা৷ তবে দিনটি বিশেষভাবে স্মরণীয় হয়ে থাকবে রাহুল দ্রাবিড়ের জন্য৷

default

ব্যাটিং এর মত ফিল্ডিং এও ভারতের অন্যতম সেরা দ্রাবিড়

প্রথম দিন শেষে ব্যাটিং এ ছিল ধোনির দল৷ দ্বিতীয় দিন শেষেও তাই৷ মানে এখনও ক্রিজে ভারতীয় ব্যাটসম্যানরা৷ তবে মাঝখান দিয়ে দক্ষিণ আফ্রিকার এক ইনিংস শেষ৷ দ্বিতীয় দিন ছয় উইকেটে ১৮৩ রান নিয়ে ব্যাটিং করতে নামে ভারত৷ তবে খুব বেশিদুর এগুতে পারেনি তারা৷ ২০৫ রানেই তাদের টেইল এন্ডার গুটিয়ে যায়৷ দক্ষিণ আফ্রিকার পেসার ডেল স্টেইন ৫০ রানে নেন ছয় উইকেট৷

এরপর ব্যাটিংয়ে নেমে দক্ষিণ আফ্রিকার অবস্থা হয় আরও খারাপ৷ দীর্ঘদিন পর ফেরা জহির খান যেন ঝলসে ওঠেন৷ শুরুর দিকে একের পর এক আঘাত হেনে নাড়িয়ে দেন প্রোটিয়াস ব্যাটিং লাইন আপ৷ তারপর আসেন হরভজন সিং৷ এই দুজনের বোলিংয়ে আসা যাওয়ার ওপর ছিলেন স্বাগতিক ব্যাটসম্যানরা৷ মাত্র ১৩১ রানেই গুটিয়ে যায় দক্ষিণ আফ্রিকা৷ তবে হরভজনের ১০ রানের বিনিময়ে চার উইকেটের চেয়ে বেশি মনে রাখার মত জহির খানের ৩৬ রানে তিন উইকেট৷ উল্লেখ্য, প্রথম দুই ইনিংসের একটিতেও কোন হাফ সেঞ্চুরি হয়নি৷

এদিকে ৭৪ রানে এগিয়ে থাকার পরও তার সুবিধা নিতে পারলেন না ভারতীয় ব্যাটসম্যানরা৷ তাদরে দায়িত্বহীন ব্যাটিংয়ে দ্বিতীয় ইনিংসের শুরুতেও একের পর এক উইকেট পড়তে থাকে৷ মাত্র ৫৬ রানেই বিদায় নেন চার ব্যাটসম্যান৷ দিন শেষে ভারতের সংগ্রহ চার উইকেটে ৯২ রান৷ এই মুহূর্তে তাদের লিড ১৬৬ রানের৷

একদিনের মধ্যেই মোট ১৮টি উইকেট পড়েছে, যা ডারবানে একটি রেকর্ড৷ এছাড়া ভারতের রাহুল দ্রাবিড়ও একটি রেকর্ড করেছেন৷ টেস্টে সর্বোচ্চ ক্যাচের রেকর্ড আগেই ভেঙেছিলেন, সোমবার প্রথম ফিল্ডার হিসেবে দুইশ'র ঘর ছুঁয়েছেন তিনি৷ এর মধ্যে কেবল হরভজনের বোলিংয়েই ক্যাচ নিয়েছেন ৫০টি৷

ডারবান স্টেডিয়ামটি দক্ষিণ আফ্রিকা কিংবা ভারত কারও জন্যই তেমন সুবিধার নয়৷ কারণ এখানেই দুই বছর আগে অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে ১৩৮ রানে এবং গত বছর ইংল্যান্ডের বিপক্ষে ১৩৩ রানে অল আউট হয়েছিল দক্ষিণ আফ্রিকা৷ আর সোমবার করলো তারা ১৩১৷ অন্যদিকে ভারতের এখানে ১০০ ও ৬৬ রানে অল আউট হওয়ারও রেকর্ড আছে৷ তাই দুই দলের ব্যাটসম্যানদের কাছেই এই মাঠ অপয়া৷

প্রতিবেদন: রিয়াজুল ইসলাম

সম্পাদনা: জাহিদুল হক