1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages

সমাজ সংস্কৃতি

টি-শার্টের ঘ্রাণ শুঁকে যৌনসঙ্গী চয়ন

পরপর তিনদিন একই টি-শার্ট পরে ঘুমানো৷ তারপর সেটা প্লাস্টিকের ব্যাগে ভরে পার্টিতে নিয়ে যাওয়া৷ সেখানে যদি কেউ টি-শার্টের গন্ধ শুঁকে পছন্দ করে তাহলেই পাওয়া যাবে ‘আইডিয়াল’ যৌনসঙ্গী৷

default

চলছে ফেরোমোন পার্টি

বিষয়টা মোটামুটি এই রকম৷ ২০১০ সাল থেকে যুক্তরাষ্ট্রে এ ধরণের পার্টির আয়োজন হচ্ছে৷ চলতি বছর লন্ডনেও এমনটা শুরু হয়েছে৷

এ ধরণের পার্টিকে বলা হচ্ছে ‘ফেরোমোন পার্টি'৷ ফেরোমোন হলো এক ধরণের রাসায়নিক, যেটা প্রাণীদের যৌন আচরণ নিয়ন্ত্রণ করে৷ অর্থাৎ একটা প্রাণীর দেহের ফেরোমোন একই প্রজাতির অন্য প্রাণীর আচরণের উপর প্রভাব ফেলে৷

১৯৯৫ সালে সুইস বিজ্ঞানী ক্লাউস ভেডেকিন্ড জানান, ফেরোমোনের এই বিষয়টা মানুষের ক্ষেত্রেও প্রযোজ্য হতে পারে৷

এই তথ্যের উপর ভিত্তি করে জুডিথ প্রেস ২০১০ সালে যুক্তরাষ্ট্রে প্রথমবারের মতো ফেরোমোন পার্টির আয়োজন করেন৷ সাধারণত বারগুলোতে এ ধরণের পার্টির আয়োজন করা হয়৷ সেখানে নারী-পুরুষরা নিজেদের টি-শার্ট পলিথিন ব্যাগে ভরে নিয়ে হাজির হন৷ নিয়ম অনুযায়ী, টি-শার্টটি অবশ্যই পরপর তিন রাতে ঘুমানোর কাজে ব্যবহার হওয়া হতে হবে৷ এরপর টি-শার্টগুলোর ব্যাগে নম্বর লিখে সেগুলো টেবিলে রাখা হয়৷ মেয়েদের টি-শার্টে গোলাপি আর ছেলেদের টি-শার্টে নীল রং দিয়ে নম্বর লেখা হয়৷

অর্থের বিনিময়ে পার্টিতে অংশ নেয়ারা একটার পর একটা টি-শার্টের ঘ্রাণ শুঁকে দেখে৷ একজন অংশগ্রহণকারী যে ব্যাগ পছন্দ করে সেই ব্যাগের নম্বরটি বড় স্ক্রিনে দেখানো হয়৷ এভাবে পছন্দের মানুষকে খুঁজে নেন অংশগ্রহণকারীরা৷

গন্ধের মাধ্যমে টি-শার্টের মালিকের স্টাইল ও তার বৈশিষ্ট্য সম্পর্কে ধারণা পাওয়া বলে জানান পার্টিতে অংশ নেয়া নারী-পুরুষরা৷

লন্ডনে এমন পার্টি আয়োজন করেন জুডি নাদেল৷ মার্চের প্রথম পার্টি থেকে ছয় জোড়া জুটি পাওয়া গিয়েছিল বলে জানান তিনি৷ তবে সেই সম্পর্ক স্থায়ী হয়েছে কিনা, তা তিনি জানেন না বলে জানিয়েছেন৷

একেকটি পার্টিতে ১৪০ জনেরও বেশি নারী-পুরুষ অংশ নেন বলে জানা গেছে৷ পার্টিতে অংশ নিতে আগে থেকেই টিকিট কাটতে হয়৷ মূল্য ১৫ ইউরো করে৷

জেডএইচ/ডিজি (এএফপি)

নির্বাচিত প্রতিবেদন